উত্তর

 

 

 

 

 

পুরানো প্রশ্ন ও উত্তর:      

জানুয়ারী ১১ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

প্রশ্ন: পুস্পিতা, কুষ্টিয়া। স্যার, টুনটুনি ও ছোটাচ্চু সিরিজের নতুন গল্পটা কবে লিখবেন? আর স্যার প্লিজ! নতুন গল্পটাতে ছোটাচ্চুকে তার ডিটেক্টিভ কোম্পানিটা ফিরিয়ে দিয়েন।
উত্তর: একটা তো লিখলাম। এখানেই আছে। আর ছোটাচ্চুকে তার ডিটেকটিভ কোম্পানিটা ফিরিয়ে দেয়া মনে হয় খুবই জটিল হবে, সরফরাজ কাফী মানুষটা খুবই ধুরন্ধর!

প্রশ্ন: স্যার আমার মাথায় আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটা বুদ্ধি আছে। আপনি চাইলেই প্রতি সপ্তাহে ৪ টা করে কুইজ আপনার ওয়েবসাইটেে প্রকাশ করতে পারেন।এটা করলে আমাদের জ্ঞান চর্চা হবে।(পরের সপ্তাহে কুইজের উত্তর দিতে ভুলবেন না) রাইয়ান আল রোহান আটঘরিয়া,পাবনা
উত্তর: এমনিতেই ম্যানেজ করতে পারছি না, ত্মি আরো জটিল করতে বলছ? সব্বোনাশ!

প্রশ্ন: স্যার, আমি অনেক অনেক মন খারাপ করেছি।আমি আপনার কাছে একটা অটোগ্রফ চেয়েছিলাম আপনি দিয়েছিলেনও।কী যে খুশি হয়েছিলাম কী বলব।অথচ আপনি এখন বলছেন ঠাট্টা করে দিয়েছেন এটা কী ঠিক হলো???কথা নাই আপনার সাথে আর।। অবন্তি,ময়মনসিংহ
উত্তর: আমি তোমাদের সাথে ঠাট্টাও করতে পারব না? তাহলে আমি বেঁচে থাকব কী করতে? মুখ গম্ভীর করে বড় বড় আর কঠিন কঠিন কথা বলতে?

প্রশ্ন: স্যার, আমার আগের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ। এবার আমি আপনার কাছে একটা সাহায্য চাইছি।স্যার, আমি বড় হয়ে একজন সফটওয়্যার ইন্জিনিয়ার হতে চাই। কিন্তু আমার পরিবার,আত্মীয় স্বজন এমনকি এলাকার চেনা জানা সবাই চায় আমি ডাক্তারি পড়ি। আমি পরিবারের সবাইকে আমার ইচ্ছার কথা বুঝিয়ে বললেও তারা কেউ আমার কথা পাত্তা দেন না।আমার মায়ের মতে মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়েদের ডাক্তারি পড়াই ভালো,মেয়েরা ইন্জিনিয়ারিং পড়লে ভালো চাকরি পায় না। আমি বিশ্বাস করি আমার একজন ভালো সফটওয়্যার ইন্জিনিয়ার হওয়ার যোগ্যতা আছে। কিন্তু আমি আমার বাবা মাকে কিছুতেই তা বোঝাতে পারছি না। আমার দাদা স্ট্রোক করে মারা যাবার পর আম্মু আমাকে ডাক্তার বানানোর জন্য আরও জেদি হয়ে পড়েছে। এইচএসসির পর মেডিকেল আর ইন্জিনিয়ারিং এর রাস্তা আলাদা হয়ে যাবে। আমাকে সাপোর্ট করার মতো কেউ আমার পাশে নেই। বাবা মাকে রাজি করানোর জন্য এখন আমি কী করতে পারি? ফারিয়া ইসলাম,চাঁদপুর।
উত্তর: যদি কোনোভাবে রাজী করাতে না পার তাহলে একটা দুই নম্বুরী বুদ্ধি দিতে পারি। মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় উলটা পালটা উত্তর লিখে এসো। (সিরিয়াসলি বলি নাই ঠাট্টা করে বলেছি। তোমার আম্মুকে বল যত দিন যাচ্ছে সফটওয়ারের কাজের গুরুত্ব তত বেড়ে যাচ্ছে। তাছাড়া সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারের কাজ অন্য ইঞ্জিনিয়ারদের মত না। এখানে পুরুষ মহিলা ছেলে বুড়ো পাশ করা ফেল করা বলে কিছু নেই! শুধু কাজ জানতে হয়, আর কিছু না!)

প্রশ্ন: স্যার,ফিজিক্স এর প্রতি আগ্রহ আছে।ফিজিসিস্ট হতে হলে কি কি করা লাগবে সামারিটা একটু বলেন।আমি এবার ইন্টারে।
উত্তর: যে ফিজিক্স করে সেই ফিজিসিস্ট! এটাই সামারি।

প্রশ্ন: স্যার পরেরবার আপনি আপনার পরিবারে ছবি দিয়েন।যেমন আপনার মা,ভাই,বোন। স্মৃতি,ময়মনসিংহ।
উত্তর: দিলাম। অ-অ-অ -অনেক পুরানো ছবি, দেখি তুমি কাউকে চিনতে পার কিনা!

প্রশ্ন: প্রত্যয় দাস, সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, দশম শ্রেণী স্যার আমার (অনেক) কিছু কথা আপনার কাছে বলব-১। টুনটুনি ও ছোটাচ্চু এর বই গুলো আপনি আলাদা কতগুলো গল্প দিয়ে বানিয়ে দেন কেন? যেমন দেখলে মনে হয় আলাদা আলাদা কতগুলো একই চরিত্র দিয়ে লেখা গল্প! যদি সিরিজ লিখেন তবে একটা গল্পে একটা বই হলে ভালো হয়……
২। …………… যাই হোক আমি আমার অংশগ্রহণ করা প্রথম জাতীয় অলিম্পিয়াডে উইনার হয়েছিলাম আর গণিত ক্যাম্পের ক্যাম্পার ছিলাম- আমার ইচ্ছা ছিল আপনার কাছ থেকে একটু ম্যাথমেটিক্স, ফিজিক্স আর প্রোগ্রামিং শিখব- মানে আমার বাসা সিলেট, এখন আমি ক্লাস টেনে পড়ি আগামী বছর মার্চ এ আমার ম্যাট্রিক পরীক্ষা শেষ হবে- তারপর প্রায় মাস দুয়েকের বন্ধ, এই সময়টায় কয়েকটা দিন কি আপনার কাছে গিয়ে আমি শিখতে পারব? যে কোনো হিসেবে আমার ইচ্ছাটা – ওয়ার্ম হোল বানিয়ে টাইম-ট্রাভেলের মতো আপাত অসম্ভব, কিন্তু আপনার কাছে অনেক আশা করে বলছি, প্লিজ স্যার এমন কি সময় হবে আপনার (শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালঅয় থেকে আমার বাসার দূরত্ব ২-৩ কিলোমিটার এর বেশি হবে না)
উত্তর: লেখালেখি তো নিজের পছন্দের ব্যাপার, আমার যেরকম ইচ্ছে করে সেভাবে লিখি, অন্যরা কিভাবে চাইছে সেটা মনে রেখে কী আর কেউ লিখতে পারে? তুমি যেরকম চাইছ নিশ্চয়ই সেরকম কাউকে পেয়ে যাবে, আমি নাহয় আমার মতই লিখি, কী বল? তুমি আলাদা ভাবে আমার কাছে কিছু শিখতে চাইছ, কিন্তু আমি সারা জীবন ক্লাশে একসাথে অনেককে পড়িয়ে কিংবা শিখিয়ে এসেছি। একজন নির্দিষ্ট মানুষকে তো কখনো আলাদা ভাবে শিখাইনি।

প্রশ্ন: স্যার, আমার কাছে আপনার লেখা নবম দশম শ্রেণীর পদার্থবিজ্ঞান বই খুব ভালো লাগে। আমি আপনার বইটি পরলাম তারপর ডেভিড হ্যালিডের লেখা ফান্ডামেন্টালস অব ফিজিক্স পরলাম।(ক্যালকুলাস শেখার পরও)। কিন্তু ক্লাসে যখন কোন সমস্যা সমাধান করতে দিলে ঠিকভাবে করলেও স্যার বলে এটা ভূল। আর আপনাকে গালি দেয় নতুন বইয়ে কি উল্টাপাল্টা লিখে রেখেছেন। তাহলে আমি করব কী? (আমাকে অন্তত পাশ তো করতে হবে, সেটাও তো করতে দেয় না
উত্তর: তোমার সমস্যা যথেষ্ট জটিল, এর সমাধান আমার জানা নেই। তোমাদের স্যারকে শুনিয়ে শুনিয়ে আমাকে গালি দিয়ে দেখতে পার। তাহলে তারা খুশি হয়ে তোমাকে পাশ করিয়ে দিলেও দিতে পারে।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি আমার কাছে পরম শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ।আমি কাউকে অনুরোধ করা একদম পছন্দ করি না।আমার কাছে এটি এক ধরনের অন্যায় জুলুম বলে মনে হয়।তবু আজ লজ্জা শরমের মাথা খেয়ে একটি অনুরোধ করছি।টুনটুনি ও ছোটাচ্চু নিয়ে আরেকটি বই কি বের করা যায় না ,স্যার? টুনটুনি, ছোটাচ্চু,ফারিহাপু, ঝুমু খালা, দাদি, বাচ্চা-কাচ্চাদের সাথে আর দেখা হবে না ভেবে বুকটা ভেঙে যাচ্ছে।- পূর্ণতা,দ্বাদশ শ্রেনী জামালপুর।
উত্তর: তোমার বুকটা ভেঙ্গে যাচ্ছে শুনে আমারও বুকটা ভেঙে যাচ্ছে! দেখি কী করা যায়।

প্রশ্ন: স্যার,,, আমি কোয়ান্টাম মেকানিক্সের কিছুই বুঝি না। আমি এখন কি করতে পারি? -মেহরিন তাসনিম
উত্তর: আমিও পলিটিক্স কিছু বুঝি না। কে বলেছে সবাইকে সব কিছু বুঝতে হবে? তূমি যেটা ভালোবাস সেটা পড়!

প্রশ্ন: Goto barer reply er jonno apnake onek onek thank you Sir. ekta question chilo Sir. jodi shombhob hoy tahole ki Serina boi tir ekta part 2 ber kora jabe ki na?? Arekta kotha chilo sir, shamne amar JSC Exam. amar jonno doya korben Sir. Oritro. Holy Cross Girl’s High School, Dhaka.
উত্তর: আমি আসলে কোনো বইয়ের দ্বিতীয় পর্ব লিখি না। কেন জানি এটাকে এক্টুখানি ফাঁকি বাজী মনে হয়! (টুনটুনি আর ছোটাচ্চু কীভাবে কীভাবে জানি লিখতে হয়েছিল, এটাই প্রথম আর এটাই শেষ!) তোমার জেএসসি পরীক্ষার জন্য দোয়া করে দিলাম, দেখবে কতো ভালো হবে তোমার পরীক্ষা!

প্রশ্ন: Sir, আপনাকে কেউ যদি কিছু পাঠায় তাহলে সেটা কি আপনার কাছে পৌছাবে? নাম- পিয়া দে
উত্তর: মনে হয় পৌঁছাবে। তবে কী পাঠাচ্ছে সেটার উপরও খানিকটা নির্ভর করে মনে হয়। যেমন তুমি যদি একটা ইলিশ মাছ পাঠাও তাহলে কী হবে আমি জানি না।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি বলেছিলেন ধীরে ধীরে সব বই দিবেন। কিন্তু আপনি তো আর গল্পই দিচ্ছেন না, বই তো দূরের কথা।
উত্তর: সব বই নেটে পাওয়া যায়, তাই আমি এখানে দিয়ে সময় নষ্ট করছি না। আর কে বলেছে আমি নুতন গল্প দিচ্ছি না? তুমি পড়ছ না, সেটা কী আমার দোষ?

প্রশ্ন: স্যার, কোন বিষয় নিয়ে ধারাবাহিক ভাবে আপনার ওয়েবসাইটে লিখলে ভালো হয়। যেমন : প্রোগ্রামিং নাহলে আপেক্ষিকতা
উত্তর: বড় বড় জ্ঞানের জন্য কত জায়গা আছে, এখানে না হয় একটুখানি ফাঁকিবাজীই করি! তা ছাড়া আমি চাইনা তোমরা নেটে সময়য় নষ্ট কর। আমি চাই তোমরা মাঠে ঘাটে দৌড়াদৌড়ি করে খেলাধুলা কর।

প্রশ্ন: স্যার ইন্টারনেটে একদিন আইনস্টাইন ও রবীন্দ্রনাথের সংলাপের একটা খবর পাই। যেই পড়া শুরু করেছি দেখলাম যে এই সংলাপে তারা যে কথা বলেছিলেন তা বুঝার ক্ষমতা আমার নেই। তাই আপনার কাছে অনুরোধ তারা আসলে কি বলতে চেয়েছিলেন তা যদি একটু বুঝিয়ে বলতেন খুব ভালো হতো।
উত্তর: তোমার যখন বোঝার বয়স হবে, তখন নিজেই বুঝবে। এখন এতো তাড়াহুড়া করে এতো গভীর জ্ঞান দিয়ে কী করবে?

প্রশ্ন: স্যার, আমা পেপারে পড়েছি আইনস্টাইন বলেছেন,”যেকোন বুদ্ধিমান বোকা জিনিসকে বড় করতে পারে,আরো জটিল এবং আরো তীব্র।এটি একটি প্রতিভাকে স্পর্শ করে এবং সাহস অনেকটা বিপরীত দিকে অগ্রসর হয়।” এই কথাটি দ্বারা তিনি কি বুঝাতে চেয়েছেন?
উত্তর: আমি বুঝতে পারলাম না। তুমি যদি কোনোদিন বুঝতে পার, আমাকে একটুখানি বুঝিয়ে দিও।

প্রশ্ন: প্রথমে,আমার সালাম নিবেন,,, স্যার!!! আপনি পাঠকদের চাপে পরে ‘টুনটুনি ও ছোটাচ্চু’ লিখছেন; তাহলে ‘আমি তপু ২’ লিখছেন না কেন?
উত্তর: তুমিই আমাকে বল, ন্যাড়া কয়বার বেলতলা জয়ায়?

প্রশ্ন: স্যার আমার কাছে অনুপ্রেরণা,ভালোবাসা,সাহস,আত্মবিশ্বাস,(আরও যা আছে)=ড.মুহম্মদ জাফর ইকবাল।।..আপনার কে?? অবন্তি।
উত্তর: ইশ! তুমি কী লাকী একজন পেয়ে গেছ। আমিও যদি এরকম একজন পেতাম কী মজাটাই না হতো!

প্রশ্ন: আমি অনেকগুলো প্রশ্ন করেছিলাম উওর পাই নি ।
উত্তর: আমিও অনেকগুলো উত্তর দিয়েছি, কোনো জবাব পাইনি।

প্রশ্ন: স্যার আপনি সাঁতার পারেন ???? অবন্তি
উত্তর: পারি। মনে হয় ভালোই পারি। ছোটো থাকতে  খালে বিলে পুকুরে নদীতে পড়ে থাকতাম।

প্রশ্ন: স্যার ভালো আছেন? আপনার নেক্সট সাইন্স ফিকশন এর নাম কি স্যার? জানালে খুশি হতাম স্যার । মাহমুদ হাসান অভি
উত্তর: “না গ্লিনা, না”। এটাই থাকবে না পালটে ফেলব এখনো জানি না।

প্রশ্ন: এই বছর আপনার প্রকাশিত সবগুলো বই ই শেষ করলাম । ধন্যবাদ জানাতে ভুলবেননা কিন্তু । চাইলে ছোট্ট উপহারও দিতে পারেন। উপহার পেলে অনেক খুশি হব । অভি , মিরপুর ,ঢাকা
উত্তর: সেকি! তুমি এখনও আমার বই পড়ছ? আমি ভেবেছিলাম তোমরা বড় হয়ে গেছ। খালি আমার বই পড়লে তোমরা কিন্তু কোনোদিন বড় হবে না।

প্রশ্ন: আমার জন্মদিন আর আপনার জন্মদিন একই দিনে অর্থাৎ ২৩ ডিসেম্বর । অগ্রিম উইশ করলে খুবই খুশি হব। মাহমুদ হাসান অভি , ঢাকা বাংলাদেশ
উত্তর: শুভ জন্মদিন!

প্রশ্ন: স্যার আপনি কি মিতু তিতুর টাইম মেশিন বইটা এখানে দিতে পারবেন? স্যার আর একটা প্রশ্ন করব ; আপনি কি আমাদের লেখা সব প্রশ্ন পড়েন? মোস্তফা , গোপালগঞ্জ
উত্তর: দিলাম। হ্যাঁ আমি তোমাদের সব প্রশ্ন পড়ি। তবে সবগুলোর উত্তর সবার সামনে দিতে পারি না।

প্রশ্ন: স্যর,প্রতিিদিন প্রায় হাজার মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছে।আপনি প্লিজ সাবধানে থাকবেন।ম্যামকেও সাবধানে থাকতে বলবেন।। অবন্তি,ময়মনসিংহ।
উত্তর: দুশ্চিন্তা করো না। আমাদের সিলেটে মনে হয় ডেঙ্গু মশা এখনো হাজির হতে পারেনি।

প্রশ্ন: স্যার এখানে একজনের উওরে আপনি বলেছেন যে ইয়েশিম আপুর ছেলে হয়েছে।বাবুর নাম কী ?? সারা,কুড়িগ্রাম
উত্তর: সামনা সামনি দেখা হলে জিজ্ঞেস করো, বলে দিব। এটা তো গণ-উত্তর, এখানে না লিখলাম!

প্রশ্ন: আমার নাম আদ্রিতা। আমি সুনামগঞ্জ সরকারি এস.সি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রি।আমি আপনার অনেক বর ভক্ত।আমি আপনাকে দাদু বলে ডাকতে পছন্দ করি।আমি কি ডাকতে পারি?
উত্তর: অবশ্যই পার। ডাকো দেখি, শুনতে কেমন লাগে দেখি!

প্রশ্ন: স্যার, আপনার ওয়েবসাইট যে হ্যাক হয়েছিল সেটা আপনি কিভাবে বুঝেছিলেন?
উত্তর: এটা বোঝা খুবই সহজ। সব কিছু তছনছ করে রেখেছে, ডাটার কোনো খোঁজ খবর নাই, আমি ঢুকতেও পারি না!

প্রশ্ন: স্যার আপনার জীবনের সবচেয়ে বড় আফসোস কী?? যদিও জানি আপনি খুব আশাবাদি মানুষ। তবুও স্যার জানতে চাইই।। অবন্তি, ময়মনসিংহ।
উত্তর: বলতে কষ্ট হবে, সেজন্যে বলতে চাচ্ছি না। যদি কোনোদিন সামনা সামনি দেখা হয় জিজ্ঞেস করো, বলব।

প্রশ্ন:  ১: “ছিন্নপত্র” বইয়ের অধিকাংশ চিঠি কাকে উদ্দেশ্য করে লেখা? এই প্রশ্নটা কয়েক বছর আগে বিসিএস প্রিলিতে এসেছিলো। একজন মানুষ শতবর্ষ আগে কাকে বেশি চিঠি লিখেছে সেটা জানা কি এতটাই জরুরী যে দেশের সব সরকারি কর্মকর্তাদের এটা জানতেই হবে? (এসব মুখস্থ করে যারা টিকে যায় তারাই এদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকে!)
দুই একটা জায়গায় এরকম হলে মানা যায়। কিন্তু এদেশের প্রায় সব প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রশ্ন এরকম হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার (পরীক্ষা শব্দটা ব্যবহার করতে অস্বস্তি হচ্ছে। এটা হচ্ছে যুদ্ধ। একটা সিটের জন্য অনেক মানুষের বাঁচা মরার যুদ্ধ।) প্রশ্নগুলোও ঠিক এরকম হয়। যে যত বেশি মুখস্থ করতে পারবে তার চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা তত বেড়ে যাবে (সায়েন্স ইউনিটের কথা জানি না। তবে কমার্স আর আর্টসের জন্য এটাই সত্যি)। আপনি কিচ্ছু না বুঝে শুধু চোখ বন্ধ করে মুখস্থ করেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় (কিংবা যুদ্ধে) টপ পজিশনে থেকে চান্স পেয়ে “দেশের সেরা মেধাবী” ট্যাগ পেয়ে যেতে পারেন। আবার সব বুঝে বুঝে পড়েও এক অথবা তারও কম নাম্বারের জন্য আপনি চান্স নাও পেতে পারেন। আচ্ছা, দশমিক দুই নাম্বারের জন্য যে চান্স পায় না তার প্রিপারেশন কি খারাপ থাকে না সে “বাজে ছাত্র”?
২: কবি সাহিত্যিকের জন্মস্থান থেকে শুরু করে একটা গল্পের একটা বাক্যের মাঝখানে কোন শব্দ বসবে, অমুক দেশের প্রেসিডেন্ট যে বাড়িতে থাকে সেই বাড়ির নাম কী, বর্তমান অর্থবছরের বাজেটে কোন খাতে কত টাকা বরাদ্দ হয়েছে, সংবিধানের কোন অধ্যায়ে কী বলা আছে, তমুক দেশের সংসদে কয়টা কক্ষ আছে ইত্যাদি ইত্যাদি সব মুখস্থ করে ফেলতে পারলে আমি খুব ভালো ছাত্র। আর মুখস্থ না করতে পারলে আমার মতো খারাপ ছাত্র হয়তো সারা দুনিয়ায় খুঁজে পাওয়া যাবে না!
এ তো গেলো একটা চাকরির পরীক্ষা আর ভর্তি পরীক্ষার কথা। স্কুল কলেজের কিংবা অন্য পরীক্ষার কথা বলতে গেলে কয়েক খণ্ডের বই ছাপিয়ে ফেলতে হবে। তাই সেদিকে না যাই। সারা পৃথিবী যখন নিজেদের নতুন উদ্ভাবন নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে আমরা তখন বসে বসে চোখ মুখ বইয়ের ভেতর গুজে কবে কী হয়েছিল এবং অন্যরা সামনে কী কী করবে সেটা মুখস্থ করছি।
এখন তো একটা স্মার্টফোন আর ইন্টারনেট থাকলে ব্রাউজারে গিয়ে টাইপ করে সার্চ করারও প্রয়োজন নেই। “Hello Google” বলে কিছু জিজ্ঞেস করলেই Google Assistant সব তথ্য নিয়ে হাজির হয়। কষ্ট করে উগান্ডার রাষ্ট্রভাষার নাম (প্রতীকী অর্থে বললাম) মুখস্থ করার দরকারটা কী? আর পরীক্ষায় এসব প্রশ্ন করার মানে কী? ইশতিয়াক জানতে চায়।
উত্তর: তুমি ঠিকই বলেছ, আমি তোমার সাথে একশত ভাগে একমত। যে তথ্যটা বই-পত্র, খাতা, নোট, পেপার, জার্নাল, ইন্টারনেটে পাওয়া যায়, সেটা কেন মাথার মধ্যে রাখতে হবে? আশা করে আছি একসময় আমাদের দেশের লেখাপড়া ঠিক হবে, তখন এই ধরনের পাগলামি আর সহ্য করতে হবে না।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি একাধিকবার নাকি লিখেছেন, আপনি পাকিস্তানিদের ঘৃণা করেন। তাদের সঙ্গে করমর্দন করেন না, পাকিস্তানের উপর দিয়ে যায় যে সব প্লেন, সেই সব ফ্লাইট এড়িয়ে যেতে চান। আপনি কী সত্যই একটি দেশ এবং তার অধিবাসীদের ঘৃণা করেন? এর যৌক্তিকতা ইত্যাদি জানতে চাইছি না। কিন্তু বক্তব্যটি কী সত্য? এস কে পাল বাগেরহাট খুলনা
উত্তর: হ্যাঁ বক্তব্যটা একশ ভাগ সত্যি। আমি আশা করব তোমাদের, যাদের পাকিস্তানীদের দেখতে হয়নি তাদের যেন আমাদের মত বুকের মাঝে এরকম প্রবল ঘৃণা নিয়ে বেঁচে থাকতে না হয়।

প্রশ্ন: স্যার,আপনার প্রিয় রবীন্দ্র সংগীত কোনগুলো? আমার সবচেয়ে প্রিয় ” সখী ভাবনা কাহারে বলে ” আর “একলা চল রে”
উত্তর: কী আশ্চর্য! একটা মিলে গেছে। কোনটা বলতে পারবে?

প্রশ্ন: স্যার , আপনার জন্য অনেক শুভকামনা । আমি একজন অতি সাধারণ একজন মানুষ । বই পড়ার নেশা আমার ছোট থেকেই । আস্তে আস্তে আপনার , হুমায়ূন স্যার এর ভক্ত হয় যাই।। ছোট থেকেই আমাকে কিছু বিষয় প্রবল ভাবে ভাবায় । যেমন মানুষ এর মধ্যে ধর্মের ,বর্ণের , জাতীয়তাবাদ এর বিভেদ , কেন ।। আমরা তো সবাই মানুষ ।আস্তে আস্তে মুক্ত ভাবে চিন্তা করতে শিখি । প্রথা গত ধ্যান ধারণা , বিশ্বাস করা থেকে বের হতে ভাবতে শিখি । কিন্তু চারিদিকে এই অন্ধবিশ্বাস আর মুক্তচিন্তার দেয়ালের সামনে নিজেকে অনেক একা লাগে , মানসিক ভাবে ভেঙ্গে যাই।। ভাবি আসলেই কি আমি সঠিক দিকে আছি , !! নাকি আর দশ জন মানুষ যেদিকে যাচ্ছে আমিও সেইদিকে চোখ বন্ধ করে এগোব !! শুভ্র হাসান মালিক ঢাকা ।
উত্তর: যারা আসলেই মুক্তচিন্তার মানুষ তাঁদের একটু একা লাগারই কথা। কাজেই সেটা নিয়ে মাথা ঘামিও না। হ্যাঁ তুমি সঠিক দিকেই আছ। সেদিকেই থাকো।

প্রশ্ন: স্যার, আমি একটা গল্প লিখেছি, আর আমার মনে হয় এর থেকে ভালো করে আর কোনো গল্প লেখতে আমি পারবো না। কিন্তু জানেন আমার এই গল্পটার সবাই খালি ভুল ধরছে, কেউ ভালো বলছেনা। তাই আমি চাই আপনি আমার গল্পটা পড়ে আপনিই বলুন আমি কি সত্যিই ভালো গল্প লিখতে পারবো না? আর আপনাকে গল্প-টাই বা দেখাবো কি করে? প্রিয়ান্ত, নাটোর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়; দশম শ্রেণী।
উত্তর: হ্যাঁ, গল্পটা তুমি আমাকে পাঠাতে পার। কিন্তু আমি তো কারো মনে কষ্ট দিতে চাই না, তাই যে যেটাই পাঠায় আমি সেটা পড়ে বলি, “বাহ! চমৎকার হয়েছে!” (ভালো লিখতে চাইলে কষ্ট করতে হ্যাঁ।কষ্ট কর একটুখানি, সমস্যা কী?)

প্রশ্ন: শাহরীন খান তান, ১০ম শ্রেণী, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, ঢাকাপ্রাণপ্রিয় স্যার, আপনি কি লক্ষ্য করেছেন বাংলাদেশিরা যে ধীরে ধীরে সব লাইনে আসছে? কিভাবে বুঝলাম জানেন? আপনার হেটারদের সংখ্যা আগের থেকে অনেক কমে আসায়। এখন আপনার হেটার খুব কম। সবাই জাফর স্যার বলতে পাগল। এই আজ থেকে ৪-৫ বছর আগেও আপনার একটা ভিডিও দেখার পরই ঝগড়া করার প্রস্তুতি নিয়ে স্ক্রল করে চলে যেতাম কমেন্ট বক্সে। যে যে হেইট কমেন্ট পোস্ট করত তাদেরকে কি অসাধারণ burn গুলো যে দিতাম! কিন্তু এক বছর ধরে দেখছি সবাই ভালো কমেন্ট করে। ছোট মনের মানুষগুলোর মানসিক উন্নতি হয়েছে।
উত্তর: হায় হায়! এই একটা গ্রুপ ছিল, যারা কখনো ফাঁকি দিতো না, একেবারে দিনরাত চব্বিশ ঘন্টা হিসেব করে আমাকে গালাগাল করতো, তারা তাদের কাজকর্ম খুবই মনোযোগ দিয়ে করতো। এখন তারাও তাদের কাজকর্মে ফাঁকি দিতে শুরু করেছে? আমরা তাহলে কার উপরে ভরসা করব?

প্রশ্ন: স্যার,আপনার সাথে আমার কিছু “গোপন” কথা আছে। এখানে বলা যাবে না, বুঝলেন? আপনার ইমেইল আইডিটা একটু দিন তো! পুনশ্চ:প্রমিস করেন, আপনি আমার ইমেইল দেখে তার একটা অন্নেক সুন্দর রিপ্লাই লিখে দিবেন,আর আমি সেইটা স্ক্রিনশট নিয়ে দেয়ালে লাগিয়ে রাখবো !
উত্তর: আমার ইউনিভার্সিটর ওয়েব সাইটে ঢুকে আমার ইমেইল আইডি বের করে নাও প্লিজ। এখানে ঠিক দিতে চাই না। এখানে তোমরা যেগুলো লিখো সেগুলো কিন্তু গোপনই থাকে। আমি ছাড়া আর কেউ দেখে না। (মাঝে মাঝে হ্যাকাররা যখন হ্যাক করে তারা হয়তো দেখতে পারে, ঠিক জানি না!)

প্রশ্ন: নবম শ্রেণির Physics বই এর কাজ, ক্ষমতা, শক্তি অধ্যায়ে বলা হয়েছে যে রান্না করার জন্য যে তেল ব্যবহার করি সেটা ডিজেলের পরিবর্তে সেটা ব্যবহার করা যায়। তাহলে রান্না করার তেলের পরিবর্তে কি ডিজেল ব্যবহার করা যাবে?
উত্তর: সত্যি মিথ্যা জানি না, কিন্তু শুনেছি ডিজেল দিয়ে সমুচা ভাজলে নাকি খুব মুচমুচে হয়! (প্লিজ প্লিজ বাসায় সত্যি সত্যি চেষ্টা করো না!)

প্রশ্ন: স্যার,আপনি কুমিল্লা কখনো এসেছেন কি?আপনি ঢাকা থেকে সিলেট কিভাবে যান?(মানে বাস,ট্রেন)……… সায়েম রেজা খাদঘর,চান্দিনা,কুমিল্লা
উত্তর: আমরা  একসময় কুমিল্লা থাকতাম। তখন সেটা ছিল পুকুরের পর পুকুরের শহর। সিলেটে সাধারনত গাড়ীতে যাই।

প্রশ্ন: স্যার, হুমায়ূন আহমেদ সারের কোন উপন্যাসটি আপনার সবচেয়ে প্রিয়??? তাওসিফ।
উত্তর: অনেকগুলো। তবে “নন্দিত নরক” উপন্যাসটির জন্য আমার একধরনের আলাদা মায়া আছে। তার কারণ, আমি ছিলাম এর প্রথম পাঠক, হুমায়ূন আহমেদ তখন মোহসিন হলে থাকত। সারা রাত জেগে উপন্যাসটা লিখে সকালে পাশের সূর্যসেন হলে আমার কাছে এসে আমাকে পড়তে দিয়েছে। আমি একবারে পুরো উপন্যাসটা পড়ে শেষ করে অনেকক্ষণ চুপ করে বসেছিলাম। ভাবছিলাম, কী আশ্চর্য, আমাদের পরিবারে আমার ভাই-বোনদের ভেতরে এতো বড় একজন লেখকের জন্ম হয়েছে! তুমি কী জান, এই বইটা যখন প্রথম বের হয়েছিল, আমি তার প্রচ্ছদ এঁকেছিলাম?

প্রশ্ন: স্যার, আপনি ৯০ ডিগ্রীর পূর্ব দ্রাঘিমায় ছেদবিনদুতে দাঁড়িয়ে যে ছবিটা তুলেছিলেন সেই ছবিটা দেখতে চাই।। স্যার,মান মনদির টা কি সত্যিই হবে??৷ স্যার,জানেন আমার চোখে একদম বেসে উঠেছে সবুজ দেশটির মাঝখানে দুটি লাল রেখা।। সাবিহা, দশম শ্রেণী,ময়মনসিংহ।।
উত্তর: ছবিটা খুঁজে বের করতে হবে, অনেকদিন আগের ছবি তো।
শেষ পর্যন্ত খুঁজে পেয়েছি। এই যে সেই ছবি।

প্রশ্ন: স্যার,ইউটিউবে রাজকাহন অনুষ্ঠানটা দেখলাম কিভাবে ১ঘন্টা চলে গেল বুঝলামই না। ভালো লেগেছে। আপনি বলে ছিলেন গালিগালাজ থাকবে, আমি ভয়ে ভয়ে দেখলাম কমেন্ট গুলো,দেখে খুশি হয়েছি কারন ছিল না আজেবাজে কিছু। (১/২টা ছিল পাগল ছাগলের) অবন্তি,দশম শ্রেনি।।
উত্তর: গালি গালাজ নেই? কী আশ্চর্য! দায়িত্বে অবহেলা করে সবাই গেছে কোথায়?

প্রশ্ন: ভবেশ রায় ;নীলফামারী । মানুষ শ্রেষ্ঠ প্রাণী আবার মানুষ মাত্রই ভুল ;এ দুটো এক সাথে কিভাবে সম্ভব?
উত্তর: গরুকে কখনো ভুল করতে দেখেছ? ঘাস খেতে গিয়ে ভুল করে ফ্রায়েড চিকেন খেয়ে ফেলেছে, এরকম কিছু? মানুষের চিন্তা ভাবনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়, সেজন্যে তাদের ভুল হয়। গরু ছাগল এসব প্রাণীর সেই ঝামেলা নেই! তাই তাদের ভুল হয় না। যারা কাজ করে তাদের ভুল হয়, যারা কিছু করে না তাদের কখনো কোনো ভুল হয় না। তাই শ্রেষ্ঠ প্রাণীর ভুল হওয়া এমন কিছু অবাক ব্যাপার নয়।

প্রশ্ন: পৃথিবীর সৌন্দর্য এবং আল্ফ্রেড সরেন এর পি ডি এফ লিংক টা দিন-নেট এ অনেক ঘেটে ও পাই নি। প্রত্যয়, দশম শ্রেণি,সিলেট
উত্তর: আমার কাছে পিডিএফ করা নেই। সরি। এটা কলামের বই তাই হয়ত কেউ নেটে দিতে উৎসাহ পায়নি। খুঁজতে থাকো কোথাও না কোথাও নিশ্চয়ই পেয়ে যাবে।

প্রশ্ন: Nawshin from Mohammadpur dhaka, Uncle ,salam niben asha kori valo achen.apnar lekha vishon valo lage.amar akta prostab chilo.tuntuni o chotacchu er moto arekti notun interesting story shuru korun plz
উত্তর: নুতন আরেকটা চরিত্র নিয়ে নূতন আরেকটা কাহিনী? সর্বনাশ! এক টুনটুনিকে সামাল দিতে গিয়ে জান বের হয়ে যাচ্ছে, এখন টুনটুনির মত ঝুনঝুনি নিয়ে কাহিনী শুরু করলে তাদের উৎপাতে পাগল হয়ে যাব!

প্রশ্ন: Sir, ami apnar onnotomo fan der modhe akjon. Apnar kach theke ami bishho shahitto er prize o niyechi. ektai kotha bolbo sir, apnar Serina boiti porei ami apnar fan holam. er por theke shuru holo ritimoto boiyer collection. shekhane apni autograph o diyechen. ato shundor ekta boi lekhar jonno onek Thank You. apni amar onek boro inspiration. Oritro. Holy Cross Girls’ High School, Dhaka
উত্তর: থ্যাঙ্কু অরিত্র। আমার লেখা পড়ে আনন্দ পাচ্ছ জেনে আমিও আনন্দ পাচ্ছি।

প্রশ্ন: Sir,apnar ar mam er anniversery kobe?? 1978 jani but date ta jani na… Abdullah, chadpur.HSC 2020
উত্তর: তারিখটা এভাবে বলে দেওয়া কি ঠিক হবে? সেই দিনটাতে যদি অনেকে ফুল-টুল নিয়ে হাজির হয়ে যায়। যদি কখনো দেখা হয় তুমি ফিসফিস করে জিজ্ঞেস করো, আমিও ফিসফিস করে বলে দেব!

প্রশ্ন: Sir apni ek jaygay bolecen . apni apnar class e khub koRa. Cele meye ra dekhley naki voy pay…. Kintu ami mone kori world e kicu kicu manush ace , jara jotoy ragi ragi vab dakhak na key tader ke khub entersting lage.. Jemon ta ami …Apni o erokom (kintu apni janen na)… You are soo sweet….. (Ha ha) Porosh….
উত্তর: তোমার কথা সত্যি হলে ভালো, কিন্তু আমার সন্দেহ হয় সেটা সত্যি কিনা!

প্রশ্ন: স্যার আপনি কি কখনো স্কুলে থাকতে ফেল করেছেন? তুলিব,ময়মনসিংহ
উত্তর: মনে হয় না। তবে বড় হয়ে আমেরিকাতে যখন ড্রাইভিং টেস্ট দিয়েছিলাম, তখন প্রথমবার লিখিত পরীক্ষাটাতে ফেল করছিলাম। আমার কী লজ্জা! কী লজ্জা!!

প্রশ্ন: স্যার আমি আপনার কাছে একটা অটোগ্রাফ চেয়েছিলাম, আপনি আমাকে দেননি আমার বান্ধোবিকে দিয়েছিলেন।এই জন্য আমার খুব খুব মন খারাপ হিমি,ময়মনসিংহ
উত্তর: ওটা আমি ঠাট্টা করে দিয়েছিলাম, ওটা তো আসলে দেয়া হল না, সে এটা নিতেও পারবে না। একজনের সাথে ঠাট্টা করেছি, ভাগ্যিস সে মেনে নিয়েছে! সবার সাথে একই রকম ঠাট্টা কীভাবে করি? আমাকে তোমার ঠিকানা লিখে জানাও, আমি একটা অটোগ্রাফ খামে ভরে পাঠিয়ে দেব। ঠিক আছে?

প্রশ্ন: Apni janen na sir. Apni amar jibontake olot palot kore diyecen. Apni na thakle je amar ki hoto…. Kolpona korey shorire kata diye othe. apnar jonnoy ami chinta korar maneta bujhte pereci . sottey chinta korar moto osadharon kaj kono jaygay ney…. Thank you sir…………….. Sayed#
উত্তর: ভাগ্যিস ওলট পালটটা পজিটিভ ভাবে হয়েছে। ভুল ভাবে হলে খুবই খারাপ লাগতো। হ্যাঁ চিন্তা করা অনেক মজার, তুমি কখনো একা থাকবে না। চিন্তা করলে তোমার সাথে আরেকজন তুমি থাকে!

প্রশ্ন: ঈদ মুবারক,স্যার। যেমনটা আছেন তেমনটাই থাকেন।
উত্তর: তোমাকেও অনেক বিলম্বিত ঈদ মুবারক। আচ্ছা, সেভাবেই থাকব।

প্রশ্ন: স্যার, সবাই বলে সায়েন্সে পড়াশোনা করলে নাকি কোন মুখস্ত নেই। সবই ভাবনা চিন্তা আর গবেষনার বিষয়। গবেষনার বিষয়ই বটে। তবে তার জন্য রসদ জোগাতে হয় মুখস্ত করে। আর্টস, কমার্স আর সায়েন্সের মাঝে সায়েন্স বিখ্যাত সবচেয়ে বেশি মুখস্ত করে সেটা মনে রাখার জন্য। জীববিজ্ঞান তো পুরো বই মুখস্ত রাখতে হয়। না হলে আমরা কিভাবে উত্তর করব মানুষের করোটিকার স্নায়ু কয় জোড়া, কোথা থেকে এসব উত্পন্ন হয়, কিভাবে কাজ করে, দেখতে কেমন শাখা প্রশাখা গুলো কী ইত্যাদি। তারপর পদার্থবিজ্ঞানে সব সূত্র তো ঠাস ঠাস করে প্রথমেই মুখস্ত রাখতে হয়। রসায়নে তো সেটি আরও বেশি। পুরো পিরিওডিক টেবিল তো আত্নস্হ করতেই হয় তাদের সাথে সংশ্লিষ্ট সবকিছু মুখস্ত করতে হয়। শুধু গণিতটাই যা বাঁচা বাঁচিয়ে দেয়। আমার প্রশ্ন হচ্ছে, স্যার, প্রথমে আপনিও কি এভাবে মুখস্ত রাখতেন? আপনার বইয়ে পড়েছি আপনি বেশার ভাগ সময় সবচেয়ে বেশি নাম্বার পেতেন।ধন্যবাদ। -পূর্ণতা,…
উত্তর: সমস্যা হচ্ছে তোমরা যখন লেখা পড়ার কথা বল, তখন সেটা বল পরীক্ষায় নম্বর পাওয়ার দিক থেকে। আর আমি বলি শেখার দিক থেকে। কাজেই আমি কল্পনা করি আমার সামনে সব বই খাতা খোলা যখন যেটা দরকার সেটা দেখতে পারি, তাই মুখস্ত করার বিষয়টা আমি কল্পনাই করি না! আমার মনে হয় না আমি কোথাও লিখেছি যে আমি পরিক্ষায় বেশিরভাগ সময়ে সবচেয়ে বেশি নম্বর পেতাম। অনেক সময় হয়তো পেয়েছি, কিন্তু সেটা তো সবাই পায়।

প্রশ্ন: স্যার,বক্তব্যের গভীরতা কি জটিল শব্দের ব্যবহারের ওপর নির্ভর করে?কঠিন শব্দ ছাড়া কি ভালো লিখতে পারা যায় না? নিবিড়,চট্টগ্রাম
উত্তর:        “সহজ কথা কইতে আমায় কহ যে,
সহজ কথা যায় না বলা সহজে।”
…রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

প্রশ্ন: স্যার,আমার খুব ইচ্ছে করে মাঝি হতে।কি করা যায় বলুন তো?
উত্তর: আমারও। সত্যি কথা বলতে কি, আমি একটা নৌকা কিনে নদীতে নদীতে ঘুরে বেড়াব বলে ঠিক করেছি। তুমি আরেকটু অপেক্ষা কর, যখন আমার মত বড় হবে তখন তুমিও আমার মত নৌকার মাঝি হতে পারবে, এখন ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার না হলে তোমার আব্বু আম্মু তোমার জীবন নষ্ট করে দেবে।

প্রশ্ন: স্যার, আমি ক্লাস সিক্সে পড়ি। আমাদের “পৃথিবীর উৎপত্তি ও গঠন” অধ্যায়টি আমার বুঝতে একটু অসুবিধা হয়। আমি কী করতে পারি???? এর উপর কি ভালো বই আছে???? মাহমুদুল আমিন। হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, চঁাদপুর
উত্তর: নিশ্চয়ই আছে, কিন্তু ক্লাশ সিক্সের উপযোগী হবে কিনা সেটা তো বুঝতে পারছি না।

প্রশ্ন: স্যার আমি নবম শ্রেণীতে পড়ি।পদার্থবিজ্ঞান ও আইসিটি বই ছাড়া অন্য সব বই কটমটে ভাষায় লেখা। সেই বইগুলু পড়তে খুবই কষ্ট হয়।বইগুল কি সহজ ভাষায় লেখা যায়না ??????????????? প্লিজ উত্তর দিবেন । নামঃ( টাইপ করতে পারছি না )
উত্তর: একটু আগে যেটা বলেছি, “সহজ কথা কইতে আমায় কহ যে, সহজ কথা যায় না বলা সহজে।” কাজেই বেশির ভাগ মানুষ সহজ ভাষায় কথা বলতে পারে না, তুমি কই করবে বল।

প্রশ্ন: Sir ekta otograph cai
উত্তর: কলম হাতে দাঁড়িয়ে আছি? কীভাবে দিব বল? কোথায় দিব?

প্রশ্ন: স্যার আগের বার আপনাকে বলেছিলাম আমি টুইন প্রাইম এর একটা প্যাটার্ন আবিষ্কার করেছি। মানে টুইন প্রাইম গুলোর মধ্যে খুব অদ্ভুত একটা মিল রয়েছে, আপনি ব্যাপারটা আরেকটু ঘাটলে হয়তো সত্যিই একটা কিছু পাওয়া যাবে। আমি এখন এই প্যাটার্নটা ম্যাথম্যাটিকসএর দুনিয়ায় জানাব কি করে? আপনি প্লিজ হেল্প করবেন
উত্তর: আমি মোটামুটি প্রতি সপ্তাহে টুইন প্রাইম এর একটা করে সলিউশান পাই। আমাদের তো গণিত অলিম্পিয়াডের একটা প্রোগ্রাম আছে, সেখানে যোগ দাও, সবাই তোমাকে সাহায্য করবে! তোমাদের বয়স হচ্ছে শেখার, যখন যা কিছু শেখার আছে, তার সবকিছু শিখে ফেলবে তখন ম্যাথম্যাটিকসএর দুনিয়ায় জানানোর সময় আসবে।

প্রশ্ন: স্যার আপনাদের ৪জনের একটা ফ্যামিলি ছবি দেখতে চাইইই।। অনন্যা,দশম শ্রেনী।।
উত্তর: নাও, দেখো। আমাকে চিনতে পারছ?

প্রশ্ন: স্যার,আমাদের বাংলা বইয়ের কবিতা অংশে যেসব মূলভাব দেওয়া আছে সেরকমই লেখার দরকারটা কি? মানে সেই কবিতা পড়ে আমি নিজের মতো করেও তো অর্থ দাড় করাতে পারি।এখন কবি সত্যিকারে কি বুঝিয়েছেন সেটাতো একমাত্র তিনি নিজেই বলতে পারবেন।ইম্পর্টেন্ট তো আমি নিজে কি বুঝতে পারলাম সেটা না? মোহাম্মদ আরিফ,চট্টগ্রাম।
উত্তর: তুমি ঠিকই বলেছ! তবে আমি লক্ষ্য করেছি কবি সাহিত্যিকেরা যেটা লিখেন, পাঠকেরা তার বাইরের অনেক কিছু সেখানে খুঁজে পান। কাজেই প্রশ্নের ভাষা হওয়া উচিৎ এরকম: অমুক কবি তার অমুক কবিতায় যেটা লিখেছেন সেখানে তুমি কী ভাবছ সেটা লিখ।

প্রশ্ন: স্যার,দ্রুত ঘুমিয়ে পড়ার কোনো পদ্ধতি কি আপনার জানা আছে?ইন্টারনেটে দেখা পদ্ধতিগুলো কাজ করে না।
উত্তর: ইন্টারেস্টিং! আমি কোনো পদ্ধতি কখনো খুঁজিনি, কারন আমার সমস্যা ঠিক উলটো। যেখানে ঘুমানো উচিৎ না সেখানেও ঘুমিয়ে পড়ি। একবার এক টেলিভিশনের প্রোগ্রামে ঘুমিয়ে গিয়েছিলাম! আমার মনে হয় নিয়মিত খেলেধূলা করলে ঘুমের সমস্যা হয় না।

প্রশ্ন: স্যার প্রতিবিম্ব বলতে কি বোঝায়?প্রতিবিম্ব বিষয়টা আমি বুঝতে পারছি না।নামঃতরী ঠিকানাঃদিনাজপুর
উত্তর: আয়নায় যখন নিজেকে দেখ সেটা হচ্ছে তোমার প্রতিবিম্ব। কিন্তু তুমি মনে হয় অন্য কিছু জানতে চাইছ যেটা আমি বুঝতে পারছি না।

প্রশ্ন: Sir… Apner email address ta diben…. Kicu proshno cilo….please sir…………
উত্তর: সবাই তো জানে, তুমি জানো না? আমাদের ইউনভার্সিটির ওয়েব সাইটে তুমি পেয়ে যাবে। এখানে সরাসরি লিখতে সংকোচ হচ্ছে!

প্রশ্ন: Sir ami apner fan… Khubi valo lage apnake……. Amke sir akta autograph diben????……
উত্তর: অবশ্যই দিব। কিন্তু কিভাবে দিব? কোথায় দিব? কেমন করে দিব?

প্রশ্ন: Sir,, bolen to prithibir manush, se jemone hok na keno (kalo ba shada) se ki kokhono dekhte kharap hote pare?????? Ami mone kori pare na… Karon take sristi korecen Allah. Nishcoy Allah ar toyri jinish kokhono kharap hote pare na……….tay na sir??????……..
উত্তর: ইয়াহিয়া খানের চেহারা দেখেছ? যে দানব ত্রিশ লক্ষ মানুষ মারার পরিকল্পনা করে তার চেহারা কী ভালো থাকতে পারে?

প্রশ্ন: Sir.. Akta kharap kajke protibad korar jonno ki akta kharap kaj kora jabe…..Jemon mone koren…. Ekta teacher amader annay vabe mardhor korce.. Tokhon ami protibad korlam…. Ete shikhokke ashomman kora holo…Apni ki bolcen……
উত্তর: একটা ঢালাও উত্তর দেওয়া কঠিন। পুরোটা কোন পরিস্থিতিতে হয়েছে কীভাবে হয়েছে তার উপর নির্ভর করে। তবে শিক্ষক মাত্রই খূব সম্মানী মানুষ সেটা সত্যি নয়। পত্র পত্রিকায় মাঝে মাঝে এমন সব শিক্ষকের বর্ণনা শুনি যে তার মানুষ না রাক্ষস বোঝা যায় না। তাঁদের সম্মান করার দরকার আছে? নাই।

প্রশ্ন: Sir,মহাবিশ্ব এর বাইরে কি আর কিছু আছে?????না এটাই শেষ porosh…
উত্তর: আমি তো এক লাইনে একটা উত্তর দিতেই পারি, কিন্তু তার থেকে ভালো একটা কাজ করা যায়। এই ওয়েব সাইটেই আমার একটা বই আছে, তার নাম হচ্ছে, “বিগ ব্যাং থেকে হোমোস্যাপিয়েন” তার প্রথম অংশটা পড়, সেখানে সব কিছু অনেক গুছিয়ে লেখা আছে! ছোট বই, কিছুক্ষনেই পড়ে ফেলতে পারবে।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি আমার অনেক বড় একজন অনুপ্রেরণার মানুষ। ইদানীং আমি বেশ হতাশায় ভুগি। স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে ভালো একটা জায়াগায় চাকুরীও করছি। কাজ করতে পছন্দ করি, ভালোবাসি।
কিন্তু, ব্যাপারটা হচ্ছে, কর্পোরেট নোংরামি আর বিপদে ফেলার চেষ্টায় আমি বিধ্বস্ত। বয়সে ছোট আর কাজ পাগল হওয়ার কারণে দ্রুত অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের নজরে আসার কারণেই বাকিরা আমাকে সহ্য করতে পারছেন না! আমি কি করতে পারি? চাকুরী ছেড়ে দেবো নাকি ওদের মতোই নোংরামো করবো? ফাহিম, নাখালপাড়া, ঢাকা
উত্তর: না, না, না, চাকরি ছাড়বে কেন? চাকরিও ছাড়বে না, নোংরামোও করবে না। যেমনটি কাজ ভালোবেসে কাজ করে যাচ্ছ সেভাবে কাজ করে যাবে। মনে রেখো কাজের অভিজ্ঞতা বলতে শুধু প্রফেশনাল অভিজ্ঞতা বোঝায় না, সেটা তোমার নানা ধরনের মানুষের সাথে কাজ করার ক্ষমতাও বোঝায়। মনে করো না, চারপাশে হিংসুক মানুষ শুধু আমাদের দেশে থাকে, পৃথিবীর সব জায়গায় এরকম পরিবেশ। তার মাঝে আনন্দ নিয়ে টিকে থাকা শিখতে হয়।

প্রশ্ন: স্যার, জীবনটা কেন আপনার লেখা গল্প-উপন্যাসের মতো এত রঙিন, এত সুন্দর,এত এডভেঞ্চারাস হয় না? আমি ইন্টার-সেকেন্ড ইয়ারের ছাত্র হলেও আমার মন মানসিকতা এখনো কিশোরের মতো।সব সময় ইচ্ছে করে কোথাও যেতে কিন্তু এত চাপ যে ঠিকমতো পড়াশোনাই করতে ইচ্ছা করে না। সারাদিন গল্পের বই পড়ি। কিছুক্ষণের জন্যে হলেও সেরা সময়টা কাটে। আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ আর বুক ভরা ভালোবাসা রইল। নিবিড়,চট্টগ্রাম
উত্তর: থ্যাংকু। জীবনটা সুন্দর মনে করলেই সুন্দর! তোমার কী ধারনা শুধু এডভেঞ্চার করলেই জীবন ইন্টারেস্টিং হয়? আমি তোমাদের বয়সী অনেককে জানি যারা নানা জায়গায় ভলান্টারি কাজ করে, এতো বিচিত্র তাদের অভিজ্ঞতা, জীবনটা এতো পরিপূর্ণ যে দেখে আমি অবাক হয়ে যাই।

প্রশ্ন: Sir,Humayun Ahmed sir apnake dedicated kore “Onnodin”boiti likhchen..apnar kuno boi ki humayun sir k dedicated kore likhchen?? Farhan.
উত্তর: আমার প্রথম বইটা আমি উৎসর্গ করেছিলাম আমার বাবাকে। তখন তো জানতাম না যে এতো বই লিখতে হবে, তাই দ্বিতীয় বইটা তাড়াতাড়ি করে উৎসর্গ করেছিলাম আমার সব ভাইবোনকে, তার মাঝে হুমায়ুন আহমেদও ছিল।

প্রশ্ন: sir, apnar jersey pora chobitai to sundor chilo…change keno korlen??? Farhan.class 8.
উত্তর: নিজের ওয়েবসাইটে নিজের ছবি এতো বড় করে দিতে একটু লজ্জা লজ্জা লাগে, সেজন্যে এটা সরিয়ে একটা কার্টুন দিয়ে রেখেছি।

প্রশ্ন: স্যার আপনি এত ভালো কেন?এত ভালো হওয়ার পেছনের “ছায়েন্স” টা কি?
উত্তর: হা হা হা! তুমি আমাকে বলছ ভালো, তুমি কি জানো কত মানুষ আমাকে দুই চোখে দেখতে পারে না। আমাকে জানে মেরে ফেলতে পারলে তাদের শান্তি।

প্রশ্ন: Sir, amader physics boy e shob sutrer proman daya nay. Tay egulo khujte amader problem hoy. Tay, jodi apni proman gulo diye den…. Tahole valo hoto…….. Porosh
উত্তর: সূত্রের প্রমান থাকে না। বিজ্ঞানীরা ভেবে চিন্তে একটা সূত্র দেন। সূত্রটা সবাই মিলে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখেন। যদি দেখা যায় এটা সত্যি তখন তারা এটা গ্রহণ করেন।

প্রশ্ন: স্যার, এক ডজন একজন বইটা এতো বেশি ভালো লেগেছে আমার কি বলব।। অনেক সুন্দর একটা বই।। Thank you soo mush sir .. এতো সুন্দর একটা বই লেখার জন্যে। সামান্তা,মময়মনসিংহ
উত্তর: থ্যাংকু। অনেক বছর আগে এটা লিখতে শুরু করেছিলাম, এখন মনে হল এটা শেষ করে ফেলি।

প্রশ্ন: স্যার,আপনার নামের অর্থ কি?? মালিহা,ঢাকা
উত্তর: প্রশংসিত পবিত্র-পানি সৌভাগ্য

প্রশ্ন: বাংলাদেশে প্রথম সরকারের উপদেষ্টা কে ছিল মোঃ সজিব গাজি ঠিকানা ৬০ ফিট রোড আগারগাও
উত্তর: মনে আছে, আমি তোমাদের ইন্টারনেট ব্যাবহার করা শিখাচ্ছি? নেটে একটা সার্চ দাও।

প্রশ্ন: x=0 হলে, x=2x বা, x/x =2 বা, 1=2 স্যার, এই সমীকরণের সমাধানে কোথায় ভুল আছে?
উত্তর: শুন্য দিয়ে কোনো সংখ্যাকে ভাগ দেওয়া অনেক গুরুতর অপরাধ!

প্রশ্ন: স্যার, প্লিজ, যখন টুনটুনি তখন ছোটাচ্চু বইয়ের পিডিএফ আকারে দিন।
উত্তর: কেউ না কেউ নিশ্চয়ই দিয়ে রেখেছে, একটা সার্চ দাও।

প্রশ্ন: আমাদের চারে পাশে কি কি আছে ?
উত্তর: এখন তোমার সামনে একটা স্ক্রিন, যেটাতে তুমি এই কথাগুলি পড়ছ! (আসলে তোমার প্রশ্নটা ঠিক বুঝিনি, তাই কী উত্তর দেব বুঝতে পারছি না!)

প্রশ্ন: স্যার আপনার লেখা ” ও” বই এর কাহিনিগুলু কি সত্য? বিশেষ করে শেষ গল্পটা ” “মরা”সেখানে আপনি আপনার পরিচয় দিয়েছেন। নাহিন, লক্ষীপুর।
উত্তর: না, এগুলো বানানো। ভুতের গল্প এভাবে লিখলে মানুষজন ভয় পায় বেশি, সেজন্যে একটু চেষ্টা করে দেখলাম।

প্রশ্ন: স্যার, স্কুলে স্কুলে প্রব্লেম সলভিঙ এর জন্য ভালো ভালো বই (যেমন প্রোগ্রামিং এর বই, গণিত অলিম্পিয়াড এর বই) বিতরণ করার আইডিয়াটা কেমন হয়? তাহলে দেশে বিশাল পরিমান প্রব্লেম সল্ভার তৈরী হবে আর বাংলাদেশ খুব সহজেই উপরে উঠে যাবে। একবার ভেবে দেখেন একবার যদি উদ্যোগ নেয়া যায় খুবই চমৎকার হবে। আরেকটা কথা, পদার্থবিজ্ঞানের উপর আরো বিস্তারিত বই লিখলে ভালো হয়। আমি জানি ইংরেজি বই যথেষ্ট কিন্তু তারপরেও তো ইংরেজ ও অন্যান্য বিদেশিদের তো দেখানো লাগে যে আমাদের ও ভালো বই আছে তাই না। সে কাজটা একটু না হয় করলেন (আমি জানি কাজটা অনেক কষ্টের, কারণ আমি চেষ্টা করেছি। বিশেষ করে ছবি ডাউনলোড করা ও বইয়ে লাগানোটা বেশি কষ্টের) তাহলে আমার স্বপ্ন পূরণ হবে কি? আলাদিনের জ্বিন তো তিনটি স্বপ্ন পূরণ করেছিল। আপনি না হয় একটা কম করেন। Vanushingho Birbal
উত্তর:অনেক ভালো আইডিয়া, কিন্তু সমস্যা হল,  বাংলাদেশে আশী হাজার স্কুল, সব স্কুলে একটা করে চক দিলেও আশী হাজার চক লাগে। তাই সব স্কুলে বই দিতে হলেও সেটা হবে একটা বিশাল দজ্ঞ যজ্ঞ। এগুলো করতে হয় সরকারীভাবে, কিন্তু শিক্ষা খাতে বাজট সবচেয়ে কম। শিক্ষকদের বেতন দিতে গিয়েই হিমশিম খেয়ে যায় এই কাজগুলো করবে কেমন করে? আর বই লেখার ব্যাপারে সবাই যার যার মতন চেষ্টা করে যাচ্ছে, ধীরে ধীরে বইগুলো লেখা হয়ে যাবে।

প্রশ্ন: নমস্কার স্যার। আমি পিয়া ; নবম শ্রেণিতে বিজ্ঞান বিভাগে পড়ি। আমি এখন থেকে কি আপনাকে দাদু বলে ডাকতে পারি? কারণ আমার এ বান্ধবী আমাকে আপনাকে স্যার বলে ডাকতে বারণ করেছে। এর কারণ স্যারদের আমরা সম্মান এর সাথে সাথে তো আমরা ভয় পাই, আর আপনাকে আমরা ভালোবাসি। এখন আমার ও আমার বান্ধবী নাবিলার পদার্থবিজ্ঞানের চতুর্থ অধ্যায় কাজ, ক্ষমতা ও শক্তি পাঠে একটা সমস্যা আছে। তা হলো:
40 kg ভরের একটি বালক ও 60 kg ভরের একজন যুবক একটি ভবনের নিচতলা থেকে এক সাথে দৌড় শুরু করে দৌড়ে একই সময়ে ছাদের একই জায়গায় পৌঁছালো । দৌড়ের সময় উভয়ের বেগ ছিল 30 m/min।
*ছাদে উঠার ক্ষেত্রে উভয়ের ক্ষমতা সমান ছিল কিনা গাণিতিক যুক্তিসহ যাচাই কর।
এখানে আমরা জানি যে, ক্ষমতা, P= W/t আবার, W=Fs; সুতরাং p=Fs/t আবার, F=ma সুতরাং আবার, এখানে যেহেতু ছাদে উঠা বলেছে তাই এখানে F=mg তাহলে এখন P=mgs/t এখানে m,g,t পেলাম কিন্তু s বার করব কীভাবে ? প্লিজ, অঙ্কটা সমাধান করে দিন। আর একটা প্রশ্ন : প্রতিপদার্থ কী? ভালো থাকবেন।
উত্তর: অবশ্যই তুমি আমাকে দাদু ডাকতে পার! তোমার প্রশ্নে কিন্তু মান বের করতে বলেনি, বলেছে ক্ষমতা সমান কীনা সেটা যাচাই করতে। দুজনেরই s সমান কাজেই তুলনা করতে তো সমস্যা নেই।

প্রশ্ন: স্যার, আয়নিকরণ শক্তির ক্ষেত্রে শক্তি ত্যাগ না হয়ে, গ্রহণ হয় কেন? নাহিয়ান, জেলা কুষ্টিয়া।
উত্তর: একটা পরমাণু থেকে একটা আটকে থাকা ইলেকট্রনকে মুক্ত করতে হলে তোমাকে বাইরে থেকে শক্তি দিতে হবে না?

প্রশ্ন: স্যার, পৃথিবী সূর্য এর চারপাশে ঘোরে কেন? নাহিয়ান, জেলা কুষ্টিয়া।
উত্তর: তূমি কত বড়? তুমি ছোটো হলে উত্তর একরকম, বড় হলে উত্তর অন্যরকম। ছোটো হলে উত্তর হচ্ছে মহাকর্ষ বলের আকর্ষণে, বড় হলে বাঁকা স্পেসটাইমের করণে।

প্রশ্ন: স্যার আমার আত্নহত্যা করতে ইচ্ছা হচ্ছে।আমি জীবনে প্রথমবার ফেল করছি! তাও তিন বিষয়ে!আমার ইচ্ছে ছিল বিজ্ঞান বিভাগে পড়ার।পড়েছিও।ভালো করে বুঝে পড়েছি কিন্তু ভারপরও ফেল!আমার ইচ্ছা ছিল স্কুলজীবনের শেষ শ্রেণি অথ্যাত্ দশম শ্রেণিতে ভালো করব কিন্তু তা আর হবে না। এ বছর নবম শ্রেণিতে ফেল করায় দশম শ্রেণিতে রেজাল্ট খারাপ হবে। জানি আত্নহত্যা করাটা বোকামি। ইতোপূর্বে আত্নহত্যা নিয়ে জ্ঞানলাভ করেছি।কিন্তু মন যে সায় দিচ্ছে না।তারপরও পূর্বজ্ঞান কাজে লাগিয়ে মন শান্ত করার চেষ্টা করছি কিন্তু তাতে আমার মস্তিষ্কে চাপ পড়ছে। এভাবে আর কতদিন যাবে!॥!!?প্লিজ এর সমাধান দিন। কনকা ফেনী
উত্তর: জীবনে কতবার উত্থান পতন হবে, সেই জন্যে আত্মহত্যার কথা চিন্তা করতে হবে? না, না, না, না, না, ওসব চিন্তা মাথায় আনবে না। যখনই জীবনে খারাপ কিছু হবে, নুতন উৎসাহ নিয়ে কাজ করবে। মানুষের জীবন অর্থপূর্ণ করতে যা যা দরকার তার মাঝে পরীক্ষার রেজাল্ট মোটেই এক নম্বর নয়।

প্রশ্ন: স্যার আমার প্রশ্নটা একটু অপ্রাসঙ্গিক তবুও বলি,আমার জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হল সেনা কর্মকর্তা হওয়া|আমাকে কোন বেতন ও যদি না দেয়, তিনবেলা সেনানিবাসের খাবার খেয়েও আমি জীবন কাটিয়ে দিতে রাজি আছি কারন আমি মনেকরি অস্ত্রহাতে নিয়ে দেশরক্ষা কোন পেশা নয় যে টাকা নিতে হবে এটা হল দেশের জন্য ভালোবাসা |তবে আমার মনে হয় আমার জীবনের এই একমাত্র লক্ষ্য পূরন হওয়ার নয়|কারন আমি ধর্মে হিন্দু|প্রতিরক্ষাখাতে কেন হিন্দুদের এভাবে অবহেলা|আমাকে যদি শর্ত দেওয়া হয় ধর্মত্যাগের তাতেও আমার আপত্তি নেই কেননা দেশ মাকে রক্ষার থেকে বড় ধর্ম কিছু হয়না|বাংলাদেশের হিন্দুদের কেন সেনাকর্মকর্তা হিসাবে নেওয়া হয়না |তাদের একটা সুযোগ তো দেওয়া উচিত যাতে তারা জীবন দিয়ে হলেও প্রমান করতে পারে যে তারাও দেশকে ভালোবাসে| আমার লক্ষ্য পূরন হওয়ার আদেও কী কোন সম্ভাবনা আছে?আপনার মতামত জানতে চাই| (যদিও আপনি এবিষয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট নন আপনাকে জানালাম শুধু মনের শান্তির জন্য|আসলে আপনাকে আপনজন মনেহয় তো,তাই) সৌমিক দেওয়ান ৯ম শ্রেনি খুলনা
উত্তর: তুমি কি নিশ্চিত ধর্মের কারনে আমাদের দেশে পক্ষপাতিত্ব হয়? আমি জানতাম এটা ছিল পাকিস্তানী আমলে, এখন নেই। আমি একটু খোঁজ নিই। দেশের জন্যে তোমার ভালোবাসার কথা জেনে খুব ভালো লাগল। অবশ্যি একদিন তোমার স্বপ্ন পূরণ হবে।

প্রশ্ন: স্যার,দোকানে বা ঘরবাড়িতে যখন আগুন লাগে তখন ধোয়া বের হয় কিন্তু যখন গ্যাসের চুলায় আগুন জ্বালানো হয় তখন ধোয়া বের হয় না কেন? প্লিজ স্যার উত্তরটা সামনের মাসের 5 তারিখে পাঠিয়েন। কারণ সেদিন আমার জন্মদিন।যদি আপনি 5 তারিখে উত্তরটি পাঠন, তাহলে সেটা হবে আমার জন্মদিনের সেরা উপহার। মুনতাহা শেহ্জাদ লিয়ন পঞ্চম শ্রেণি,মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চাঁদপুর।
উত্তর: হ্যাপি বার্থ ডে! আশা করছ জন্ম দিনে অনেক মজা করেছ। তুমি জন্মদিনে তোমার প্রশ্নের উত্তর চেয়েছ। একটা প্রশ্নের উত্তর দেয়ার থেকে যে কোনো প্রশ্নের উত্তর কীভাবে বের করতে হয় শিখিয়ে দেই। নেটে গিয়ে গুগলে লিখ “what is smoke” উত্তরটা জানার পর লিখ “why no smoke when methane burns” (ইংরেজী একটু ভুলভাল হলেও সমস্যা নাই!) মিথেন হচ্ছে আমাদের দেশের গ্যাসের চুলার গ্যাস। তাহলে নিজেই উত্তরটা পেয়ে যাবে।

প্রশ্ন: শ্রদ্ধেয় জাফর ইকবাল স্যার, আমি জানি না আপনার চোখে এই লেখাটা পরবে কি-না।তাই আমি এই লেখাটা কপি পেস্ট করে আপনাকে মাঝে মাঝে দিয়ে যাবো।
“স্যার আপনার “নয় নয় শূন্য তিন” বইটা লেখার সময়ের কিছু স্মৃতি একটু ছোট করে বলুন।”
উত্তর: আমি এতো বই লিখেছি যে কোন বইয়ে কী লিখেছি সেটা মনেই রাখতে পারি না। মাঝে মাঝে নিজের পুরানো বই পড়ে নিজেই অবাক হয়ে যাই! নয় নয় শূন্য তিন নিয়েও এই অবস্থা। সায়েন্স ফিকশান যারা লিখে তাঁদের এলিয়েন নিয়ে এক ধরনের মোহ থাকে, সবাই চেষ্টা করে নূতন কোনো এক ধরনের এলিয়েন তৈরী করতে। আমিও চেষ্টা করি, এই বইটা সেকারনেই লেখা হয়েছে, বিশাল একটা মস্তিষ্ক, আর কিছু নেই মনে হয়েছে মোটামুটি বিচিত্র এলিয়েন! সেজন্যই লিখেছিলাম। তা ছাড়া মনে হয়েছিল একটা বইয়ের নাম সংখ্যা দিয়ে দিলে কেমন হয়? যদি লিখতাম ৯৯০৩ তাহলে কেউ পড়তো “নয় নয় শুন্য তিন” কেউ পড়তো “নয়হাজার নয়শো তিন”! সেজন্য বইটার নাম কথায় লেখা “নয় নয় শুন্য তিন”!

প্রশ্ন: ১৪ টা বছর ধরে আমি আপনার ফ্যান স্যার। নাট-বল্টু থেকে শুরু করে বিবর্ণ তুষার কিংবা সায়েন্স ফিকশনগুলা,স্যার আপনি একটা বিশাল কল্পনার জগত সৃষ্টি আমার জন্য।সেই ধন্যবাদটুকু আপনাকে কিভাবে দেই? ভালোভাবে থাকবেন স্যার। সাঈফ ঢাকা।
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ! তোমাদের ভালোবাসার জন্যই টিকে আছি, তা না হলে কবেই ফিনিশ হয়ে যেতাম।

প্রশ্ন: দুটি বস্তুর মধ্যে ইলেকট্রনের আদান-প্রদান ইলেক্ট্রন আসক্তি নাকি তড়িৎ বিভবের অথবা উভয়ের উপর নির্ভর করে?
উত্তর:  ইন্টারনেটে electron affinity লিখে একটা সার্চ দাও। (আমি চাই তোমরা নিজেরা বেশীরভাগ প্রশ্নের উত্তর যেন বের করে ফেলতে পার। আমরা যখন তোমাদের বয়সী ছিলাম তখন আমাদের েই সুযোগ ছিল না!)

প্রশ্ন: স্যার,জীববিজ্ঞানের এত তথ্য মাথায় রাখবার দরকারটা কি? নিবিড়,চট্টগ্রাম।
উত্তর: কোনো দরকার নেই। যে তথ্যটা বইপত্র কাগজ কম্পিউটার ইন্টারনেটে পাওয়া যায় সেটা মস্তিষ্কে রাখার কোনো মানে হয় না।

প্রশ্ন: আচ্ছা মি ডিজে স্যার (ডক্টর জাফর স্যার) আপনার পার্সোনালিটি টাইপ কী? আমার INTP-A. 16personalities.com থেকে চেক করতে পারেন৷ আমি আইডিয়া করেছি আপনারটা INTJ-A হবে৷ দেখতে চাই ধারণাটা সত্যি কিনা৷ সেই ছেলেটা সাস্ট থেকে!
উত্তর: সাত বিলিওন মানুষকে মাত্র ষোলো ভাগে ভাগ করা হলে সেটা বিশ্বাস করি কেমন করে? প্রত্যেকটা মানুষই তো আলাদা। (আসলে এই সাইটগুলো তৈরি হয়েছে তোমার সম্পর্কে সব ডাটা নেওয়ার জন্য। লক্ষ লক্ষ মানুষের ডাটা নিয়ে এরা কারো কাছে বিক্রি করে দেয়, আর তারা তোমার কাছে জুতা চশমা মোবাইল ফোন বিক্রি করার চেষ্টা করে!)

প্রশ্ন: গত ফেব্রুয়ারিতে ২০ হলো৷ জীবনের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ কাটিয়ে ফেলেছি৷ কিন্তু কিছুই হল না জীবনে৷ জীবনটা কাটাই কীভাবে বুঝতেছিনা৷ …… সাস্ট থেকে!
উত্তর: কোনো কিছু পাওয়ার জন্য জীবন নয়, পাওয়ার চেষ্টা করার জন্য জীবন।

প্রশ্ন: স্যার আপনি হুমায়ুন আহমেদ স্যার এর স্কুলে আসবেন আপনাকে আমাদের দেখার অনেক ইচ্ছা নামঃ মনিরুল কাওসার প্রিয় ঠিকানাঃ কুতুবপুর,কেন্দুয়া,নেত্রকোনা। শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠের সাবেক ছাত্র।
উত্তর: অবশ্যি আসব। দেখবে হঠাৎ করে একদিন চলে এসেছি।

প্রশ্ন: স্যার, আপনার সবচেয়ে প্রিয় কার্টুন কেরেক্টার কোনটি??? আপনাকে যদি কখন কোন কার্টুন কেরেক্টার এ অভিনয় করতে হয় কোনটি বেছে নিবেন??? প্লিজ স্যার একটা নাম বলেন অবন্তি,ময়মনসিংহ ।
উত্তর: মানুষের যে প্রিয় কার্টুন ক্যারেক্টার থাকা সম্ভব তাই তো জানতাম না! প্রিয় লেখক কিংবা প্রিয় গায়ক বললেই তার উত্তর দিতে গিয়ে আমি হিমশিম খেয়ে যাই, আর প্রিয় প্রিয় কার্টুন ক্যারেক্টার!!

প্রশ্ন: স্যার,মনটা খুব খারাপ। বিবর্ন তুষার বইটি পরে আপনি এমন বই প্লিজ প্লিজ লিখবেন না।।।
উত্তর: আচ্ছা লিখব না। আমি ভুলেভালে লিখে ফেললেও তোমার পড়ো না!

প্রশ্ন: মিস নবেল কে স্বামী বিবেকানন্দ কী কী স্বাবধানের কথ মনে করিয়েছেন
উত্তর: আমি উত্তরটা জানি না। একটা গুগল সার্চ দাও।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি তো সিরাজগঞ্জ আসেন না। তাই, আপনার একটা অটোগ্রাফ চাই ই চাই। প্লিজ স্যার, আমার নাম সহ একটা অটোগ্রাফ পাঠান। সাগর রেজা অর্নব, সিরাজগঞ্জ।
উত্তর: শুধু নাম লিখে পাঠালে তো যাবে না। আরো একটু তথ্য দরকার। আমি সিরাজগঞ্জে যাইনি, তার মানে কখনো যাব না কে বলেছে? (হালো ইফেক্ট নিয়ে তোমার বিশাল লেখা পাঠানোর জন্য ধন্যবাদ)

প্রশ্ন: আপনার “রহস্যময় ব্ল্যাকহোল” বইটা পড়ছি। কিন্তুু একটা প্রশ্ননের উত্তর পাচ্ছি না। ব্ল্যাকহোল তার সামনের দিক দিয়ে সব কিছু টেনে নেয়।তাহলে এর পিছন দিকে কি আছে? ব্ল্যাকহোলের শেষ পরিণতি কি?- রাইয়ান আল রোহান ৫ম শ্রেণি ২নং চাঁদভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আটঘরিয়া,পাবনা
উত্তর: ব্ল্যাকহোলের সামনে পিছনে বলতে কী বোঝাচ্ছ ঠিক বুঝতে পারছি না। মনে কর সূর্য একটা ব্ল্যাক হোল, তাহলে তার সামনে আর পিছনে কোনটা? ব্ল্যাক হোলের শেষ পরিণতি হচ্ছে হকিং রেডিয়েশান করে কোনো একদিন পুরোপুরি উবে যাওয়া।

প্রশ্ন: স্যার আমি গল্পের বই একবার পড়লে সেটা আর ভুলি না। কিন্তু পাঠ্যবই বার বার পড়লেও মনে থাকেনা। এখন কি করব? নাহিন,লক্ষীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।লক্ষীপুর।
উত্তর: লেখা পড়ার উদ্দেশ্য তো মনে রাখা না। লেখাপড়ার উদ্দেশ্য জানা। কাজেই সমস্যা কী মনে না থাকলে? একটা জিনিষ মনে না থাকলেও সেটা জানা সম্ভব সেটা কী তুমি জান?

প্রশ্ন: স্যার, একজন রহস্যময় বিজ্ঞানী নিয়ে টুনটুনি ও ছোটাচ্চুর গল্প লিখুন।
উত্তর: ঠিক আছে, চেষ্টা করব।

প্রশ্ন: স্যার, আপনার লিখা দেশের বাইরে দেশ,আধ ডজন স্কুল, রঙিন চশমা,অবিশ্বাস সুন্দর পৃথিবী,আমেরিকা এই ধরনের বই গুলি আমার অনেক পছন্দ।।অন্যগুলো পছন্দ কিন্ত এইগুলো বেশি ভাল লাগে কারন আপনার জীবন এর গল্প জানা যায়।এমন কি আরও বই আছে??? বিশেষ করে রঙিন চশমা আর আধ ডজন স্কুল টা আমার অনেক অনেক ভাল লেগেছে।। এমন কিছু বই এর নাম চাই।।এমন আরও কিছু বই লিখেন স্যার প্লিজ প্লিজ প্লিজ।।। অবন্তি,ময়মনসিংহ, ১০ম শ্রেনি।।
উত্তর: তোমার কী ধারনা আমার জীবনটা এতই ইন্টারেস্টিং যে সেটা দশজনকে বলে বেড়ানো যায়? উঁহু!

প্রশ্ন: স্যার,বলেছিলেন নিরিবিলি জায়গার নাম বলতে।চলে আসেন আমাদের ময়মনসিংহে। আমাদের শহরটাও কিন্তু অনেক নিরিবিলি ।। সানজানা,ময়মনসিংহ ।
উত্তর: সত্যি? বাংলাদেশে নিরিবিলি জায়গা আছে? যেখনে রাত্রে বেলা শেয়াল ডাকে, হ্যারিকেনের আলোতে বই পড়তে হয়? দিনের বেল বাঁশঝাড়ে শির শির শব্দ হয়? ঘরে বসে নদী দেখা যায়? নৌকার মাঝি গান গাইতে গাইতে দাঁড় বায়?

প্রশ্ন: স্যার আমি বড় হয়ে একজন Pilot হতে চাই। আমাকে আমার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে কি করতে হবে? Name:Swagota Class:6Address:Dinajpur

উত্তর: তোমার হাতে এখনো প্রচুর সময় আছে। আপাতত মন দিয়ে পড়াশোনা কর এবং অনেক বেশি খেলাধুলা করে শরীরটাকে ফিট রাখো। সবচেয়ে বড় কথা মাথার মাঝে স্বপ্নটাকে বাঁচিয়ে রেখো। দেখ দুজন বাংলাদেশে মহিলা পাইলট (Tamanna-E-Lutfi এবং Nayma Haque), জাতিসংঘ তাঁদের নিয়ে বিশেষ ভিডিও করেছে পৃথিবীর মেয়েদের অনুপ্রাণীত করার জন্য! একদিন তুমিও এরকম হতে পারবে।

প্রশ্ন: স্যার এমনকি হতে পারেনা আমরা দ্রুত যানবাহনে চলাচলের কারণে আমাদের জীবন সংক্ষিপ্ত।কারণ আমাদের গতির কারণে আমরা একটু তাড়াতাড়ি ভবিষ্যতে যায় এবং আমাদের জীবন তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যায়।তা হয়ত আমরা টের পাইনা কিন্তু আসলে তা তো ঘটছে।আমার ধারনাটি কি সঠিক?
উত্তর: উল্টোটা ঘটে। গতিশীল হওয়ার কারনে তোমার সময় স্থির মানুষের তুলনায় ধীর। অর্থাত স্থির মানুষের জীবনে যখন দশ বছর কেটেছে, গতিশীল হওয়ার কারনে তোমার জীবনে কেটেছে হয়তো একবছর। তবে বিষয়টা যেহেতু ঘটে (1-(v/c)^2)^(1/2) হিসেবে তাই বের করে দেখ স্থির মানুষের তুলনায় তোমার বয়স কত কম!

প্রশ্ন: ‘আমি তপু’ গল্পের তপুর কি অবস্থা? ও কেমন আছে? Name: I’m no body.
উত্তর: ভালোই আছে নিশ্চয়ই। অনেকদিন খোঁজ নেইনি।

প্রশ্ন: স্যার, আপনাকে আমার খুব ভাল লাগে। ইসস, কেন যে আমি আগে জন্ম নিলাম না। তাহলে ………………………………. স্যার আপনি সব সময় ভাল থাকেন, ঈশ্বর এর কাছে সেই প্রাথনা করি। ……
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ! ভালোই হয়েছে তুমি আগে জন্ম নাওনি, তাহলে এতোদিনে তোমার চুল পেকে যেতো, দাঁত পড়ে যেতো। আর যে কারনে আগে জন্ম নিতে চাইছ সেটা শুনে আমি হাসব না কাঁদব বুঝতে পারছি না!

প্রশ্ন: স্যার, স্থানের সাথে সময় কিভাবে যুক্ত হলো?
উত্তর: হঠাৎ করে যুক্ত হয়নি। সবসময়েই ছিল, আমরা এখন জানতে পেরেছি।

প্রশ্ন: আসসালামু আলাইকুম স্যার,
স্যার আমি আসলে যে প্রস্তাবটা করবো সেটা ঠিক সরাসরি আপনার সাথে সম্পর্কযুক্ত নয়, এটি সম-সাময়িক বাংলা নাটক নিয়ে আমার একটি আইডিয়া বলতে পারেন.. আইডিয়াটা ঠিক কি ভুল, কার্যকরী হবে কিনা জানিনা তবে আমি আমার এই আইডিয়াটা শেয়ার করতে চাচ্ছিলাম আর কি সবার সাথে আর যেহেতু আপনার গল্প নিয়ে নাটক-সিনেমা বানানো হচ্ছে এবং আপনার পরিবারের অনেক সদস্যই নাটক-সিনেমা নির্মানের সাথে যুক্ত তাই আপনাকে বলতে চাচ্ছি.. জানি আপনি টেলিভিশন দেখেননা তাই দেশীয় নাটকের বর্তমান দূরবস্থা নিয়ে আপনার হয়তো তেমন ধারণা নেই তবে সত্যি বলতে দেশীয় নাটকের অবস্থা এখন করূণ.. প্রেম ছাড়া কিছু নেই.. হাতে-গোণা তিন চারজন পাত্রপাত্রী ঘুরে ফিরে সব চ্যানেলে.. একটা রেস্টুরেন্ট, একটা ফ্ল্যাট আর একটা ইউনিভারসিটি এর করিডোর হলেই নাটক হয়ে যাচ্ছে.. কোন বয়োজ্যেষ্ঠ চরিত্র নেই.. কোনো বাচ্চা নেই.. আমাদের গল্প নেই, গল্পকারেরা সব মরে গেছে এইটা আমি বিশ্বাস করিনা.. হয়তো বাজেট স্বল্পতা, পৃষ্ঠপোষ্কতার অভাব অনেক কিছুই এর কারণ হতে পারে.. চলচ্চিত্র নাটক এইগুলা তো শিল্পেরই মাধ্যম.. দেশীয় চলচ্চিত্র তো ধ্বংস হয়েই গেছে আমার মনে হয় নাটক ধ্বংসের আগেই এইটাকে রুখে দেওয়া উচিত.. একঘেয়ে গল্পের মধ্যে বৈচিত্র্য আনতে তাই আমি মনে করি ঈদের যে সাত-দশদিন নাটক দেখানো হয় এইগুলাকে যদি জোনরাতে ভাগ করে দেখানো হত.. যেমন ঈদের প্রথমদিন রোমান্টিক জোনরা, দ্বিতীয়দিন ডিটেকটিভ/থ্রিলার জোনরা, তৃতীয় দিন এডভেঞ্চার জোনরা, পরের দিন হরর বা সামাজিক গল্প, এরপরের দিন সাই-ফাই ইত্যাদি। যেদিন যে জোনরা সেদিন সারাদিন সেই জোনরারই নাটক দেখানো হবে.. সাথে সাতদিন টানা কোন সিটকম দেখানো যেতে পারে.. অবশ্যই ভাঁড়ামো না, ‘আজ রবিবার’ ধরণের নির্মল হাসির কোনো নাটক.. এতে আমার মনে হয় সব বয়সের কলা-কুশলীরা অভিনয়ের সুযোগও পাবেন আর আমরাও অনেক ভিন্নধর্মী গল্প পাবো.. সব ধরণের রুচির দর্শকরা তাদের চাহিদা অনুযায়ী গল্পের নাটকও পাবেন.. আতিয়া, ঢাকা।
উত্তর: আমি আসলে টেলিভিশনের নাটক বা অন্য কোনো অনুষ্ঠানের সাথেই পরিচিত নই। কিন্তু তুমে যেহেতু তোমার প্রস্তাবটা এখানে দিতে বলেছ তাই (একটু ছোট করে) দিচ্ছি। তবে আমার ধারনা অল্প কিছু বাচ্চা কাচ্চা ছাড়া এটা বিশেষ কেউ দেখে না! তাই সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হলে অন্য কোথাও অন্য কোনোভাবে দিতে হবে।

প্রশ্ন: sir, kamon acchen? ami akhon class 6 e pori. amader biggan boiye 3rd chapter- udbhid o pranir koshio shongothon amar kacche kothin mone hoy,so amar onurodh apni atar opor khub khub shohoj akta boi lekhen.-shyamosree roy,class 6,dhaka.
উত্তর: তুমি ঠিকই বলেছ, তোমার বইয়ের এই চ্যাপ্টারটা অনেক কটমটে ভাষায় লেখা। যে বিষয়টা লিখেছে সেটা খুব সহজ ভাষায় সুন্দর করে লেখা যেতো। কেন যে সহজ করে লিখে না জানি না। শুধু তাই না, পরীক্ষায় নিশ্চয়ই তোমাদেরকে এই সব কিছু মুখস্ত করে এই কটমটে ভাষায় হুবহু লিখতে বাধ্য করে। ইশ! কী কষ্ট। জানা কত আনন্দের আর মুখস্ত করা কী কষ্টের! আহারে!

প্রশ্ন: রাধারানিগল্পে চোখ দিয়ে জল পড়িতে লাগল ।রাধারানির এরুপ অবস্থার কারন কী? এই পরিস্থিতি থেকে সে কীভাবে উদ্ধার পেল?
উত্তর: রাধারাণী বেচারী কাঁদছে, তার জন্য ব্যস্ত না হয়ে কেন কাঁদছে সেই কারনটা জানা নিয়ে এত ব্যস্ত হলে কেন? এটা কি পরীক্ষার প্রশ্ন নাকী? বেচারা বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় তো আর বেঁচে নেই যে তাকে জিজ্ঞেস করব!

প্রশ্ন: স্যার, আপনার সাথে মনে মনে কথা বলতে সমস্যা হয় না! কিন্তু সামনাসামনি কথা বলা যায় না! আপনাকে দেখলে মনে হয় খুব ব্যস্ত আর আশপাশে থাকা বড় মানুষরা আপনার পাশে ঘেষতে দেয় না! কেন? কোনোদিন আপনার সাথে গল্প করা যাবে না? আর একটা অনুরোধ! স্যার কিশোর আলোতে আরেকটা ধারাবাহিক উপন্যাস লিখবেন প্লিজ! গোলাম মমীত দীপ নাখালপাড়া তেজঁগাও সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাই স্কুল।
উত্তর: এর পরেরবার যখন দেখা হবে, বড় মানুষদের ঠেলে চলে আসবে, বলবে আমার সাথে তোমার কথা আছে। কাছে আসার পর কিন্তু কথা বলতে হবে। আমার বড় সমস্যা হচ্ছে যে বাচ্চারা হই চই করে আমার সাথে দেখা করে, তারপর চুপচাপ বসে থাকে আর আমার অনেক বুদ্ধি করে কথা চালিয়ে যেতে হয়! কিশোর আলোতে ধারাবাহিক উপন্যাস মনে হয় লেখা হবে না। অনেক বাচ্চাদের ম্যাগাজিন রয়েছে, সবাই আমাকে লিখতে বলে। একজনকে না দিয়ে শুধু অন্যজনকে লেখা দিলে তারা মনে দুঃখ পায়!

প্রশ্ন: স্যার, আলো বক্রাকার পথে চলে না কেন ?
উত্তর: যে পথে যেতে আলোর সবচেয়ে কম সময় লাগবে আলো সেদিক দিয়ে যায়। তাই ভরের কারনে space যখন বাঁকা হয়ে যায় আলো সেখানে সবচেয়ে কম সময়ে যাওয়ার জন্য বাঁকা হয়েই চলে যায়।

প্রশ্ন: Muhammad Ashraful Islam It’s not really a question and I’m also sorry for typing in English. (I don’t have bangla typing tool for linux). I pay hundreds of thank to you for teaching me to searching on the Internet. Now I search anything tham comes into my mind in the google and each time I get appropriate result. Thank you very much
উত্তর: বাহ! বাহ! বাহ! দেখেছ আমি তোমাকে কী চমৎকার একটা ব্যাপার শিখিয়ে দিলাম। যারা মনে করে ইন্টারনেটটা তৈরী হয়েছে ফেসবুক করার জন্য তাদের সবার জানা উচিত, ইন্টারনেট মোটেই সে জন্য তৈরি হয়নি। ইন্টারনেটটা তৈরী হয়েছে নানা কিছু জানার জন্য। অনেক কিছুই ভুল্ভাল আছে, সেজন্য নিজের বুদ্ধি খরচ করে বুঝে নিতে হয় কোনটা ঠিক কোনটা ভুল। তারপরেও এটা হচ্ছে বিশাল তথ্যের ভাণ্ডার। তোমরা আর যারা যারা এই চিঠিটা পড়ছ, তারাও শিখে নাও!

প্রশ্ন: Apnar tuntuni o chotachhur kotoguli boi ache
উত্তর: তোমাকেই দায়িত্ব দেই এটা খুঁজে বের করার। এই সাইটেই আমার পুরো বইয়ের তালিকা য়াছে। দেখি সেখান থেকে বের করতে পার কি না।

প্রশ্ন: proshno kivabe keyboard a bangla likhbo rida Dhaka
উত্তর: মনে হয় সবচেয়ে সোজা অভ্র ব্যবহার করা। যারা এগুলো জানে তাদের কাউকে জিজ্ঞেস কর, বলে দেবে।

প্রশ্ন: ব্ল্যাক হোলের উপর নাকি বই লেখেছেন? সেটা সম্পর্কে বিস্তারিত বলুন। মাহমুদ হাসান অভি
উত্তর: বইটা এখনো বের হয়নি। এটার একটা সাদা কালো কপি, দিয়ে দিচ্ছি। দেখতে পার চাইলে।

প্রশ্ন: আবার কবে আসবেন ময়মনসিংহ। কবে দেখতে পারব কাছ থেকে? সাইরা।
উত্তর: আসব নিশ্চয়ই, এখনো তারিখ ঠিক হয়নি।

প্রশ্ন: স্যার , আমি অবন্তি। আমি আপনারএকটা এটোগ্রাফ চাইই। দিবেন স্যার?? আমার নাম লিখে একটা কিছু লিখে একটা এটোগ্রাফ। প্লিজ প্লিজ ।। দশম শ্রেনি। ময়মনসিংহ ।
উত্তর: নাও, দিলাম।

প্রশ্ন: স্যার ,আপনি এখন কোথায় থাকেন?? সিলেট নাকি ঢাকা? সানজানা,ময়মনসিংহ
উত্তর: এখনো সিলেটা আছি। ঢাকা থাকতে ভয় লাগে। এতো ভীড়, ট্রাফিক জ্যাম, বিষাক্ত বাতাস আর মিটিং। নিরিবিলি জায়গা খুঁজে বেড়াচ্ছি, জানো নাকি কোথায় পাওয়া যাবে?

প্রশ্ন: Sir amader school e sara bochor sudhu exam nai.Kintu exam er syllabus besir bhag tai amader basa te complete korte hoy.Ar jokhon exam er khata dehai tokhon ekta bisoye amar khub mon kharap hoy.Bisoy ta holo teacher ra khata pore number dai na.Jake jemon khusi number dai.Bhul liklao number dai.Sir apni bolun amra jara likhe number pai tader ki e bisoye mon kharap hoa ta sabhabik na?Ar bolun ekhon amar ki korbo?-Name:Tori Class:6 Address:Dinajpu.
উত্তর: আমি এই অভিযোগগুলো আগেও আরো অনেকের কাছ থেকে অনেকবার শুনেছি। আমি খুবই দুঃখিত যে এই ছোট বেলা থেকে তোমাদের এগুলো দেখতে হচ্ছে। আমার মনে হয় তোমাদের জন্য সবচেয়ে ভালো সমাধান হচ্ছে, এগুলো নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে, মন খারাপ না করে নিজের মত করে লেখা পড়া করো। মুখস্ত না করে শিখো। এখন পরীক্ষায় হয়তো খুব বেশি নম্বর আসবে না, কিন্তু তাতে কী আসে যায়। যখন বড় হবে তখন এই ট্রেনিংটা আনেক কাজে লাগবে।

প্রশ্ন: স্যার উওরটা পাবো কখন
উত্তর: তোমার এই প্রশ্নের উত্তর দেয়া বলতে গেলে অসম্ভব। কেন, বল দেখি?

প্রশ্ন: আমি এবার এইচএসসি পরিক্ষা দিয়েছি, রসায়ন ১ম পত্রে ভুল করে ৫ সেট প্রশ্নের জায়গায় ৬ সেট প্রশ্ন লিখে ফেলেছি এখন কি সমস্যা হতে পারে জানান প্লিজ মো: রাজ মোল্যা গ্রাম : মাগুরা
উত্তর: এইচ এস সি পরিক্ষার রেজাল্ট তো দিয়ে দিয়েছে। যেটা হবার হয়ে গেছে এত দিনে। ছেলেমেয়েরা পাঁচটা প্রশ্নের উত্তর লিখতেই হিমশিম খেয়ে যায়। তুমি সেই সময়ের ভেতর ছয়টা লিখে ফেলেছিলে? বাহ!

প্রশ্ন: স্যার আপনি মার্ভেল ফ্যান না ডিসি ফ্যান ? মাহমুদ হাসান অভি , রূপনগর আবাসিল এলাকা মিরপুর ঢাকা
উত্তর: আমাকে কোনো একটার ফ্যান বলে নিজেকে ঘোষণা দিতেই হবে?

প্রশ্ন: স্যার , আমি ২০২০ সালে এস এস সি পরীক্ষা দিব।তখন কি সিজিপিএ ৪ থাকবে নাকি জিপিএ ৫ ই থাকবে?? সামান্তা,দশম শ্রেনি,ময়মনসিংহ ।।
উত্তর: আমি তো আনি না। সিজিপিএ 4 হলে মনে হয় ভালো হবে, তাহলে সব ছাত্র ছাত্রীদের জন্য এক সিস্টেম হবে।

প্রশ্ন: স্যার,সাসটে 22 বছর বইটাই কিছু ভুল আছে ।যেমন হুমায়ুন আহমেদ এর মারা যাওয়ার তারিখ ভুল।২৯ জুলাই দেয়া। আর একটা ভুল আছে ফাহমিদার মারা যাওয়ার ব্যাপারটা , উনার বিয়ে হয় ২০০৪ এ মারা যায় 2005 এর 5 আগস্ট কিন্তু বলা হয়েছে যে উনি মারা যায় ৫ সপ্তাহ পরে কিন্ত কিভাবে? এদুটো ভুল ছাড়া বইটি অসাধারণ । ম্যাম কে ধন্যবাদ দিবেন বইটির জন্য ।।আর ম্যাম কি আর বই লিখবেন না??? অনেক অনেক ভালোবাসা আপনাদের জন্য ।। অবন্তি,১০ শ্রেনি,ময়মনসি্ংহ।
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ। আমি পাবলিশারদের বলব ভুলগুলো ঠিক করে দিতে।

প্রশ্ন: sir,notun kichu chobi chaii…..
উত্তর: দিলাম।

প্রশ্ন: স্যার, সবসময় সবাই এত চায় কেন?
উত্তর: ক্ষতি কি চাইলে? এই যে তুমিও এই প্রশ্নটার উত্তর জানতে চাইলে! (ভালো কিছু চাইলে তো ভালোই!)

প্রশ্ন: স্যার, যাদের আমার ভালো লাগে না, যাদের মনে হয় মানুষটা সুবিধার না তাদের আমি সবসময় এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, আমার আমার আত্নীয় স্বজনদের মাঝে অনেক রয়েছে। তাদের সাথে তাই সেরকম চলাফেরা করি না। বাসায়-টাসায় যাই না। আম্মু বলে, আমার এই আচরণের কারণে তারা নাকি অনেক সমালোচনা করে। কিন্তু স্যার, ওদের মতো কুটনী মানুষদের আমার ভালো লাগে না। এখন আমার কী করা উচিত?
উত্তর: ইন্টারেস্টিং! আমিও এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বেড়াচ্ছি। তুমি যদি আমার আগে এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পেয়ে যাও, আমাকে জানিও।

প্রশ্ন: স্যার, আজকে এই সাইটটাতে ঘুরতে ঘুরতে একটা ব্যাপার দেখে খুবই হাসি পেল। একদম শুরুর দিকে করা প্রশ্নগুলো দেখছিলাম। দেখলাম, প্রশ্নকর্তারা বেশির ভাগই বড় বড় মানুষ। কেউ অভিভাবক, কেউ বড় ইন্জিনিয়ার বা ভার্সিটির ছেলেমেয়ে। বর্তমানে সেরকম প্রশ্নকর্তার সংখ্যা দেখলাম কম। ভাবছিলাম, কেন কম? মনে হলো, এই সাইটের ভাবসাব দেখে ছেলেমেয়েদের সাথে তাল মেলাতে গিয়ে ওনারা পা হড়কে ভড়কে গিয়েছেন! হিহিহি… খুব হাসি পাচ্ছে, স্যার ! -পূর্ণতা
উত্তর: হাসো। প্রাণ ভরে হাসো। (এটাকেই নিশ্চয়ই বলে কারো পৌষ মাস কারো সর্বনাশ!)

প্রশ্ন: How to fly in another sky? -koorchi,dhaka.
উত্তর: প্রশ্নটা বুঝিনি। another sky বলতে কি বুঝিয়েছ?

প্রশ্ন: স্যার,সামনে আমার জে.এস.সি পরিক্ষা খুব টেনশন হচ্ছে। এবার কেমন জানি পড়তেও ইচ্ছা করছে।তাও 4 না পেলে যে কি হবে আল্লাহই জানেন।আমার বাসাই কেও কিছু বলবে না কিন্তু কতজন যেমন পাড়াপতিবেশি, আত্নিয়রা, স্যাররা, বন্ধু বান্ধুবিরা কত না কথা বলবে এই ভেবে খুব ভয় লাগছে।আমি ভাবি আমি মাএ ৮ম শ্রেনিতে পড়ি তাই এতো চাপ।যখন ১০ম ১২শ এ পড়বো তখন কি হবে।আমি টিভি দেখিনি গত ২মাস এতে আমার অনেক সময় বাচে।আর আমি গাইড পড়িনা যার ফলে আমার আরও ভালো হয় যার ফলে একটু আশা পায় ভালো ফলাফলের।স্যার আমার জন্য দোয়া করবেন । স্যার একটা গোপন কথা …….
উত্তর: তুমি যেহেতু টিভি দেখ না, গাইড বই পড় না অবশ্যি তোমার ফল ভালো হবে। আত্মীয় স্বজন বন্ধু বান্ধব কী বলবে সেটা নিয়ে মাথা ঘামিও না। গোপন কথা শুনলাম, দুশ্চিন্তা করো না, শুধু খারাপ খারাপ কাজ করলেই মানুষ খারাপ হয়।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি কি জানেন আপনার বইয়ের দাম স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক বেশি রাখা হয়?
আপনার লেখার একান্ত একজন ভক্ত হিসেবে প্রতি বছরেই বইমেলায় ইচ্ছে করে আপনার সব বই কিনে ফেলি। তবে অন্যান্য সকল লেখকের বইগুলির তুলনায় আপনার বইয়ের দাম অনেক অনেক বেশি রাখা হয়! এর কারণটা কি স্যার?
কেবলমাত্র বইয়ের পৃষ্ঠাসংখ্যা দ্বারাই বইয়ের মূল্য যাচাই করা উচিত নয়, তবুও পৃষ্ঠার হিসেবেই দেখানোর চেস্টা করছি। আপনার ২০১৯ বইমেলায় প্রকাশিত কিছু বই এবং পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ
হটলাইন: ৭২ পেজ, মুদ্রিত মূল্য ২০০টাকা।
অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবীঃ ১২০ পেজ (পকেটসাইজ বুক), মুদ্রিত মূল্য ২৫০টাকা।
নিয়ান: ১২৬ পৃষ্ঠা, মুদ্রিত মূল্য ২৭০টাকা।
এক ডজন একজনঃ ১৪৪পৃষ্ঠা, মুদ্রিত মূল্য ২৮০টাকা।
বইয়ে মুদ্রিত মূল্যের সাথে বইয়ের পৃষ্ঠার অনুপাত ২ এরও বেশি! সমসাময়িক প্রকাশিত অন্যান্য লেখকের ক্ষেত্রে যেই অনুপাত প্রায় ১.৫ এর কাছাকাছি থাকে। আপনার বইয়ের ক্ষেত্রে ফন্টের আকার, লাইন গ্যাপ – ইত্যাদিও অনেক বেশি থাকে! (বইয়ের পৃষ্ঠা বৃদ্ধির জন্য?)
হটলাইন গল্পটি চমৎকার, তবে বইটি হাতে নিয়ে আমি প্রথমেই আশাহত হয়েছিলাম। বইয়ের ফন্ট এবং লাইন গ্যাপ দৃস্টিকটুভাবে অনেক বেশি বৃদ্ধি করে কেবলমাত্র বইয়ের পৃষ্ঠাসংখ্যাই বৃদ্ধির চেস্টা করা হয়েছে। যেখানে অনায়াসেই বইটি ৪০-৫০ পেজ করা যেত। সেখানে টেনেটুনে সর্বোচ্চ ৭২পেজ পর্যন্তই নেয়া গেছে!
আমি আপনার লেখার একজন ভক্ত। একেবারে ছোটবেলা থেকেই! হুমায়ুন আহমেদ স্যার এবং আপনার বই পড়েই আমার বই পড়ার অভ্যাসের শুরু৷ মনে পড়ে, ক্লাস এইটের রমজান মাসের ছুটিতেই আপনার প্রায় ৭০/৮০টি বই পড়ে ফেলেছিলাম! প্রতিদিন প্রায় ৩টা করে!
বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় লেখকদের মধ্যে আপনি অন্যতম। কোনো প্রকাশনীর আপনার নতুন বই বইমেলায় পাবলিশ করার অর্থই হলো, বইমেলায় সেই প্রকাশনীর সামনে লম্বা লাইন তৈরি হয়ে যাওয়া! যেহেতু আপনার বইয়ের বিক্রি প্রচুর, তাই প্রতি বইয়ে স্বল্প পরিমাণ লাভ করলেও কিন্তু মোট লাভের পরিমান অনেক বেড়ে যায়।
আপনি এসব গণিতের হিসাব অনেক বেশি ভালো বুঝেন। তবুও বলছি।
ধরুন, নতুন কোনো লেখকের বই বইমেলায় ১০০কপি বিক্রি হলো। সেখানে প্রতি বইয়ে ৫০টাকা (!) লাভ করলেও কিন্তু কেবলমাত্র ৫০০০টাকা লাভ হয়।
তবে আপনি বা অন্যান্য জনপ্রিয় লেখকদের বই যেগুলো সহজেই ১০হাজার কপি বিক্রি হয়ে যায়। সেখানে প্রতি বইয়ে ২০টাকা লাভ করলেও কিন্তু ২লক্ষ টাকা লাভ হয়ে যায়!!
তাই জনপ্রিয় লেখকদের বইয়ের দাম কম রেখে উল্টো বেশি লাভ করা যায়! সেখানে আমাদের দেশে বিপরীত অবস্থা কেনো? আপনার মত জনপ্রিয় লেখকদের বইয়ের মূল্য সাধারণ লেখকদের বইয়ের মূল্য থেকে অনেক অনেক বেশি!
আপনি স্যার দায়িত্ব এড়িয়ে প্রসঙ্গটি নানাভাবে এড়িয়ে যেতে পারেন। প্রথমত বলতে পারেন, বইয়ের মূল্য আসলে প্রকাশক নির্ধারণ করেন। লেখক নন। লেখকের সেখানে কোনো ভূমিকা নেই।
কিন্তু, আপনার ক্ষেত্রে তো সব প্রকাশনী আপনার বই পাবলিশ করার জন্য একপায়ে খাড়া থাকবে স্যার। আপনি প্রথমে তাদের সাথে আলোচনা করে, বইয়ের মূল্য নিয়ে শর্ত রেখে দিলে তারা “না” করার সাহস কি পাবে স্যার?
দ্বিতীয়ত বলতে পারেন, বই প্রকাশনায় অনেকরকম খরচের কথা। কাগজের মূল্য, বাইন্ডিং, কর্মচারীদের বেতন, আবার বইমেলার সময় স্টলের ভাড়া ইত্যাদি।
তবে, বাকি সব বইয়ের ক্ষেত্রেও তো এসব ব্যয় থেকেই যায়, তাই না স্যার? সেসব বই কিভাবে প্রকাশিত হচ্ছে?
এছাড়াও “আমার বই’ই পড়তে হবে এমন কোনো নিয়ম নেই”, ” আমার বইয়ের পিডিএফ পাওয়া যায়, সেটা পড়ে নিও” – ইত্যাদি নানাভাবে আপনি প্রসঙ্গ চাইলেই এড়িয়ে যেতে পারেন৷ তবে আপনার একজন পাঠক, একজন ভক্ত হিসেবে আমি চাই না আপনি এড়িয়ে যান। আপনার সৎ উত্তর কামনা করছি স্যার৷ পাঠক আপনার বই আপনার লেখার জন্য পড়ে স্যার, শ্রেষ্ঠ পেজ কোয়ালিটি বা রঙিন বইয়ের জন্য নয়! আপনার বইয়ের বেশিরভাগ পাঠকই শিশু বা কিশোর-কিশোরী। তারা কিন্তু বইমেলায় বই কেনার জন্য বাবা-মা এর কাছ থেকে খুব বেশি টাকা পায় না স্যার। তাদের কথাও একটু মাথায় রাখবেন। ২০২০ বইমেলা থেকে এরকম আর দেখতে চাই না স্যার!
দুঃখিত এত বড় করে লেখার জন্য। তবে পুরো লেখাটাই ওয়েবসাইটে পোস্ট করবেন স্যার। আর অবশ্যই উত্তর দিবেন প্লিজ!!
মিতুল রহমান অন্তর। ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ। দ্বাদশ শ্রেণী।
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ। ফ্যান্টাস্টিক! এরকম একটা গবেষণামূলক লেখা আমার দরকার ছিল। তোমার বিশাল লেখাটা আমি আমার সব পাবলিশারদের কাছে পাঠাব, তারপর বলব, এখন থেকে আমার বইয়ের দাম অন্য যে কোনো লেখকের বইয়ের সমান হতে হবে। ঠিক আছে?

প্রশ্ন: sir, ১ বছর হল আমার প্রশ্নের উত্তর নেই !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!! আরকি পাবনা?????????????????????
উত্তর: তোমার উচিৎ ছিল আবার প্রশ্নটা করে ফেলা। তুমি কি সত্যিই বিশ্বাস কর, একবছর আগের একটা প্রশ্ন আমি খুঁজে বের করে ফেলতে পারব?

প্রশ্ন: স্যার,আমি মাত্র ক্লাস টেনে পড়ি।ইসসস আমি কেন আর ৫/৬টা বছর আগে এইচএসসি পরীক্ষা দেয় নাই???তাহলে আমি যে ভাবেই হোক সাস্টে পড়তাম।আর আপনার ক্লাস করতাম,আপনার অনেক কাছাকাছি থাকতাম।অথবা আপনার বয়স আর ৫/৬টা বছর কম থাকত।।তাহলেও হতো।। আফসোস। কিন্তু আমার একটা সান্ত্বনা আছে আমাদের পাঠ্যবই আপনি লিখেছেন। কি আর করার। ভালো থাকবেন স্যার।। অনেক অনেক ভালোবাসা।। অবন্তি,দশম শ্রেনি,ময়মনসিংহ ।
উত্তর: সাস্টে পড়ে আমার ক্লাশ করে তোমার কী অবস্থা হতো কে জানে! তুমি কী জান, ক্লাশে আমি খুবই কড়া? আমার ভয়ে ছাত্র ছাত্রীরা থর থর করে কাঁপে!

প্রশ্ন: স্যার, আমি অর্ণব। ময়মনসিংহে থাকি। আমি গত দুবছর যাবত সংগঠন করি। যার প্রথম দেড় বছর(ক্লাস নাইনের মাঝ থেকে ক্লাস টেনের শেষ পর্যন্ত) কাটে আমার নিজের গড়া একটি সংগঠনের পেছনে, যেটি ছিল বইভিত্তিক সংগঠন। …… আর স্যার আরেকটা বিষয় হলো আমি এখন সদ্য একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছি। আমি বিজ্ঞান বিভাগের একজন ছাত্র। আর এই সময়টাও আমার পড়াশোনার জন্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমার পরিবার খুব একটা চাচ্ছে না আমি কোন সংগঠনের সাথে যুক্ত থাকি। আমার কি করা উচিত হবে স্যার? আমি সত্যিই ভীষণ দোটানায় পরে গেছি!
উত্তর: এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসলে নিজের নিতে হয়। লেখা পড়ার বাইরে অন্য কাজ করতে হয় সেটা আমি মানি এবং সবাইকে সেটা করতে বলি, কিন্তু তার জন্যে যদি লেখা পড়ার ক্ষতি হয়, অভিভাবকরা তখন খুব হতাশ হয়ে যান। কাজেই লেখা পড়ার ক্ষতি না করে তুমি যা ইচ্ছা তা-ই করতে পার, কেউ তোমাকে কিছু বলবে না।

প্রশ্ন: স্যার, ১. আপনার কি নিয়মের ভেতর থাকতে ভালো লাগে? ২.ইন্টারমিডিয়েটের ফিজিক্স কেমিস্ট্রি বায়োলজি এর মোট ছয়টা বই কি একমাসে রাতদিন পড়ে শেষ করা সম্ভব? -পৃথিবীর একটা শক্তিশালী মেয়ে।
উত্তর: ১. আসলে অনেক ব্যাপারে নিয়মের ভেতর থাকতেই হয়, না হলে সবার সমস্যা হয়ে যায়। যেমন আমি ইউনিভার্সিটিতে একেবার নিয়ম করে ভোর নয়টার ভেতর গেছি, সারাদিন কাজ করে সন্ধ্যায় ফিরে এসেছি। ক্লাশ থাকুক আর নাই থাকুক। কোনো বাধ্যবাধকতা ছিল না। কিন্তু যদি ইউনিভার্সিটি নিয়ম করে দিতো, সকাল নয়টায় আসতেই হবে, তাহলে নিশ্চয়ই খুব বিরক্ত হতাম। ২. একমাসে রাতদিন পড়ে ইন্টারমিডিয়েটের ফিজিক্স কেমিস্ট্রি বায়োলজি এর মোট ছয়টা বই ঠিকভাবে পড়ে শেষ করা কঠিন, কিন্তু তুমি যেহেতু পৃথিবীর একটা শক্তিশালী মেয়ে, তোমার কথা আলাদা! করে ফেলতেও পার!

প্রশ্ন: স্যার, আপনি ৯০ ডিগ্রীর পূর্ব দ্রাঘিমায় ছেদবিনদুতে দাঁড়িয়ে যে ছবিটা তুলেছিলেন সেই ছবিটা দেখতে চাই।। স্যার,মান মনদির টা কি সত্যিই হবে??৷ স্যার,জানেন আমার চোখে একদম বেসে উঠেছে সবুজ দেশটির মাঝখানে দুটি লাল রেখা।। সাবিহা, দশম শ্রেণী,ময়মনসিংহ।।
উত্তর: ছবিটা খুঁজে বের করতে হবে, অনেকদিন আগের ছবি তো।

প্রশ্ন: আমি আপনাকে সুপারহিরো কল্পনা করে একটি ছবি একেছি। এখন নাম কি দেব? জাফরম্যান? অভি


উত্তর: সুপারহিরোরা সবসময় প্যান্টের উপর আন্ডারওয়ার পরে। আমার ছবিতে তুমি আমাকে নিয়ে সেরকম কিছু করে ফেল নাই তো?

প্রশ্ন: ফিরে এসেছি, আবার ফিরে এসেছি এসব বাদে অন্য কিছু পোস্ট দিবেন কবে ?
উত্তর: অন্য রকম পোস্ট মানে কী? প্রশ্নের উত্তর যথেষ্ট নয়? গল্প লিখা হলে দেব, এখনো সেরকম কিছু নেই। ব্ল্যাক হোলের উপর একটা বই লিখেছি, সেটা দেখতে চাও?

প্রশ্ন: স্যার, আগের প্রশ্ন ইংরেজিতে লেখার জন্য দুঃখিত। আসলে,আমাদের মোবাইলে সব বাংলা শব্দের কীপেড নেই। এখন কম্পিউটার থেকে লিখছি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে- পদার্থবিজ্ঞানের কোন অঙ্কতে সাধারণ মোডে আর কোন আর কোন অঙ্কতে সাইনটিফিক মোডে অঙ্ক করতে হয় ? দয়া করে উত্তর দিন। আর কোন জিনিসটা আপনার সব থেকে ভালোলাগে বলেন তো? নমিতা দে;নবম শ্রেণি; সরকারি এস.সি. বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সুনামগঞ্জ।
উত্তর: সাইন্টিফিক মোড কোনটা ভুলে গেছি। যেটাতে 10 এর পাওয়ার দিয়ে লিখা হয়? যদি সেটাই হয়ে থাকে তাহলে খুব বড় আর ছোট সংখ্যা লেখার সময় সাইন্টিফিক মোডে লিখবে। যেমন 0.00000324 না লিখে 3.24 x 10^-6 লেখা বুদ্ধিমানের কাজ। (সবচেয়ে ভালো লাগে ঘুমাতে)

প্রশ্ন: স্যার, গাছের কী অনুভূতি আছে? -অমিত চৌধুরী
উত্তর: “Do trees have feelings?” লিখে ইন্টারনেটে একটা সার্চ দাও। মনে হয় কোনো একটা উত্তর পেয়ে যাবে।

প্রশ্ন: Sir apni ekhon jai bhave website a asen aibhbe aslei hobe…..:D donnobad
উত্তর: গুড। প্রশ্নের সংখ্যা যদি বেড়ে না যায় তাহলে তো এভাবে আসাই যায়।

প্রশ্ন: Sir, We all know that light is the fastest thing in our universe. But my question is that when the “Bigbang” happened, what was the speed of that expansion? Doesn’t it had more speed than light?
Gourab Saha, SWE-17 ,SUST.
উত্তর: আমি তোমাদের ইন্টারনেট থেকে সহজ প্রশ্নের উত্তর বের করা শিখাতে চাই। তুমি গুগলে Is the universe expanding faster than the speed of light লিখে একটা সার্চ দাও।

প্রশ্ন: স্যার আমার এক শিক্ষক বলে পাকিস্থান আমাদের ওপর ঠিকই অত্যাচার কিন্ত যে ভারত আমাদের যুদ্ধে সাহায্য করলো তারা তাদের বিভিন্ন স্বার্থের জন্য করেছিল। যেমন:তারা চেয়েছিল আমরা ছোট ভাই আর পাকিস্থানরা বড় এই দুই ভাই এক সাথে থাকলে শক্তিশালি কীন্ত আলাদা করলে দুই ভাইকে তড় মারা যাবে তাই তারা সাহায্য করেছিল।এটা কি সঠিক? তিনি আরও বলেন যে এসব কথা তোমরা বড় হলে বুজতে পারবা তবে এইসব সমাজ বই এ না অন্য রাজনৌতিকহীন বইয়ে পাবা এটা যেহেতু রাজনৌতিক কথা তাই আমি আপনার কোন বিপদ চাইনা যদি উত্তর টা হ্যাঁ হয় তবে উত্তর দিতে হবে না আমি বুজে যাব আর উত্তরা টা যদি না হয় তবে অবশ্যই উত্তরটা দিয়েন। নাম দিতে ভয় করছে তবুও দিলামহ স্বপনিল ,মেহেরপুর ,ক্লাস 8
উত্তর: তোমার শিক্ষক মনে হয় একটু রাজাকার ধরনের। পাকিস্তান কবে থেকে আমাদের বড় ভাই হল? ১৯৭১ সালে পশ্চিম পাকিস্তানের জনসংখ্যা পূর্ব পাকিস্তান থেকে কম ছিল, যদি ভাই (ছিঃ!) বলতেই হয় তাকে ছোট ভাই বলে নাই কেন? ভারত এক কোটি শরনার্থীকে আশ্রয় দিয়েছিল, শুধু এটা করতে গিয়েই তাদের অর্থনীতির বারোটা বেজে গিয়েছিল, নিজেদের টিকে থাকার জন্যেই তাদের বাংলাদেশকে সাহায্য করার দরকার ছিল। তোমার রাজাকার টাইপের স্যারকে বল যে ১৯৭১ সালে শেষ যুদ্ধের আগে মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানীদের অবস্থা এত খারাপ করে দিয়েছিল যে তারা বর্ডার আউটপোস্টের বাইরেই বের হওয়ার সাহসই পেত না। তারা অপেক্ষা করছিল দক্ষিনে তাদের আমেরিকান এবং উত্তর থেকে তাদের চাইনিজ রক্ষাকর্তাদের জন্য। শেষ পর্যন্ত তাদের সেই রক্ষাকর্তারা আর আসেনি! তা না হলে কেউ শুনেছে মাত্র তেরোদিনে এরকম একটা যুদ্ধ শেষ হয়? তারা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সারেন্ডার করে নিকেদের জান বাঁচিয়েছে। আর তোমার কাছে আমার প্রশ্ন, কবে থেকে আমাদের মুক্তিযুদ্ধ একটা রাজনীতির বিষয় হল যে সেটা নিয়ে কথাই বলা যাবে না? এই সাইটেই আমি আমার “মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস” বই দিয়ে রেখেছি, তোমার রাজাকার টাইপের স্যার সেই বইটা পড়বে না জানি, অন্তত তুমি নিজে পড়ো, যেন এইসব বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তি না থাকে।

প্রশ্ন: আচ্ছা মহাবিশ্বে যদি উপর নিচে কিছু নাই থাকে তাহলে আমরা নক্ষত্র গুলোকে সোজাসুজি না দেখে আমাদের উপরে দেখতে পায় কেন ?
উত্তর: এখানে উপর কোনটা নিচ কোনটা? অস্ট্রেলিয়ায় যারা থাকে তাঁদের জিজ্ঞেস করে দেখো তারা কি পা উপরে এবং মাথা নিচে দিয়ে থাকে?

প্রশ্ন: স্যার আপনি সবার সব প্রশ্নের উত্তর দিবেন।যত ফালতুই হোক কারোটাই বাদ দিবেন না।বাদ দিলে আপনাকে কিডন্যাপ করবো। সাকিব আল মাহমুদ দশম শ্রেণি ফুলপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ফুলপুর,ময়মনসিংহ।
উত্তর: ঠিক আছে। (কিন্তু ফালতু প্রশ্ন না করলে কেমন হয়?)

প্রশ্ন: Sir, apni amadar privet porta na korachan sata amadar valor jonni sata amra jani. Ami akjon biggan group ar student. Ami apnar kotha sona a bochor kono sir ar kacha privet porini ami mona kora chilam ja amadar school a porano hoba . Kinto amadar school jalata prothom hoar jonno school o collage ar sob porikha amadar school hoy ar ar jonno amadar school bashir bhag somoy bondo thaka . Ar school kola thaklao so class hoy na karon amadar teachar kom. Ar moddy January ta to pora mash kaladolay chola jay ar tar pori bondo. Jun porjonto borojor ak ki dui mash class hoy tao sobti hoy na. Ar kichu class to amra onakai boji na jamon physics, camistry, biology. Ar amadar schoola pora boi ai bochorar modda shes korar syllabus diyacha. Tai schoola class na hoyar karona sob taratari shes kora dai amra kicho bujina jamon physics class a amadar kono onkar practics kora hoy na shoduo path pora hoy tao syallabus sheh hoy na. Janan ai bochor ami pora schoolar upor nirvor kora chilam. Ar akon syllabus shes hoyni..
উত্তর: আমাদের দেশে পড়াশোনা নিয়ে অনেক রকম ঝামেলা। আমরা যখন পড়াশোনা করেছি তখন ঝামেলা আরও বেশি ছিল। কাজেই আপাতত এই সব ঝামেলা মেনে নিয়েই পড়াশোনা করে যেতে হবে। আমি কাউকেই কোনো কিছু করার জন্য জোর করি না। কারো যদি নিজের আত্মবিশ্বাস থাকে, আর প্রাইভেট না পড়ে লেখাপড়া করতে চায় তার জন্য অভিনন্দন। কেউ যদি মনে করে প্রাইভেট না পড়লে সে পারবে না, সে সেভাবেই পড়ুক, কেউ তো বাধা দিচ্ছে না।

প্রশ্ন: Sir ami NOMETA, oi akto agaja schoola kotha bolla chilam. Amar apnaka bola sher hoyni kinto keypad ar word ar poriman nirdisto tai sheh hoy gacha. Achha akon boli amadar to syllabus sheh hoyni kinto porikha akon cholcha. Amadar porikha jodi jarap hoy tahola ma baba ka dakha. Amadar ma babaka na deka jodi amadar jiggesh korto amar kano porikhay karap korlam thahola amar mona hoy uttor dita partam. Ar sir ami kokhono porkhay kharap korg ni ai bochor jodi ami porikhay kharap kori thahola amar ma ka schoola jata hoba . Ar ata jodi hoy ami kon mukh niya basay bolbo bolan. Ar janan ami khono sir ar khacha privet porina shona amar bandobira ja obak hoy. Sir akon apni bola ja ami jodi schoola na porta pari physics na buji tahola bashay aka kototuk korbo. Aq physics to sob babohar ami nija nija buji na.
উত্তর: তোমাকে প্রশ্ন করলে তুমি যে সঠিক উত্তরটা দিতে পারতে সেই সঠিক উত্তরটা তোমার বাবা মাকে কেন জানিয়ে রাখো না, যেন তোমার বাবা মা তোমার পক্ষে তোমাদের শিক্ষকদের একই উত্তর দিতে পারেন? (ইংরেজি অক্ষরে বাংলা পড়তে আমার খুব ঝামেলা হয়। তার চাইতে বড় কথা বাংলা অক্ষরে বাংলা লেখা এখন মোটেও কঠিন নয়। শুধু তাই নয় কেউ যখন ইংরেজি অক্ষরে বাংলা লিখে আমার মনে হয় এই মানুষটা আসলে বেশি সিরিয়াস না।)

প্রশ্ন: পড়ালেখায় মনোযোগ বাড়ানোর জন্য আপনার কথামত ফেসবুক ছেড়ে দিয়েছিলাম, তারপরও লেখাপড়ায় মনোযোগ বাড়েনি , এখন কি করব?
উত্তর: এখন মনোযোগ দাও। এখন তো লেখাপড়া করার জন্য সময় অনেক বেশি, ঠিক কিনা?

প্রশ্ন: Sir apner Style Einstein er moto keno? Apni take follow koren? Sayed
উত্তর: আমার কোন স্টাইলটা আইনস্টাইনের মত? গোঁফ আর চুল পেকে গেলে আমি কি করব?

প্রশ্ন: স্যার, আমার একটি ব্যাপার আপনাকে বলতে চাই| আমার ব্রেইন সবসময়ই কিছু না কিছু চিন্তা করতে থাকে| সুচিন্তা দুশ্চিন্তা যাই হোক না কেন আমি চিন্তা শুরু করলে আর থামাতে পারি না| এক পযায়ে আমি ভয় পেতে থাকি হয়তো এটি কখনই থামবে না| রাতের বেলা ঘুমালেও সবসময় সজাগ থাকি| আমি এখন কী করব স্যার?_ পূণতা জামালপুর |
উত্তর: এটি একটা সমস্যা হতেই পারে। সম্ভবত তুমি এমন একটা বয়সের ভেতর দিয়ে যাচ্ছ যেখানে এটা হয়ে থাকে। তোমাদের বয়সে আমারও মাঝে মাঝে এরকম হতো। ঘুমানোর আগে নিজেকে একটু শান্ত করে নিতে পারলে ভালো, প্রতি রাতে ডাইরি লিখে দেখতে পারো। যতদূর জানি, ঘুমাতে না পারার থেকে ঘুমাতে না পারার জন্য দুশ্চিন্তা করাটা বড় ঝামেলা।

প্রশ্ন: Sir I Love You!!
উত্তর: আমিও তোমাকে ভালোবাসি।

প্রশ্ন: স্যার, কেমন আছে? পৃথিবীর আহ্নিক গতি যদি ১ মিনিট থেমে থাকে, তাহলে কি হবে? সাগর, সিরাজগঞ্জ, ৮ম শ্রেনি।
উত্তর: আমরা টের পাই না, কিন্তু পৃথিবীর আহ্নিক গতির জন্য আমরা সবাই ঘণ্টায় প্রায় এক হাজার মাইল বেগে ছুটছি। হঠাৎ করে সেটা থামিয়ে দেয়া মানে আমাদের মনে হবে পুরো পৃথিবী ঝাকুনি দিয়ে হঠাৎ করে উল্টো দিকে এক হাজার মেইল বেগে ছুটতে শুরু করেছে। এক মিনিট পরে আবার পুরো ব্যাপারটা ঘটবে, এবারে অন্যদিকে। তারপরেও যদি টিকে থাকো তোমার ঘড়িটা এক মিনিট পিছিয়ে দিতে পার।

প্রশ্ন: স্যার, টুনটুনি ও ছোটাচ্চু সিরিজের ৫ম বই টা পাচ্ছি না। কি করব স্যার? সাগর, সিরাজগঞ্জ ।
উত্তর: অনলাইনে নিশ্চয়ই পিডিএফ পাওয়া যাবে। সেখানে পড়ে নিতে পার।

প্রশ্ন: স্যার, মেন্ডেলা ইফেক্ট কী?
উত্তর: What is Mandela effect? লিখে গুগলে একটা সার্চ দাও। (আমি তোমাদের নেট ব্যাবহার করা শিখাতে চাইছি!)

প্রশ্ন: Sir,Electro-weak কি???? Ashiqul Islam Ayon Bangladesh Gas Fields School & College
উত্তর: What is Electro-weak? লিখে গুগলে একটা সার্চ দাও। (আমি তোমাকেও নেট ব্যাবহার করা শিখাতে চাইছি!)

প্রশ্ন: স্যার আবার হারিয়ে গেলেন !
উত্তর: কে বলেছে হারিয়ে গেছি? এই যে আমি!

প্রশ্ন: Sir, যদি কেও প্রথিবির বাইরে জায় আর তখন প্রিথিবি ধংস হয় তখন সে কি করবে? প্রিথিবির বাইরে মানে মহাকাশে। Azraf
উত্তর: প্রথমে পৃথিবীতে রেখে আসা আত্মীয় স্বজনের জন্য একটু কান্নাকাটি করবে। তারপর দেখবে কতটুকু অক্সিজেন আছে, কতদিন বেঁচে থাকতে পারবে সেটা বের করবে। তারপর নিজের জন্য কান্নাকাটি শুরু করবে।

প্রশ্ন: Name Tori Class 6 Address Dinajpur Sir apni ki kohono Dinajpur asechen?Dinajpur asle please amar sathe dhekha korben.Amar basate asben.Sir arekta question, Ami boro hoye ekjon scientist hote chai Ami ei bisoe ki korbo?
উত্তর: হ্যাঁ, গিয়েছি। ঠিক আছে চেষ্টা করব তোমার সাথে দেখা করে আসতে। তুমি বড় হয়ে বিজ্ঞানী হতে চাও শুনে খুব খুশি হলাম। একটু বেশি করে গণিত করা শুরু করে দাও।

প্রশ্ন: স্যার, নিউরনে অনুরণন প্রোজেক্টটা কি বন্ধ হয়ে গেছে,? কাশফা শেহজাদ লিনদ , চাঁদপুর সদর,চাঁদপুর।
উত্তর: হ্যাঁ। এখন তার বদলে আছে সত্যিকারের গণিত অলিম্পিয়াড।

প্রশ্ন: Sir, football khalay apni kon team er supporte? Sayed
উত্তর: বাংলাদেশের টিম।

প্রশ্ন: স্যার, আমি বলেছিলাম আপনার নতুন কোনো বইয়ের কোনো একটা ভালো এবং প্রধান চরিত্রকে আমার নামটা দেওয়ার জন্য, কিন্তু আপনি দেন নাই পরবর্তীতে ভুল হলে কিন্তু ছেড়ে দিবো না। অপূর্ব দীপ্ত ভৌমিক, ৭ম শ্রেণি, চট্টগ্রাম।
উত্তর: তোমার আগে অন্তত কয়েক হাজার ছেলেমেয়ে এই অনুরোধ করে রেখেছে। যদি তাড়াহুড়া থাকে নিজেই নিজের নামে একটা বই লিখে ফেলো।

প্রশ্ন: স্যার,পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন না করে, টারবাইন বা সৌর শক্তির মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা বেশি সুবিধা না? এর মাধ্যমে পরিবেশেরও উপকার হবে। Ashiqul Islam Ayon Bangladesh Gas Fields School & CollegeBrahmanbaria
উত্তর: নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টের সমান সৌর বিদ্যুৎ খুব বাস্তব সম্মত না।

প্রশ্ন: Md Tayebin.Chittagong.
স্যার √-4 এর মোট সমাধান কয়টি?
এভাবে সমাধান করলে ভুলটা কোথায় হচ্ছে,
√-4
={(-4)^2}^1/4
=16^1/4
=+-2
প্লিজ উত্তরটা দিয়েন। আমি কনফিউজড।
উত্তর: √-4 এর সমাধান দুইটি। তুমি এখানে √ (x^2) = x ব্যাবহার করেছ। এটি real number x এর জন্য সব সময় শুদ্ধ নয়। সব সময় শুদ্ধ রূপটি হচ্ছে √(x^2) = |x|

প্রশ্ন: স্যার, আমি একটা বড় সমস্যায় পড়েছি। আমি ও আমার বন্ধুরা প্রায়ই নানা বিষয়ে আড্ডা দেই। তবে আমাদের আড্ডার বিষয়গুলো সবার চেয়ে আলাদা হয়। আমরা খেলার থেকে সিনেমার থেকে রাজনীতি, বিজ্ঞান আর ধর্ম ও মানবজগতের বিষয়ে বেশি আলোচনা করি। আমাদের এই বন্ধুদের আড্ডায় ধর্ম বিষয়ক আলোচনা উঠলেই আমি সবসময় বলি আমি মানবধর্মে বিশ্বাসী। তবে, আমার এক বন্ধুর মতে মানবধর্ম বলে কোন ধর্ম হতে পারেনা। তার মতে মানবধর্মে বিশ্বাস করা অবিশ্বাসীদের কাজ। আমাকে সে মানবধর্মের বিশ্বাস সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে আমি তাকে বলি যে, আমার কাছে মানবধর্ম হলো পৃথিবীর সকল ধর্মের সার নিয়ে তৈরি ধর্ম, যে ধর্মের মানুষ পৃথিবীর সকল ধর্মকে বিশ্বাস করে এবং সকল ধর্রমের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে সব ধর্মের আচারে অংশ নিবে। তবে তার কথা হলো, আমি যদি পৃথিবীর সব ধর্ম মানি তবে আমাকে ইসলাম ধর্মও মানতে হবে। আর যে ইসলাম ধর্ম মানবে সে পৃথিবীর অন্যকোন ধর্ম মানতে পারবে না। স্যার, তবে কি আমার মানবধর্মের বিশ্বাস ভুল? প্রীতম, ময়মনসিংহ, বাংলাদেশ।
উত্তর: এসব বিষয়ে যে যেটা বিশ্বাস করে সে তার বাইরে চিন্তা করতে রাজী না। কাজেই তুমি তর্ক করে বেশিদূর যেতে পারবে না, কাউকে কিছু বুঝাতে পারবে না। যেটা বিশ্বাস করে শান্তি পাও সেটাই বিশ্বাস করে যাও।

প্রশ্ন: Sir, ami physics Konodin kono sir ar kace pori ni. Apni jevabe likhecen, aktu bujhe porley hoye jay. Higher math sir ami sob unit e nije nije poreci. Shudu function problem! Apni bolecen Private pora jabe na. Tahole ami kivabe function shikhbo………………Likhon
উত্তর: সবচেয়ে সোজা ভিন্ন ভিন্ন বই ঘাটাঘাটি করা, কোথাও না কোথাও নিশ্চয়ই তুমি বুঝতে পার সেভাবে সহজ করে লেখা আছে। (কিন্তু ফাংশানে না বোঝার কী আছে?)

প্রশ্ন: Sir, kopotron jinish ta ki… Eta ki sotti e ace.. Na kalponic………Porosh
উত্তর: কাল্পনিক।

প্রশ্ন: Sir ami apnar onek boro fan. Plz sir amr sathe akdin fone kotha bolben…… Eta amar jiboner akta shokh……..plz..sir……….Porosh….
উত্তর: ফোনে কথা বলতে কেমন জানি অস্বস্তি লাগে। কোনো একদিন যখন সামনা সামনি দেখা হবে তখন সরাসরি কথা বলে নিও।

প্রশ্ন: Sir, choymbok khetre charge keno force anuvab kore?… . Prithibir kendre gravity kano Zero?……. Porosh…
উত্তর: ইন্টারনেট! ইন্টারনেট! ইন্টারনেট! ইন্টারনেটে খুঁজে না পেলে আমাকে জিজ্ঞেস করো।

প্রশ্ন: গল্পের বই একবার পড়লেই মনে থাকে, কিন্তু ক্লাসের বই বারবার পড়তে হয় কেন? — নিশাত আরা নিধি, ৫ম শ্রেণি, কে বি হাইস্কুল, ময়মনসিংহ।
উত্তর: লক্ষ টাকার প্রশ্ন! মনে রাখার চেষ্টা করলেই ঝামেলা, বোঝার চেষ্টা করলে কাজটা সহজ। যে জিনিষটা বইয়ে লেখা আছে, সেটা কেন শুধু শুধু মগজের ভিতরে নিয়ে ঘুরে বেড়াব?

প্রশ্ন: Sir ami akhon ar school a jay na. Amar class ar math physics shob shesh. Tay ami akhon akta sir ar kace inter er math kori. Ami ki tthik korci?………
Porosh. Kushtia
উত্তর: কোনো স্যারের কাছে না গিয়ে নিজে নিজে করলে আরো বেশি ঠিক হতো!

প্রশ্ন: স্যার, আপনে ব্রাহ্মনবাড়িয়াতে আসেন না কেন? Ashiqul Islam Ayon Bangladesh Gas Fields School & College
উত্তর: কে বলেছে আসি না। আমি অনেকবার ব্রাহ্মনবাড়িয়া গিয়েছি।

প্রশ্ন: স্যার,যদি একটি স্থান থেকে একটি প্লেইনকে আকাশে স্থির অবস্থাই রাখা হয় আর কিছু সময় পরে আবার প্লেনইনটিকে নিচে নামানো হলে প্লইনটি কি তার অবস্থান পরিবর্তন করবে? কারণ পৃথিবীত ঘূর্ণায়মান। Ashiqul Islam Ayon Bangladesh Gas Feilds School & Collage
উত্তর: পৃথিবীর উপরের যা কিছু আছে সব কিছুই তার সাথে ঘুরছে। কাজেই প্লেনটাকে যখন উপরে তুলবে সেটা কিন্তু স্থির নেই, সেটাও ঘুরছে। মহাকাশ থেকে যদি দেখো তখন দেখবে এটা পৃথিবীর সাথে সাথে ঘুরছে, কাজেই অবস্থান পরিবর্তন হবে কেমন করে?

প্রশ্ন: Assalamu alaikum Sir, this is my first question to you. i like to read your books very much. you are an amazing writer. I hope i can meet you someday. A. Hassan
উত্তর: থ্যাঙ্কু। অবশ্যই কোনো এদিন তোমার সাথে দেখা হবে।

প্রশ্ন: স্যার, আপনার লেখা আপনার সবচে প্রিয় বই কোনটা?আমার টুকি ও ঝা অনেক ভালো লেগেছে।.এমন বই আরো লিখবেন প্লিজ, Mehejabin.Dhaka
উত্তর: আলাদা ভাবে তো বলতে পারব না, কোনটা প্রিয়! তবে টুকি ঝা লিখে আমিও মজা পেয়েছিলাম।

প্রশ্ন: স্যার,নতুন গল্প চাই।।।অনেকদিন নতুন গল্প পাই না।।এখন ত আপনি ফ্রি।। সামান্তা।।
উত্তর: গল্প লিখলেই তো হয় না। সেটা আবার টাইপ করতে হয়। সেটা কে করে দেবে? হাতে লেখা কাটাকাটি সহ ভুলভাল উল্টাপালটা গল্প পড়তে চাইলে পড়াতে পারি।

প্রশ্ন: ওয়াও।।স্যার,এখন আপনার বাংলাদেশ এর জার্সি পরা ছবিটা অনেক সুন্দর হয়েছে।।।
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ। আমাদের ছেলেপিলেরা চেচামেচি করে জার্সিটা ঠিক করেছে তা না হলে সর্বনাশ হয়ে যেতো। সেই জন্যে আমি এইটা পরে ছবি তুলেছি।

প্রশ্ন: Sir, শুরুতেই ঈদ মোবারক। ঈদে আপনার ‘রাজকাহন’ নামক অনুষ্ঠানে উপস্থাপিকা নবনীতা চৌধুরীর সাথে দেয়া এক সাক্ষাতকার দেখলাম। সেখানে উনার একটা প্রশ্ন ছিল–“অনেকেই ত বলেন পঞ্চাশ বছর হতে চলল, কে রাজাকার, কে মুক্তিযুদ্ধ সেটা বড় ব্যাপার নয়”। আপনি উত্তরে আপনার সামনে ঘটে যাওয়া এক ঘটনা বলেছিলেন।
sir, আমাদের দেশ ত এখন দূর্নীতে champion আর অরাজনৈতিকের দেশ। বিশেষ করে, কেউ কথা রাখে নি, মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে যারা ভোটে জয়লাভ করে, এ জাতির সাথে তাদের বিশ্বাসঘাতকতাটা বেশ স্পষ্টত। কিন্ত খুবই দুঃখজনক, এ কারণে মানুষ মুক্তিযুদ্ধের প্রতি একটা অমর্যাদা চলে আসে। তারা মুক্তিযুদ্ধের মহীমা, তাতপর্য বুঝতে পারে না। এইটাকে স্রেফ এক রাজনীতি বলে ভাবে।
আমিও তাদের বোঝাতে (বা নিজেও বুঝতে) আত্মীয়স্বজন বা বন্ধুর আত্মীয়স্বজনদের সাথে ঘটে যাওয়া ‘বাস্তব’ মর্মান্তিক ঘটনা share করি। সেটি magic এর মত কাজ করে, দেখেছি। আমার ঝুলিতে খুবই মর্মান্তিক তিনটি ঘটনা আছে, আর এগুলো জানি আমি একেবারে সত্য ঘটনা।
Sir, আপনি মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে গল্প লিখেছেন। In fact, আমার মুক্তিযুদ্ধের প্রতি প্রথম মায়া-ভক্তি এসেছিলই কারণ আমি বাচ্চা বয়স থেকে আপনার লেখা পড়তাম, আর সেখানে মুক্তিযুদ্ধ ছিল। এখন আরো কার্যকরী হত, যদি আপনার দেখা মর্মান্তিক ঘটনা এবং আপনার কাছের মানুষদের থেকে শোনা(হতে পারে তারা মুক্তিযোদ্ধা পরিবার), তাদ্বের জীবনের মর্মান্তিক সত্য ঘটন নিয়ে বই লিখতেন বা এমন বই আছে, সেগুলার নাম বেশি বেশি প্রচার করতেন, আমরা আসলে একটা মানুষের জীবনের suffering, তাদের আত্মত্যাগগুলো আরো কাছ থেকে দেখতে পেতাম। আমি sure কারো কাছে যদি এমন সত্যি দশটি ঘটনা জানা থাকে, সে কখনোই আমাদের স্বাধীনতাকে ছোট করে দেখবে না। তখন নিশ্চয়ই আর কেউ আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে খাটো করে বা হেলাফেলার চোখে দেখতে পাবে না। (আপনি লেখলে বেশি খুশি হতাম, কারণ শিশু-কিশোরদের উপযোগী এত ভাল গুছিয়ে কেউ লেখতে পারে বলে আমার মনে হয় না। আর আপনার জনপ্রিয়তাও বেশ উচুতে, তাই আপনি লিখলে সেটি অনেকের চোখে পড়বে।)
Julian Jawad Ahmad
Uttara, Dhaka
উত্তর: তুমি ঠিকই বলেছ। আমি মাঝে মাঝেই ভাবি, সেই কবে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে, তারপর কতদিন পার হয়ে গেছে, এতোদিন পর নতুন জন্ম হওয়া ছেলেমেয়েরা সত্যি সত্যি সেই মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে এতো পাগল হবে সেটা আশা করা কি বেশি আশা করে ফেলছি? অনেকেই আমাকে বলে কেন আপনার সব লেখায় কম হোক বেশি হোক মুক্তিযুদ্ধ থাকেই? আমি কী উত্তর দেব জানি না। হতে পারে এখন অনেকের কাছে মুক্তিযুদ্ধটা একটা রাজনীতির ব্যাপার কিন্তু আমার কিছু করার নেই। যতদিন বেঁচে থাকব (জীবনটাকে তো প্রায় শেষ করেই ফেলেছি, আর বেশিদিন বাচ্চা কাচ্চাদের বিরক্ত করব না!) আমি মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে যাব, কেউ শুনুক আর নাই শুনুক।

প্রশ্ন: স্যার, আমি 2 রা অক্টোবর প্রশ্ন করেছিলাম। উত্তর পাইনি তাই আবার করছি।
স্যার এই সাইটে আপনার calculus বই টার টাইপিং এ গন্ডগোল হয়েছে।কিচ্ছু পড়া যাচ্ছে না।আপনি ডাউনলোড করে কপিটা একটু দেখবেন,শুধু মাঝে মাঝে একটা দুটো লাইন পড়া যায়।মনে হয় ANSI /unicode codec অদলবদল করতে হবে।ঠিক করে দিন দয়া করে।…..আর আমি কলকাতায় থাকি।আপনার বিজ্ঞান বিষয়ক বই এখানে বসে পাওয়া খুব কঠিন।আপনি যদি দয়া করে বিজ্ঞান বিষয়ক আরো কিছু বই সাইটে দেন খুব ভালো হয়।….আমি একজন amateur astronomer।বিগ ব্যাং থেকে হোমো সেপিয়েন্স অসাধারণ লেগেছে আমার।খুব প্রাঞ্জল ভাষায় লেখা এবং আমার অনেক প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি।…#সৌরদীপ প্রধান,কলকাতা,ভারত।
উত্তর: আসলে আমি জানতাম না এই বইটা ইউনিকোডে কম্পোজ করা হয়নি। সরি! আমি মূল পাণ্ডুলিপিটা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। তাহলে ঠিক করে দিতে পারব। তুমি যেহেতু আমার বিজ্ঞানের বই পড়ছ, আমি এখন যেটা লিখছি সেটা তোমার পছন্দ হতে পারে। বইটার নাম “রহস্যময় ব্ল্যাক হোল”।

প্রশ্ন: টাইম ট্রাভল কি সম্ভব? আপনার মতামত কি? -রাইয়ান আল রোহান ৫ম শ্রেণি ২নং চাঁদভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আটঘরিয়া,পাবনা
উত্তর: এই মুহুর্তে সম্ভব না, কিন্তু হাজার খানেক বছর পরে যখন টেকনোলজি অনেক এগুবে, বিজ্ঞানীরা ওয়ার্ম হোল তৈরী করতে পারবে, কন্ট্রোল করতে পারবে তখন কিছু কিছ সম্ভব হবে।

প্রশ্ন: অবন্তি,১০ম শ্রেণী,ময়মনসিংহ। স্যার,আমার তো মনে হয় না আপনি ওয়েবসাইটে নিয়মিত আসবেন।কেননা প্রতেকবার আপনি বলেন এখন থেকে নিয়মিত আসব কিন্তু আপনার নিয়মিত হলো ৭/৮মাস পর। এমন কেন করেন??? আর একটা কথা আপনি এবার যে উত্তরগুলা দিয়েছেন সেগুলো মনে হয় এবছরের কিন্তু স্যার আপনি তো গতবার জুন পযন্ত উওর দিয়েছিলেন।বাকি গুলো দিবেন না???? ভালো থাকবেন।। ঈদ মোবারক।। অনেক অনেক ভালোবাসা।।
উত্তর: হুমমমম! মনে হয় তুমি ঠিকই আন্দাজ করেছ! তবে আমার আন্তরিক ইচ্ছা আছে, সেটাকে কোনো গুরুত্ব দেবে না?

প্রশ্ন: আপনি যদি আপনার বই গুলো epub হিসেবে এই ওয়েব সাইটে upload করেন তাহলে ভাল হয়। রাইয়ান আল রোহান ৫ম শ্রেণি ২ নং চাঁদভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আটঘরিয়া,পাবনা
উত্তর: আমি শুনেছি আমার বইগুলে নেটে পাওয় যায়, তাই আমার কোনো তাড়াহুড়া নেই। সবকিছু নিজেকে করতে হয় তো, তাই সারাক্ষণ এটার পিছনে সময়ও দিতে পারি না। মুক্তিযুদ্ধের বই আর বিজ্ঞানের বইগুলো নিয়েই আপাতত খুশি থাকতে হবে।

প্রশ্ন: Name:Tori,Address:Dinajpur……… Tuntuni o Chotacchu golper 6th part er nam deben barbar tuntuni o barbar chotacchu.Ar chotacchu biye deben Farihapu r sathe
উত্তর: দেখা যাক নতুন টুনটুনি আর ছোটাচ্চুর বই লিখতেই পারি কিনা! টুনটুনি আমার উপর বিরক্ত হয়ে দেশ ছেড়ে চলে যাবে বলে হুমকি দিয়েছে!

প্রশ্ন: স্যার, আপনি এরকম কেন বলুন তো? যারা আপনাকে ভালোবাসে তাদের কাছাকাছি থাকার জন্য একটি ওয়েবসাইট খুলেছেন ভালো কথা। কিন্তু আপনি যেভাবে ঢালাও ভাবে সবার প্রশ্নের উত্তর দেওয়া শুরু করেছেন তা কি ঠিক হচ্ছে? বেশির ভাগ প্রশ্নই হচ্ছে খুবই সোজা কিংবা ফালতু। সেই সব সোজা প্রশ্নের উত্তর একটু চেষ্টা করলেই পাওয়া যায়। ওরা কেউ চেষ্টা না করেই পটাপট এখানে টাইপ করে চলে যাচ্ছে! আর আপনি এসে এদের ফালতু প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন! কী একটা অবস্হা! স্যার, যারা প্রশ্নের মতো প্রশ্ন করবে একমাত্র তাদেরই প্রশ্নের উত্তর দিবেন। না হলে আপনার এই ওয়েবসাইটের বারোটা বাজতে বেশি দেরি নেই। ভালো থাকবেন। -হিমি
উত্তর: তুমি ঠিকই বলেছ। এখন থেকে সোজা প্রশ্নগুলোর উত্তর দেব না। সবাই যে প্রশ্ন করে তাও কিন্তু না। অনেকে তার মনের কষ্টটা আমার সাথে শেয়ার করে। তার সাথে যদি একটুখানি কথা না বলি, একটু শান্তনা না দেই তখন নিজেরই খুব খারাপ লাগে। আবার অনেক ছোট বাচ্চা মাঝে মাঝে প্রশ্ন করে। বেশীর ভাগ সময়েই তাদের প্রশ্নগুলো খুবই ছেলেমানুষী, কিতু তারা একটা উত্তর পেলেই খুশী। তখন এতো মায়া লাগে …

প্রশ্ন: Sir,do you believe in alien????
Ashiqul Islam Ayon
Brahmanbaria
Bangladesh Gas Fields School & Collage
উত্তর: আমার বিশ্বাসে তে কিছু আসে যায় না। কিন্তু আলিয়েন থাকার সম্ভাবনা অনে……ক বেশী।

প্রশ্ন: Aurthie,Dhaka
I know you are never gonna read this since you’ve been absent from here for almost exactly an year but I’m writing this anyway…..
Are you a theoretical physicist or an experimental physicist ?
Which one do you prefer?
উত্তর: সরি। সরি। সরি। আমি এক্সপেরিমেন্টাল ফিজিসিস্ট। আমার এক্সপেরিমেন্ট করতে বেশী ভালো লাগে। সব এক্সপেরিমেন্টাল ফিজিসিস্ট একটুখানি হলেও থিওরেটিক্যাল ফিজিসিস্ট কিন্তু সব থিওরেটিক্যাল ফিজিসিস্ট কিন্তু এক্সপেরিমেন্টাল ফিজিসিস্ট না।

প্রশ্ন: You are one of ……………… my dear sir! …………Sir whenever I am a bit sad I then re-read one of your books and feel like all sort of distress and pain going away out of my mind. I earnestly hope with all my heart that you will be getting well for the rest of the life. God bless you. Love for you and your family. -Sadia,dhaka.
উত্তর: কী সুন্দর করে লিখেছ! (আমাকে নিয়ে বেশী ভালো ভালো কথা লিখেছ বলে খানিকটা লেখা মুছে দিলাম) থ্যাংকু। থ্যাংকু। থ্যাংকু। তোমার পুরো লেখাটা প্রিন্ট করে বড় করে টানিয়ে রাখব। যখন আমার মন খারাপ হবে, তখন আমি তোমার লেখাটা পড়ব। সাথে সাথে আমার মন ভালো হয়ে যাবে।

প্রশ্ন: স্যার, আমার বাবা ভালো না।মানুষটা প্রচন্ড খারাপ।অবশ্য তাকে “মানুষ” বলা যায় কিনা সন্দেহ।এত খারাপ একটা মানুষ!কল্পনারও বাইরে।ছোটবেলা থেকে দেখে আসছি লোকটা আমার মাকে মারধর করে আসছে।এছাড়াও সবাইকে গালাগাল ও মানসিক নির্যাতন।স্যার,সব কিছুই এ পর্যন্ত সহ্য করে আসছি।কিন্তু একটি ব্যাপার সহ্যের বাইরে চলে যাচ্ছে।এই লোকটা আমাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করলেও বাইরের মানুষের জন্য জান প্রাণ দিয়ে দেয়।বাইরের লোককে নিজের কান কেটে বললেও কেউ বিশ্বাস করবে না সর্বদা হাসিখুশি এই লোকটা ভয়ংকর একটা মানুষ।স্যার, আপনার কাছে আমার প্রশ্ন হলো,যাদের বিয়ে করার যোগ্যতা নেই তারা কেন বিয়ে করে?বাচ্চা জন্ম দেওয়ার পর তাদের প্রতি কী দায়িত্ব তা যদি না জানে তবে কেন তারা বিয়ে করে?আরেকটা প্রশ্ন, স্যার, আমাদের পৃথিবীতে কি এমন একটা পদ্ধতি করা যায় না যাতে পরিক্ষা দিয়ে পাশ করার পর বিয়ের অনুমতি মিলবে?ধন্যবাদ। (……,একাদশ শ্রেনী।)
উত্তর: আহা রে। তোমার চিঠিটা পড়ে আমার এতো মন খারাপ হলো। কিন্তু তুমি যেটা বলেছ আমি সেটা অনেক বার দেখেছি। চারপাশে এরকম অসংখ্য fake মানুষ। কী করবে বল, পৃথিবীতে সব রকমের মানুষ আছে। তোমার মায়ের জন্য কষ্ট হচ্ছে। তাঁর পাশে থেকো সবসময়। যখন তুমি আরেকটু বড় হবে তখন তুমি তোমার বাবাকে confront করতে পারবে যেন এরকম নিষ্ঠুরতা বন্ধ করতে বাধ্য হন। হ্যাঁ উপায় থাকলে সবাইকে পরীক্ষা দিয়ে বিয়ে করার নিয়ম করা যেতো। (তোমার নামটা মুছে দিলাম)

প্রশ্ন: Sir Ami Swapneel,meherpur Thakay Apni Khono Meherpur A Ashan Na Kano.Akanay Boi Mela Hoi Na,boi Prar Sujog Nai,Bash Thakay Golper Boi Kinay Dai Na.Atu Smosha!! Apni Akanay Akta Boi Melar Babosta Korun Na Plz
উত্তর: আসব, আসব। নিশ্চয়ই একবার সুযোগ হবে তখন আসব। এখন তো বই অন লাইনে অর্ডার দেওয়া যায়। যায় না?

প্রশ্ন: চাচ্চু আমি খুব কষ্ট পেয়েছি।তুমি আমার দেওয়া নামে টুনটুনি ও ছোটাচ্চু বইয়ের নাম রাখোনি।২০২০সালে এদের নিয়ে বই লিখলে নাম রাখবা [এবারো টুনটুনি ও এবারো ছোটাচ্চু]।তুমি একটা বইয়ে বইয়ের নাম চেয়েছো।আমি কিন্তু নাম দিলাম। এবার তুমি এই নামটাই রাখবা।নাইলে গল্পের বই পড়াই ছেড়ে দিবো। নামঃস্বপ্নীল রায় ঠিকানাঃখুলনা
উত্তর: আসলে “এবারো টুনটুনি ও এবারো ছোটাচ্চু” নামটা “আবারো টুনটুনি আবারো ছোটাচ্চু”র খুব কাছাকাছি হয়ে যায়তো, সেটা একটা সমস্যা…

প্রশ্ন: স্যার আমরা জানি না আপনি কেন আমাদের উপর রাগ করে আছেন। গত ৯ মাস ধরে আমরা কোনো প্রকার উত্তর পাচ্ছি না। যদি আমরা কোনো প্রকার ভুল করে থাকি আমাদের ক্ষমা করে দিবেন। আজকে আমি আপনার কাছে কিছু দাবি নিয়ে এসেছি।আপনি ফেসবুকে থাকেন না বলে এই জিনিসটা জানতে পারছেন না। আমিও জানি আপনি ফেসবুক তেমন একটা ব্যবহার করেন না। কিন্ত তাতে সমস্যা নেই! ফেসবুকের যে জিনিসটা ঘটেছে সেটার লিঙ্ক দিব । ……….প্রথমেই বলতে চাই প্রোগ্রামিং শিখাটার আগ্রহ এসেছে আপনার কাছ থেকেই । ২০১৭ সালে NHSPC তে আপনার কথা শুনে অনেক মুগ্ধ হয়েছে ।প্রোগ্রামিং করলে অনেক কিছু করা যায়। রোবট , এসব ওইসব । আপনার কাছ থেকে উৎসাহ পেয়ে সি শুরু করলাম।………….
উত্তর: শুনে খুশী হলাম যে তুমি প্রোগ্রামিংয়ে মজা পেতে শুরু করেছ। আর কম্পিউটারের ভাষার তেমন গুরুত্ব নেই। একটা জানলে অন্য একটা কঠিন কিছু নয়, শুধুমাত্র কিছু নতুন সিন্টেক্স। আমার ফেসবুক নেই (যেটা আছে সেটা ছাত্ররা ম্যানেজ করে, আমি পাসওয়ার্ডও জানি না। কাজেই ফেসবুকের লিংক দিয়ে লাভ নেই।)

প্রশ্ন: স্বপনিল্ স্যার এই সাইটে আপনার সব বই নাই কেন?বই গুলো কথায় পাব?
উত্তর: শুনেছি নেটে ঘাটাঘাটি করলে আমার সব বইয়ের পিডিএফ পাওয়া যায়।

প্রশ্ন: স্যার, আমি দশম শ্রেণিতে পড়ি। আমাদের স্কুলের শিক্ষকরা আমাদের জ্যামিতি মুখস্ত করান। রসায়ন a to z মুখস্ত করান। কিছু বোঝায় না। কিন্ত আমি মুখস্ত করতে পারি না। তাই রীতিমত আমাকে মার খেতে হয়। আর আমার সখ scientist হওয়া। আমি নতুন কিছু experiment করলে teacher এবং student রা হাসাহাসি করে। আমার এখন scientist হওয়ার সখ মিটে গেছে। আামি এখন কি করব?
porosh
Mothurapu, Daulatpu, kushtia. 01787945644
উত্তর: এটা তো নতুন কিছু নয়! মার তো খেতেই হবে। একটুখানি মার খেয়েই যদি সায়েন্টিস্ট হবার সখ মিটে যায় তাহলে বুঝতে হবে তোমার সেরকম সখ ছিল না!

প্রশ্ন:প্রিয় স্যার, আপনি ভালো আছেন তো? যদি ভালো নাও থাকেন,তবু আপনাকে ভালো থাকার চেষ্টা করতে হবে! কারণ,আপনিই একমাত্র মানুষ যাকে আমার খুব আপন মনে হয়।আমার যখন খুব মন খারাপ হয় তখন আপনার বই পড়লে আমার মন ভালো হয়ে যায়!আপনি জেনে অবাক হবেন যে,হাতে গোনা চার পাঁচটি ছাড়া আপনার সব বই আমার পড়া।সেই ছোটবেলা থেকে আপনার বই পড়ি।কিন্তু এখন আমি অনেক বড় হয়ে গেছি।ইন্টাবমিডিয়েট সেকেন্ড ইয়ারে পড়ি।এখনও যখন “বাচ্চা ভয়ংকর কাচ্চা ভয়ংকর” বইটা নিয়ে বসে থাকি সবাই হাসাহাসি করে।আমি কিছু বলি না।ওরা কী করে বুঝবে এই বইগুলি আমার কাছে কী! স্যার,আপনাকে এবং আপনার পরিবারের সবাইকে অনেক অনেক ভালোবাসা! ইতি, সাদিয়া-ই-জান্নাত (পূর্ণতা) দ্বাদশ শ্রেণী, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ, জামালপুর।
উত্তর: হা হা হা! ইন্টারমেডিয়েট পড়েই বলছ বড় হয়ে গেছ, আমার মত বয়স হলে কই বলবে? (মানুষের হাসাহাসি নিয়ে মাথা ঘামিও না, আমি এখনো গেন্দা বাচ্চাদের জিন্য লেখা বই সখ করে পড়ি। এটা হচ্ছে ছোট বাচ্চাদের বইয়ের মজা, বড়রাও পড়তে পারে। বড়দের বই কিন্তু ছোটোরা পড়তে পারে না!)

প্রশ্ন: প্রথমেই জানাই আপনাকে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা। স্যার, আপনি কি মহাকাশে বেড়াতে গেছেন? আপনার দেখা নেই কেন? আপনার মাথার চুলের অবস্থা কেমন?
আপনি যেমন ভালো ছিলেন তেমনি ভালো সুস্থ থাকবেন এই কামনা করি। খোদা হাফেদ।
ফণি (উল্লেখ্য আমার নাম নিয়ে কৌতুক করা যাবে না )
ঠিকানা: ডাক্তার পাড়া ,ফেনী
11/05/2019
উত্তর: সত্যি? তোমার নাম নিয়ে কৌতুক করা যাবে না? একটুখানি?

প্রশ্ন: সুকর্ণা কুন্ডু, একাদশ শ্রেণি, শরীয়তপুর।
শুকনো ফুল রঙিন ফুল গল্পের কাহিনি কি আপনি সত্যি সত্যিই ম্যাডামের কথায় পরিবর্তন করেছেন?
উত্তর: নিশ্চয়ই করেছিলাম, এতোদিন পরে তো ঠিক মনে নাই!

প্রশ্ন: স্যার আপনাকে আমাদের বাসায় ভাত, ডাল, ডিম ভাজা ও মুড়ির দাওয়াত। সাকিব আল মাহমুদ,নবম শ্রেণী,ফুলপুর পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়,ফুলপুর,ময়মনসিংহ।
উত্তর: থ্যাঙ্কু, থ্যাঙ্কু, থ্যাঙ্কু। (সত্যি সত্যি যখন যাব, তখন তখন কোরমা, পোলাও, রোস্ট, কাচ্চি বিরিয়ানি এইসব রান্না করে ফেলবে, আমি জানি!)

প্রশ্ন: Hello,i am zarin,i have read almost all of your books, i love all of them…u r my most favourite author. thank u for make my life better. your books wipe away all of my stress when i read them. pls write more, though i m not kid anymore i just love to read these books always.
উত্তর: শুনে খুব ভালো লাগল যে আমার বইগুলো তোমার জীবন একটুখানি হলেও ভালো করেছে! হ্যাঁ আমি আরো লিখব। নিশ্চয়ই লিখব।

প্রশ্ন: একটি সাধারণ আলো কে কি infrared এ রুপান্তর করা যায়?????
সালমান, আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল।
উত্তর: ভালো প্রশ্ন। না, করা যায় না। যখন এটা ঘটে আমরা বলি নন লিনিয়ার ঘটনা ঘটছে।

প্রশ্ন: Sir, Assalamualaikum. Apni amar onnnnneeeeeeeek favourite writter. Apnar golper boi pore ami kolponay harie jai. Amio ekjon boro lekhok hote chai. Apnar kache khali ektai proshno, kivabe ami amar kolpona shokti barabo? ইয়ামিন, চট্টগ্রাম সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়।
উত্তর: খুবই সোজা তিনটা উপায় আছে। (এক) বই পড়া (দুই) বেশী বই পড়া। (তিন) অনেক বেশী বই পড়া।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি এখন আর প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন না কেন ? আমাদের অনেক সমস্যা আছে। আপনি কি আমাদের ভুলে গেছেন ? তাহলে আমরা এখন যাব কোথায় ? আর এটা কি ঠিক ? পিয়া দে ; পূর্ব নতুন পাড়া,সুনামগঞ্জ ।
উত্তর: আসলে আমি মোটেও তোমাদের ভুলি নাই, কিন্তু ঠিকভাবে আমার ওয়েব সাইটটাকে ম্যানেজ করতে পারছি না। বড় হয়ে গেলে এটা হচ্ছে সমস্যা, বড়দের মত কাজকর্ম করতে হয়।

প্রশ্ন: স্যার আপনার ইমেইল অ্যাড্রেসটা কি? সবাইকে জানাতে না চাইলে চুপি চুপি আমার ইমেইল অ্যাড্রেসে পাঠিয়ে দিন ।
প্অয়ন ভৌমিক
দ্বাদশ শ্রেনী।
উত্তর: খুবই সোজা আমার ইমেইল এড্রেস, আমাদের ইউনিভার্সিটির ওয়েব সাইটে পাবে। (www.sust.edu)

প্রশ্ন: স্যার,এই যে আমরা আপনার জন্য এতো অপেক্ষা করি কিন্তু আপনি আসেন না।এটা কী ঠিক?? আমাদের অপেক্ষার কোন দাম নাই আপনার কাছে।। আমাদের কষ্ট হয় আপনি বোঝেন না?? ছোটদের কষ্ট দিতে নেই জানেন না??আপনি খুব পঁচা। ৮মাস আমাদের ভুলে কী করে আছেন আপনি??? বন্ধ করে দেন ওয়েবসাইট।৮/৯মাস পরে আসেন।এরকম করে আসলে লাগবে না আমাদের।
মেহরিন,সপ্তম শ্রেণী,এিশাল।
উত্তর: সরি, সরি, সরি… এইতো এসে গেছি।আসলে সবকিছু আমার নিজের ম্যানেজ করতে হয়তো, সেজন্যে দেরী হয়ে যায়।

প্রশ্ন: Sir Physics porta na amar voy lage ai voy dur korbo kamon kora? Amar nam Nomita Deb. Ami class 9 a pori. Amar basha Sunamganj, Purbo Notun Paray. Ami Govt. S.C. GIRLS SCHOOL a pori.
উত্তর: হু-ম-ম-ম-ম… তোমাকে একটা তাবিজ দিতে হবে। তাবিজের ভেতরে লেখা থাকবে E = mc^2! দেখবে তাহলে ফিজিক্সকে আর ভয় লাগবে না। (আসলে একটু বুঝে বুঝে পড়, দেখবে ফিজিক্স মোটেও কঠিন কিছু না। তোমাদের ক্লাশ নাইনের ফিজিক্স বইটা আমি অনেক কষ্ট করে লেকঝেছি যেন কাউকে প্রাইভেট পড়তে না হয়, কোচিং করতে না হয়। মাথা ঠাণ্ডা করে নিজে নিজে একবার পড়, পড়ে আমাকে জানাও। ঠিক আছে?)

প্রশ্ন: আজকে আমাদের স্কুল এ অনিঃশেষ ৭১ এর অনুষ্ঠান ছিল। আপনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। অথচ আমি জানতাম ই না যে আপনি আসবেন।আমি কেন সদস্য হোলাম না? আপনি কোথাও যাওয়ার আগে কেন announce করা হয় না? প্লিজ এর পরে কোথাও যাওয়ার আগে প্লিজ এখানে জানিয়ে যাবেন।
আপনার অনেক বড় একজন ভক্ত যা আপনি কখনো চিন্তাও করতে পারবেন না।
আনিকা। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ
উত্তর: তোমার সাথে নিশ্চয়ই অন্য কোথাও কোনো একদিন দেখা হয়ে যাবে।

প্রশ্ন: সুকর্ণা কুন্ডু, একাদশ শ্রেণি, শরীয়তপুর।
প্রতি বছর আমার দাদা(বড় ভাই) আপনার লেখা বইগুলো সহ আরও অনেক বই বইমেলা থেকে কিনে এনে দিত। কিন্তু এ বছর দাদা দেশে নেই। তাই এবারের ফেব্রুয়ারী মাসটা একে বারেই যাচ্ছে তাই ভাবে কাটল। বাবা মা তো HSC এর আগে আমাকে কোন গল্পের বই কিনতেই দেবে না। তাই এ বছর আমার বুক সেলফ এ একটাও নতুন গল্পের বই যোগ হয় নি। । যোগ হয়েছে শুধু কলেজের মোটা মোটা পড়ার বই।
আমি আমার স্কুল লাইফ টা খুব মিস করছি। তখন টেক্সট বই গুলো কতো ছোট ছোট ছিল!
উত্তর: মোটা মোটা টেক্সট বই দেখে নার্ভাস হবার কিছু নেই। আসল বিষয় খুব বেশী না। তবে হ্যাঁ, কিছু গল্প বই থাকা উচিৎ ছিল।

প্রশ্ন: স্যার,আপনার সাথে যে পুলিশগুলো থাকে তারা অনেক ভাগ্যবান।আপনার সাথে সব সময় থাকতে পারে।আমি যদি পুলিশদের একজন হতে পারতাম,তাহলে আমিও সবসময় আপনার সাথে থাকতে পওারতাম।। আহনাফ হাসান,৭ম শ্রণী,খুলনা।
উত্তর: হা হা হা! তোমার সেন্স অফ হিউমারটা আমার পছন্দ হয়েছে। তোমার জন্য পুলিশে একটা চাকরি খুঁজব?

প্রশ্ন: স্যার,আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন?? স্যার আমি আপনার বিশাল বক্ত।আপনার সাথে দেখা করার অনেক ইচ্ছা ছিল।যা আপনি ময়মনসিংহ আসাই পূরণ হয়েছে।আপনার অটোগ্রাফ পেয়েছি।আপনার অটোগ্রাফটা আমি বাধাই করে ফেলেছি।আপনার সাথে হ্যানডশেক করে সারাদিন ঐ হাত ব্যবহার করি নি।পরে জানতে পারি আপনি বই মেলাতেও গিয়েছিলেন এবং রাত পর্যনত ছিলেন তখন অনেক আফসোস করি।কিন্তু স্যার ২৯তারিখের কলামে ময়মনসিংহ নিয়ে একটি লাইনও লিখেন নি।তখন খুবই খারাপ লেগেছিল।যাই হোক ময়মনসিংহে আসার জন্য ধন্যবাদ।আবার আসবেন এবং ম্যাডামকে অবশ্যই নিয়ে আসবেন প্লিজ প্লিজ।। এখন একটা প্রশ্ন আঁখি ও আমরা কজন বইটিতে আরিশাকে অনেক সুন্দর করে উৎসর্গ করেছেন।আরিশাকে স্যার??? ভালো থাকবেন স্যার। সাবিকুন নাহার।দশম শ্রেণী,ময়মনসিংহ
উত্তর: হা হা হা। সারা রাত হাত ব্যবহার করনি? খাওয়া দাওয়া করেছ কীভাবে? (আরিশা হচ্ছে আমার ভাতিঝির ছোট মেয়ে।)

প্রশ্ন: আজ প্রায় ৭মাস আপনি ওয়েবসাইটে আসেন না।
কেন স্যার??আমাদের কথা কি একটুও মনে হয় না???আমি রোজ ঘুমুতে যাওয়ার আগে দেখি আপনি এসেছেন কিনা,কিন্তু না আপনি আসেন না।আমি আপনার অনেক অনেক অনেক বড় ভক্ত। কিন্তু আপনাকে দেখার ভাগ্য হলো না।২৫ মার্চ নাকি আপনি ময়মনসিংহে এসেছিলেন,কিন্তু তাও আমি দেখা করতে পারিনি।।
আমার মতো দূভাগা কী আছে কেউ??আমার অনেক বন্ধুবী আপনার সাথে ২৫তারিখ দেখা করেছে।অটোগ্রাফ পেয়েছে,সেলফি তুলেছে।আমি সেদিন আমার গ্রামেরবাড়ি থাকায় পারিনি।।
আবার কী আসবেন কখনো ময়মনসিংহে??আসলে অবশ্যি ম্যাডামকে নিয়ে আসবেন।ম্যাডাম অনেক ভালো মানুষ। ভালো থাকবেন স্যার।নওশীন,কে,বি স্কুল,ময়মনসিংহ।নবম শ্রেণী।
উত্তর: এই তো এসেছি। চেষ্টা করব, নিয়মিত আসতে। ঠিক আছে, ম্যাডামকে নিয়ে আসব। হ্যাঁ, ম্যাডাম অনেক ভালো মানুষ!

প্রশ্ন: স্যার,আপনার লেখা ‘অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবী’বইটি পড়ে আমার ৩টি প্রশ্ন আছে।
১.আপনার হাতের ব্যাথার কথা বলেছেন সেটি কী এখনো আছে??
২.ফয়জুর রহমান পাজিটা এখন কোথায়??
৩.ইয়েশিম আপুর ছেলে বাবু হয়েছে নাকি মেয়ে??
আর একটা কথা বইটি আসাধারণ।।
জাইশা,ঢাকা।
উত্তর: ১. আছে। ২. জেলে। ৩. ছেলে। (জানি না এই বইটা লেখা ঠিক হয়েছে কি না। ভাবলাম এরকম অভিজ্ঞতা তো খুব বেশী মানুষের হয়না, আমার যেহেতু হয়েছে, লিখে রাখি।)

প্রশ্ন: স্যার,উত্তরএর এখানে আপনার যেই ছবিটা দেওয়া সেটি কেন তুলেছিলেন??আর ছবি টা কে তুলে দিয়েছে??উত্তর দিতে দিতে আপনার মাথা খারাপ
রুহি, কুমিল্লা
উত্তর: তোমাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে আমার কী অবস্থা হয় সেটা বোঝানোর জন্য ছবিটা তোলা হয়েছিল। মনে হয় ইয়াসমীন ছবিটা তুলে দিয়েছিল।

প্রশ্ন: স্যার,আমি পেরেছি।আপনাকে অনেক কাছ থেকে দেখতে।আপনার অটোগ্রাফ পেয়েছি।হেনডসেক করতে পেরেছি।আপনি ডেকে না নিলে হয়তো হতো না।২৫ই মার্চ দিন টা আমার সারাজীবন মনে থাকবে।।আমার জীবন ধন্য।।আবার আসবেন আমাদের ময়মনসিংহ।। অবন্তি,ময়মনসিংহ।।
উত্তর: এতো অল্পে জীবন ধন্য হলে কেমন করে হবে। আরো বড় কিছু ঘটুক তখন বলবে জীবন ধন্য হয়েছে!

প্রশ্ন: আপনি শিশু কিশোরদের জন্য এত কম লেখেন কেন?
-রাইয়ান আল রোহান
ক্লাস ফাইভ
আটঘরিয়া,পাবনা
উত্তর: হায় হায় হায়! বলে কী এই ছেলে! তুমি কী জান আমি শিশু কিশোরদের জন্য কত বই লিখেছি? প্রায় দুইশ?

প্রশ্ন: আমাকে যদি কেও জিজ্ঞেস করে তোমার পছন্দের বই কোনটি? আমি কখনই বলতে পারি না, কারন আপনার সব লেখাই আমার অনেক ভালো লাগে। কোনটা রেখে কোনটা বোলবো দিধায় পরে যাই। কেও যদি বলে,
” আমি স্যার এর সব চেয়ে বড় ভক্ত “, আমার এত বিরক্ত লাগে, মনে হয় আমার চেয়ে তো বেশি না।
কেন আপানাকে এত্তত্তত্তত্ত ভালোবাসি??
আনিকা, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ।
উত্তর: থ্যাঙ্ক ইউ আনিকা। সবাই তোমার মত পাঠক হলে আমার কোনো চিন্তাই থাকতো না। যেনো তেনো ভাবে একটা বই লিখতাম আর সবাই বলতো বাহ! কী অসাধারণ বই!

প্রশ্ন: প্রিয় মুজাই স্যার, আপনি নিশ্চয়ই ভালো আছেন। আমি আপনার অনেক বড় ভক্ত। আপনার কিশোর উপন্যাসগুলো এত সুন্দর হয় যে কী বলব। আপনার গল্পের প্রকৃতির বর্ণনাগুলোও অন্নেক সুন্দর। আমি কি আপনাকে একটা গল্পের থিম দিতে পারি স্যার?
নাম-শ্যামশ্রী রায় শ্রেণি-ষষ্ঠ স্কুল-উদ্দীপন বিদ্যালয় ঠিকানা-লালমাটিয়া,ধানমন্ডি,ঢাকা-১২০৭
উত্তর: অবশ্যই দিতে পারো। সেটা কাজে লাগাতেপারব কীনা সেটা হচ্ছে প্রশ্ন!

প্রশ্ন: আপনার লেখাগুলো আরেকটু বড় মানুষের জন্য লেখা দরকার।যেমনঃকুয়ান্টাম মেকানিক্সএর উপর লেখা আপনার বইটা আরেকটু ভালো করে লিখে নতুন করে বানারে আসলে খুশি হব নামঃ মারুফ ঠিকানাঃসিলেট
উত্তর: বড় মানুষের জন্য বড়দের বইয়ের তো কোনো অভাব নেই। সেজন্যে আমি ছোটোদের জন্য লিখছি।

প্রশ্ন: স্যার,,প্রায় দুই বছর হয়ে গেল,,প্রশ্নের উত্তর পেলাম নাহ্,,আর এখন তো আগের প্রশ্নই খুঁজে পাচ্ছি না? বড় বিপাকে আছি স্যার,, কি করা যায়,,আপনার সাথে কথা বলার এখনও অনেক ইচ্ছা রয়ে গেছে আমার স্বাগতম মালাকার সরকারি বিজ্ঞান কলেজ।।
উত্তর: যদি প্রশ্নই খুঁজে না পাও তাহলে বুঝতে তার উত্তর জানা এমন কিছু জরুরী না। কোনো একদিন নিশ্চয়ই দেখা হবে, তখন যত ইচ্ছা কথা বলে নিও।

প্রশ্ন: সাবর্ণি সেন, ঢাকা স্যার আমি বুয়েটে পড়ি। পাশ করতে খুবই ঝামেলা হচ্ছে। ম্যাথ পারিনা, প্রবাবিলিটি আরও পারিনা। কী করব?
উত্তর:  তাবিজ দিয়ে  কাজ হলে একটা তাবিজ দিয়ে দিতাম! (আসলে এগুলো ছোটো খাটো বিষয় নিয়ে মাথা ঘামিও না। প্রথম প্রথম সবাই এরকম বলে তারপর সব ঠিক হয়ে যায়! দেখো, তোমারও সব কিছু ঠিক হয়ে যাবে।)

প্রশ্ন: স্যার, আমি সবসময় চেয়েছি অত্যন্ত সাহসী একটি মেয়ে হতে, ছোটবেলায় আমি সে রকম একজনই ছিলাম।কিন্তু আমি যতই বড় হচ্ছি ততই নিজেকে সব কিছু থেকে গুটিয়ে নিচ্ছি।কারণ, আমি PCOS-এ আক্রান্ত।সবাই আমার দিকে তাকিয়ে থাকে।তাই আমি ঠিক করেছি এই গ্লানিময় জীবন আমি আর রাখব না।জানি সিদ্ধান্তটি খুবই কঠিন।কিন্তু কী করব বলুন তো, আমি আর সহ্য করতে পারছি না।স্যার আপনি কি বলতে পারবেন কেন আমার সাথে এরকম হলো?আমার কত স্বপ্নই না ছিল! কত কিছু করব ভেবেছিলাম।এখন আমি কিছু আর করি না ।শুধু চুপচাপ বসে বসে ভাবি।আমি আর লেখাপড়া করি না। কলেজে রেজাল্ট আসে ফেলের কাছাকাছি। কিছু করি না বলে বাসাতেও অত্যাচার। স্যার আমার কি বেঁচে থাকাটা ঠিক হবে? আমি জানি আপনি বলবেন ঠিক হবে। কিন্তু ঠিক হবে না। শুধু জেনে রাখুন আমি সম্ভাব্য সব জায়গায় চেষ্টা করেছি বেঁচে থাকার। জেরিন,ঢাকা।
উত্তর: PCOS বিষয়টা কী আমি জানতাম না। অসুখ বিসুখের তথ্য কখনো ইন্টারনেট থেকে নিতে হয় না, তারপরেও আমি একটু দেখার চেষ্টা করলাম, যেটুকু বুঝেছি তাতে মনে হয়েছে PCOS থাকলেও একজন একেবারে সফল একটা জীবন পেতে পারে। তোমারো নিশ্চয়ই চমৎকার একটা জীবন হবে। কেন মন খারাপ করা কথা বলছ? প্লীজ আবার আগের মত লেখাপড়া শুরু কর, দেখবে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

প্রশ্ন: আমার মনে হয় আমি আপনাকে অনেক ভালোবাসি। আপনার লেখা অনেক বই আমি পড়েছি। (pdf) বই কেনা আমার জন্য একটু কষ্টকর আপনি যদি আপনার সকল বইয়ের pdf এখানে দিতেন তবে খুশি হতাম।
উত্তর: শুনেছি নেটে আমার সব বইয়ের pdf পাওয়া যায়, তুমিই কষ্ট করে বের করে নাও। আমার করার প্ল্যান আছে, কিন্তু সময়য় লাগবে, চট করে করতে পারব না।

প্রশ্ন: সিলেট তাওহিদ মনোয়ার
আপনার সাথে দেখা করতে চাই (যদি সম্ভব হয়)
উত্তর: যখন সিলেটে থাকি, ক্যাম্পাসে এসো, দেখা হবে।

প্রশ্ন: সমীরণ বর্মন, নবম শ্রেণি
স্যার, আপনি যেহেতু টুনটুনি ও ছোটাচ্চু নিয়ে লেখার আইডিয়া খুজছেন, আমি আপনাকে কিছু সাহায্য করছি –
১. টুনি হারিয়ে গেছে। ছোটাচ্চু ও বাকিরা মিলে টুনিকে উদ্ধার করবে।
২. ছোটাচ্চুর কারণে অনেক কেসের সমাধান হয়েছে। কিন্তু যারা আসামি তারা জানে না যে তার পিছনে টুনিরও হাত আছে। তাই তারা ছোটাচ্চুকে অপহরণ করবে।
৩. টুনিদের স্কুলে একটা নতুন চুপচাপ ছেলে এসেছে। কেউ না জানলেও সে আসার পর থেকে ক্লাসে যেসব দুর্ঘটনা ঘটছে তার পিছনে ঐ ছেলেটির হাত রয়েছে।
৪. শান্ত কোনো একটা কারণে ক্লাসে ফার্স্ট হতে চায়। তাই সে পুরোদমে পড়ালেখা শুরু করে দিয়েছে। কারণটা বের করবে টুনি।
৫. সব আন্ডাবাচ্চারা চট্টগ্রামে পাহাড় দেখতে গিয়েছে। টুনি আর টুম্পা তাদের থেকে আলাদা হয়ে হারিয়ে গেছে। টুনি চেষ্টা করছে সেখান থেকে বেরিয়ে আসার।
আর স্যার আপনার জিমেইল আইডিটা দিলে ভালো হতো। গুগল থেকে একটা পেয়েছি কিন্তু সেটা আপনার কিনা সে বিষয়ে সম্পূর্ণ নিশ্চিত নই।
উত্তর: থ্যাঙ্কু তোমার আইডিয়ার জন্য। না, আমি জিমেইল আইডি ব্যাবহার করি না, আমি আমার ইউনিভার্সিটির ইমেইল আইডি ব্যাবহার করি।

প্রশ্ন: পৃথিবীর ব্যাসার্ধ যদি ২০০০ কি.মি কমে যায়,তবে আহ্নিক গতির জন্য g এর মানের কতটা পরিবর্তন হবে?
উত্তর: বিষুব রেখায় 1/3

প্রশ্ন: নাম:সাদমান
স্যার আমি লেখক কতে চাই তবে মাথায় idea নাই।আপনি আমাকে ৩টি উপদেশ দেন।
উত্তর: পড়, বেশী করে পড় এবং খুব বেশী করে পড়। (এটা আমার স্ট্যান্ডার্ড উপদেশ)

প্রশ্ন: দাদু তুমি কি কখনো বই চুরি করেছ? আমি কখনো বই চুরি করিনি কিন্তু আমার ভাইয়ার অনেকগুলো অনেকে নিয়ে গেছে আর ফেরত দেয়নি। বই চুরি করা কি অপরাধ নয়? সাদিয়া ৮ম শ্রেণি শেরপুর, বগুড়া।
উত্তর: এখনো করি নাই। অবশ্যই বই চুরি অপরাধ। বিশেষ করে যে বইটা আমি অনেক কষ্টে জোগার করেছি সেটা কেউ নিয়ে গেলে মনে হয় তাকে আচ্ছা মতন একটা শিক্ষা দেই।

প্রশ্ন: পৃথিবীতে কী এমন কোনো জায়গা আছে যেখানে আমি দক্ষিণ দিকে ১ km গিয়ে যদি পূর্ব দিকে 1km যাই এবং তখন উত্তর দিকে 1km গেলে আগের জায়গায় পৌঁছে যাব?থাকলে কোথায় এবং কেন।
উত্তর: আছে, কিন্তু এর উত্তরটা আমি বলি না। কারন এটা হচ্ছে নিউরনে অনুরণনের প্রথম সমস্যাটি। এটা নিজে নিজে করার কথা।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি কেমন আছেন?ম‌্যাডাম কেমন আছে?? আপনার প্রিয় গায়ক,গায়িকা কে?আবার প্রিয় গান কোনটা??? বাংলাদেশে আপনার প্রিয় জায়গা কোথায়?? মাইশা,সপ্তম শেনি,ঢাকা।।
উত্তর: আমি ভালো আছি। ম্যাডাম ভালো আছে। আমার প্রিয় গায়ক গায়িকা এবং গান অনেক, বলে শেষ করতে পারব না। পুরো বাংলাদেশই আমার প্রিয়, শুধু ঢাকা শহরে ট্রাফিক জ্যামে যখন বসে থাকি তখন মনে হয়, কোন দুঃখে এখানে এসেছিলাম!

প্রশ্ন: স্যার,হুমায়ুন আহমেদ স্যার মারা যাওয়ার পর আপনি কি নুহাশ পল্লি গিয়েছেন?? সিয়াম,গাজিপুর
উত্তর: হ্যাঁ, গিয়েছি। অনেকবার।

প্রশ্ন: আমার নাম জাকারিয়া হোসেন
দশম শ্রেনি রোল 1 (বিজ্ঞান) ঠিকানা: ক্ষেতলাল,জয়পুরহাট…
Sir আমাদের দেশে কেন এত বর্ণ বিভেদ..আমি দেখতে কালো…কিন্তু আমি একজন ছেলে…আমাকেই মাঝে মাঝে খুব খারাপ লাগে..আমি ভাবি একটা মেয়ের তাহলে কি হয়…কেন আমাদের দেশে এমন হচ্ছে? কেন আপনি এ সম্পর্কে কিছু বলেন না..? Please Sir কিছু একটা করেন…আপনি তো সবই দেখেন…..
উত্তর: আসলে মানুষের গায়ের রং যে একটা ইস্যু হতে পারে সেটাই আমার কখনো মাথায় আসে নি। কী আশ্চর্য! কোনো মানুষের যদি এরকম চিন্তা ভাবনা থাকে, তাহলে এটা তার সমস্যা, আমি কেন এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করব? ওগুলো ব্যাপার মাথার মাঝেই আনবে না।

প্রশ্ন: স্যার, আমি যে আপনার কত বিশাল বক্ত আমি আপনাকে বলে বুঝাতে পারব না।আপনার প্রায় সব বই আমার পরা।পত্রিকাই আপনি যে কলাম গুলি লিখেন সব গুলি আমি সংগ্রহ করি।আপনি ফেসবুক পছন্দ করেন না তাই আমি ফেসবুক চালাই না।আপনি টেলিভিশান দেখেন না তাই আমিও দেখি না।যখন ক্লাস নাইনে উঠে দেখি আমাদের বই গুলি আপনি লিখেছেন।বিশ্বাস করতে পারবে না কত যে খুশি হয়েছিলাম বলে বুঝাতে পারব না। আপনাকে একটাবার কাছ থেকে দেখার অনেক ইচ্ছা আমার।আমি ময়মনসিংহ থাকি। এবার আমি বই মেলাই গিয়েছিলাম ২১তারিখ ভেবেছিলাম আপনি হইত আসবেন। অনেক সময় ছিলাম কিন্ত আপনি আসেন নাই। আপনার নতুন ৪ টি বই কিনে আপনার জন্য অপেক্ষা করেছি। পরে ময়মনসিংহ চলে আসছি এবং youtube এ দেখলাম আপনি ২২তারিখ আসছেন। এত খারাপ লাগছে বলে বুঝাতে পারব না।আমার কান্না দেখে বাবা বলেছেন জুলাই মাস এ আমাকে সিলেট নিয়ে যাবেন। তখন দেখা যাবে আপনি সিলেট এর বাইরে।আমার কপালই খারাপ।জানেন স্যার মার্চ এর ৩ তারিখ এর কথা আমি ভুলতে পারি না। ওইদিন আমি টিভির সামনে থেকে সরি নাই আপনি কেমন আছেন জানার জন্য সারারাত ঘুমুতে পারি নাই।যদি কখনো দেখা হই আমি অনেক অনেক খুশি হব।স্যার আপনি অনেক ভাল। আমাদের ভালবাসা আপনার সাথে সারাজীবন থাকবে।। আপনি ভাল থাকবেন স্যার।। অবন্তি,ময়মনসিংহ।দশম শ্রেনী
উত্তর: বাংলাদেশ ছোটো একটুখানি জায়গা, এখানে সবার সাথে সবার দেখা হবে। তোমার সাথেও দেখা হবে, নিশ্চিত থাক! (আমি সরি, মার্চ মাসের ৩ তারিখ তোমাদের সবাইকে এভাবে ভয় দেখানোর জন্য!)

প্রশ্ন: স্যার,আপনি এতদিন পর পর কেন আসেন??প্রায় তিন মাস আসেন না।আমদের কথা কি আপনার মনে হই না?আমরা যে ওএট করি।।আপনি খুব পঁচা।
উত্তর: সরি সরি সরি!! কী করব বল, বড় হওয়ার অনেক সস্যা, অনেক কিছু করতে করতে সময়য় শেষ হয়ে যায়।

প্রশ্ন: স্যার, আমি আপনার সাথে একটা সেলফি নেওয়ার জন্যে মারা যাচ্ছি। তাই আমি একুশে ফেব্রুয়ারির সকাল বেলাই বইমেলায় গিয়েছিলাম। কিন্তু কোথাও আপনার দেখা পেলাম না। কষ্টে আমার বুক ফেটে যাচ্ছে। আমার পক্ষে সিলেটে আসা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। আপনি বলেন, আমি এখন কি করব? আমি আগামী বছর বই মেলায় আসতে পারব না। আমি কিভাবে আপনার সাথে সেলফি নেব? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। দশম শ্রেণি।


উত্তর:নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, তুমি উপরের ছবিতে কাটা মাথার জায়গায় তোমার মাথাটা কেটে লাগিয়ে দাও, যতদিন তোমার সাথে দেখা না হচ্ছে এটাতে কাজ চলে যাবে!

প্রশ্ন: স্যার আমি পৃথিবীতে আপনার সবেচেয়ে বড় ভক্ত,অন্তত আমি তা-ই মনে করি (বড় বলতে আমি বয়স বুঝাইনি সেইটা তো বুঝতেই পারছেন)! আপনার নামে কেউ বাজে কথা বললে আমার প্রচণ্ড রাগ উঠে- আমি তার সাথে ঝগড়া শুরু করি- আর আমার এমন এক কপাল আপনার নামে সবচেয়ে বেশি কথা বলেন আমার স্কুলের স্যার রা- আর আমাকে তাদের সাথে ক্লাসে ঝগড়া করতে হয়! তাদের কথার মূল বিষয় বস্তু হলো আপনি আমাদের ফিজিক্স বই টাকে গল্পের বই বানিয়ে ফেলছেন- তারা সাজেশন দেয় কিভাবে বই লিখলে ভালো হত!!! ভাবটা এমন যে তারা একেক জন আইন্সটাইন! যাই হোক এই গুলো আমার প্রশ্ন না, আমার মনের কথা আপনাকে বললাম। তবে আপনার “তোমাদের প্রশ্ন আমার উত্তর” বইটা পড়ে আমার খুব খারাপ লাগছে। ঐবইএ একটা প্রশ্নে আপনি বলছেন যে একটা বাচ্চা কোনো দিন গবেষণা করতে পারবে না- গবেষণার জন্য অন্তত পিএইচডি হতে হবে। আমি জানেন টুইন প্রাইমের একটা অত্যন্ত চমৎকার প্যাটার্ন বের করেছি- আমার ধারণা (এবং বিশ্বাস) প্যাটার্নটা নিয়ে বিশ্বের বড় বড় গণিতবিদ ( বা ছোট ছোট গণিত বিদ!) যদি একটু গবেষণা করেন তবে কিছু একটা রেজাল্ট পাওয়া যাবে। আপনার বইটা পড়ে আমার উতসাহ বেশ কমে গেছে। আমি এখন কি করতে পারি আমার প্যাটার্ন টা নিয়ে? ইতি প্রত্যয় দাস, সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়-১০ শ্রেণী ( ভবিষ্যতে একজন গণিতবিদ হতে চাই)
উত্তর: একটা বাচ্চা বাচ্চাদের মত গবেষণা করতে পারবে। টুইন প্রাইমের সমস্যাটা ঠিক বাচ্চাদের গবেষণার বিষয় না, আমি প্রায় প্রতি সপ্তাহেই এর একটা প্রমান পাই। ধারণা করছি তোমার সমাধানটাও সেরকম একটা সমাধান হবে। (যেহেতু এখন আমাদের গণিত অলিম্পিয়াড আছে, আমি আশা করছি যাদের গণিত নিয়ে আগ্রহ আছে তারা এই প্লাটফর্মটা খুব ভালো ভাবে ব্যাবহার করতে পারবে।)

প্রশ্ন: sir ami hsc shesh kore bishsher famous ko university te porte chai(with full free scholarship). ejonno amake ki korte hobe?
Wasi,Dhaka
উত্তর: এই সব প্রশ্নের উত্তরের জন্য রয়েছে ইন্টারনেট! মিস্টার ইন্টারনেট এইসব বিষয় আমার থেকে অনেক ভালো করে জানে!

প্রশ্ন: I want to learn programming but don’t know where to start. Would you please help me? Wasi Kabir Class 10
Dhaka Residential Model College
উত্তর: তামিম শাহরিয়ারের প্রোগ্রামিংইয়ের বইটা দিয়ে শুরু কর।

প্রশ্ন: স্যার, আপনি খুব ভালো মানুষ। বাংলাদেশের বাচ্চাকাচ্চারা আপনার বই পড়ে ফেসবুক থেকে দূরে থাকে, আর সুন্দর স্বপ্ন দেখতে শেখে। আমিও মাঝে মাঝে এমনটা করেছি। SSC পরীক্ষার কিছুদিন বাকি। পড়া শেষ, তাই মন খারাপ(!)। তুলে নিলাম আপনার লেখা বই। পুরো একটা সায়েন্স ফিকশান সমগ্র! নিমেষেই মনটা ভালো হয়ে গেল। SSC এর দিনগুলো আমার জীবনের অন্যতম আনন্দের সময় ছিল। মনে হয় কোনদিন চাঁদে ফ্ল্যাট কিনতে পারলেও এত আনন্দ পেতাম না! সে সময়গুলোর জন্য ধন্যবাদ।
এবার HSC। পড়া বেশি, তাই মন খারাপ হয়নি এখনও। হয়তো আপনার বই কোনোদিন ছুটি পেয়ে পড়ব। দোয়া করবেন।
পুনশ্চ: বাসি খবরের রিয়্যাকশন: আপনি অবসরে গেছেন? হায় হায়! এখন নিশ্চয়ই আরও বেশি বই লিখবেন! এত বই রাখব কই?
ইশরাক, উত্তরা, ঢাকা।
উত্তর: সমস্যা সমস্যা সমস্যা! আসলেই তো এতো বই রাখবে কোথায়?

প্রশ্ন: Sir,ami apnar moto hote chai.Please give me sugesstion.NAME-AKASH,CLASS-9,ADD.-PABNA
উত্তর: গোঁফ রাখা দিয়ে শুরু কর। পাকার জন্য চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ বছর সময় দাও।

প্রশ্ন: স্যার, নিয়ান বইটি কি কোন সত্য ঘটনাকে কেন্দ্র করে লেখা? বইটির উৎসর্গ পড়ে মনে হল।
-প্রাপ্তি, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক।
উত্তর: না, এটা কোনো সত্যি ঘটনা নিয়ে লেখা না। বানানো।

প্রশ্ন: আমরা যখন সন্ধ্যাবেলা খোলা মাঠে দাঁড়াই তখন আমাদের মাথার উপরে একসাথে অনেক মশা উড়তে থাকে কেনো? জান্নাতুল আদন,সপ্তম শ্রেণী, রংপুর জিলা স্কুল, রংপুর
উত্তর: এই দেখো ইন্টারনেটে কী সুন্দর করে ব্যাখ্যা করা আছে। আমি চাই তোমরা ইন্টারনেট থেকে উত্তর খুঁজে পাওয়া শিখে যাও।

প্রশ্ন: Sir, will you write a book about programming like the book you wrote about calculus? Shanta,Mymensingh
উত্তর: আমার মনে হয় লেখার দরকার হবে না। আমার ছাত্র তামিম শাহরিয়ারের বইটা যথেষ্ট ভালো।

প্রশ্ন: শ্রদ্ধেয় স্যার, প্লাস চার্জ তো প্লাস চার্জকে বিকর্ষণ করে। তাহলে পরমাণুর কেন্দ্রে সব প্লাস চার্জ একত্রে থাকে কীভাবে? মোঃ রেদোয়ান ইসলাম রাতুল মিরপুর 2 01746703454
উত্তর: এই দেখো ইন্টারনেটে তোমার প্রশ্নের উত্তর কী সুন্দর করে দেওয় আছে। আমি চাই তোমারা তোমাদের প্রশ্নের উত্তরের জন্য ইন্টারনেটকে আরো অনেক বেশী ব্যাবহার কর।

প্রশ্ন: স্যার , আমি যতবার টুনটুনি ও ছোটাচ্চু পড়ি ততবারই আমার মন খারাপ হয়ে যায় । আমাদের চারপাশের মানুষ গুলো এত নরমাল কেন ? কেন সবাই টুনটুনির পরিবারের মত এবনর্মাল না ? আমরা সবসময় এমন একটা পরিবারের স্বপ্ন দেখি । আমাদের এত নরমাল আর বোকা মানুষ ভালো লাগে না । সাদিয়া , টাঙ্গাইল
উত্তর: বড় হয়ে তোমার নিজের পরিবারটা এরকম করে ফেলো!

প্রশ্ন: ami gonit olimpiade sujog peleo baba o ma porer porjae jete dicche na. ami sekhane jete chai ki kora jai please likhben nabila khan,class 10,khulna
উত্তর: শুনে খুব কষ্ট পেলাম। তোমার আব্বু আম্মুকে বোঝাও, এটা অনেক বড় একটা সুযোগ। তুমি কই জান, পৃথিবীর অন্যান্য দেশ আমাদের গণিত অলিম্পিয়াডের প্রোগ্রামটি দেখে অবাক হয়ে যায়।

প্রশ্ন: classe biggan porale ta amar mathar upor dia jay ki korbo masrafe,gopalgonj
Sir, “Podarthobigganer Prothom Path” chara apnar ar kono physics niye lekha boi ache?
Na thakle pls likhen.
উত্তর: ক্লাশে মাথাটা আরো উঁচু করে বস, যেন মাথায় এসে ঠোকা খায়! (আসলে ভয় পাবার কিছু নেই, একটু চিন্তা করলেই দেখবে সবকিছু খুবই সোজা!) না, আর কোনো ফিজিক্স বই লেখা হয়ি, লেখার ইচ্ছা আছে।

প্রশ্ন: প্রিয় স্যার,
আপনার জন্য প্রশ্ন-
১.অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবী কোন ঘরানার উপন্যাস?এটা কি ৮ম শ্রেণি পড়ুয়াদের জন্য উপযুক্ত?
২.আপনার সব কিশোর উপযোগী লেখা বইয়ের লিস্ট দিতে পারবেন?
৩.আরো লেখা চাই…আর টুনি-ছোটাচ্চুর পরের খণ্ডে প্লিজ ragging নিয়ে লিখেন।
৪.আমাকে চিনতে পারেন কি?২০১৪ সালে রাজশাহীর একটা রেস্টুরেন্টে আপনার বই “ভয় কিংবা ভালোবাসা”য় অটোগ্রাফ নিয়েছিলাম…
আপনার জন্য একগাদা ভালোবাসা।
তাপসী,৮ম শ্রেণী,সরকারি পি.এন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়,রাজশাহী।
উত্তর: ১. অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবী উপন্যাস নয়, সত্যি ঘটনা। ২. এই ওয়েব সাইটেই আছে, বইয়ের সেকশানে ৩. তুমি মাত্র ক্লাশ এইটে পড় ragging এর কথা কোথায় শুনলে? ৪. সরি! মনে করতে পারছি না, যদি কোনো একটা অঘটন ঘটাতে পারতে তাহলে মনে পড়তো!

প্রশ্ন: তোমার বাসার ঠিকানায় একটা চিঠি লিখব।ঠিকানাটা বলো না
উত্তর: আমার নাম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট ৩১১৪ লিখলেই চিঠি চলে আসবে।

প্রশ্ন: আমি আন্দাজ করতে পারছি , আপনার ভুলোমনা রোগটি প্রকট আকার ধারণ করেছে । আপনি স্রেফ ভুলে গেছেন যে আপনি বাচ্চা-কাচ্চাদের জন্য একখানা ওয়েবসাইট খুলেছিলেন । আর প্রশ্ন করে লাভ কী বলুন ?
উত্তর: সরি সরি সরি!!

প্রশ্ন: স্যার,আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানতে চাই।বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসরে যাবার পরে কি আমরা বইমেলা ছাড়াও আপনার নতুন নতুন গল্প,উপন্যাস ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী পাওয়ার আশা করতে পারি?বছরে শুধু বইমেলায় আপনার বই পেয়ে পোষায় না।মনের কথাটা বলার জন্য দুঃখিত।ভালো থাকুন সবাই।
উত্তর:ইচ্ছা আছে, দেখা যাক কী হয়!

প্রশ্ন: স্যার আজকে আমি আপনার ‘আমি তপু’ বইটি পড়ে শেষ করলাম।বইটা মাত্র ৩ দিনে শেষ করলাম।বইটা যখন পড়া শুরু করলাম প্রথম থেকেই কেমন একটা লাগতে লাগল।যতই পড়তে থাকি ততই কৌতুহল বাড়তে থাকে।ভেবেছিলাম ১ম দিনই পড়ে ফেলব।কিন্তু পড়ার চাপে শেষ করতে পারলাম না।গল্পটা যেমন বেদনাদায়ক তেমনি কৌতুহলউদ্দিপক।সবচেয়ে বেশি কষ্ট হয় যখন ওর মা মারা যায়।আাবার একটু ঘাবড়ে গিয়েছিলাম তপু যখন math olympiad এ ঠিকেনি।কিন্তু যখন ওর নাম ঘোষনা করা হলো তখন একটু ঠিক হলাম।এক কথায় অসাধারণ একটা বই।আমি জীবনে বোর্ড বই ছাড়া মাত্র তিন -চারটি বই পড়েছি।কিন্তু এই বইটা পড়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি এখন থেকে বই পড়ব।স্যার এরকম আরো কয়েকটা বইয়ের নাম বললে অনেক ভালো হয়।অনেক অনেক ধন্যবাদ এই ধরনের একটা বই লেখার জন্য।
মোহাম্মদ রাসেল,চট্টগ্রাম।
উত্তর: আমি খুব খুশী হয়েছি যে তুমি বই পড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছ। একজন মানুষ যদি বই না পড়ে তাহলে সে পূর্নাঙ্গ মানুষ হতে পারে না। এই পৃথিবীতে আধা মানুষ হয়ে বেঁচে থেকে কোনো লাভ আছে?

প্রশ্ন: সাদিয়া , টাঙ্গাইল
স্যার , আশা করি ভালো আছেন । আমি ৯ম শ্রেণীতে পড়ি । ছাত্রী হিসেবে খারাপ না । মোটামুটি ভালো বলে চালানো যাবে । আমার পড়াশোনা করতে অনেক ভালো লাগে । পাঠ‍্য বইয়ের বাহিরেও অনেক বই পড়ি । আর একটু মুক্ত চিন্তা করতে ভালোবাসি । সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড খুবই ভালো লাগে । বড় হয়ে একজন শিক্ষক হতে চাই । এই পর্যন্ত সব ঠিক আছে । কিন্তু আমার বাবা এসব চান না । তিনি আমার ভালোর (!) জন্য ‘আউট বই’ পড়তে দিতে চান না । এখন বলছেন , আমাকে সবসময় বোরকা পড়তে হবে । বাসার বাইরে যাওয়া যাবে না । লেখা পড়া বন্ধ । বিয়ে দিয়ে দিবে । প্রশ্ন হলো , আমি এখন কি করব ? আর বাবার (!) বিরুদ্ধে কী আইনি ব্যবস্থা নেয়া যায় ? স্যার , দয়া করে আমাকে সাহায্য করুন ।
উত্তর: অবশ্যি তোমাকে লেখা পড়া করতে হবে। যদি সত্যি সত্যি পড়াশোন বন্ধ হয়ে যাবার অবস্থা হয়, তাহলে যোগাযোগ করো। এরকম অবস্থায় সাহায্য করার জন্য অনেক প্রতিষ্ঠান আছে।

প্রশ্ন: নাইমুল সিয়াম উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার্থী, বোরহানউদ্দিন উপজেলা, ভোলা জেলা, বরিশাল বিভাগ। আসসালামু আলাইকুম, স্যার! আশা করি ভালো আছেন। আপনাকে গত বছরে (২০১৮) একটি চিঠি লিখেছিলাম, সাথে আমার লেখা একটি প্রবন্ধও ছিলো। কিন্তু এখন পর্যন্ত উত্তর পাইনি। একটা বিষয়ে আপনার ব্যক্তিগত মতামত জানতে চাই। আমাদের দেশ থেকে প্রতি বছর প্রচুর শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে যায়। তারা পৃথিবীর সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার মাধ্যমে যেমন নিজেদের যেমন দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করছে, তেমনি পড়াশুনা পরবর্তী সময়ে তারা বিদেশেই স্থায়ী হওয়ায় আমরাদের দেশ তাদের কাছ থেকে সরাসরি উপকৃত হচ্ছে না। ফলে দেশ তার মেধাবী শিক্ষার্থীদের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এমন কোনো উদ্যোগ কী নেওয়া যায় না যাতে তারা বিদেশে থেকেও দেশের উন্নয়নমূলক কাজে সরাসরি অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে? কী উদ্যোগ নেওয়া যায়? আপনি ছাত্র জীবনে কোন কাজটি না করলে জীবনে আরো ভালো করতে পারতেন বলে মনে করেন? ধন্যবাদ।
মোঃ রাসেল,চান্দগাঁও,চট্টগ্রাম
উত্তর: আমাদের মত দেশের জন্য এটি একটি সত্যিকারের সমস্যা। দেশটি যখন অর্থনৈতিক ভাবে আরেকটু দাঁড়িয়ে যাবে তখন অনেকেই ফিরে আসতে শুরু করবে। না, আমার ছাত্র জীবনের কোনো কাজ নিয়ে আমার ভেতর কোনো খেদ নেই। আবার এই জীবনটিতে ফিরে গেলে একইভাবে জীবন কাটাতাম!

প্রশ্ন: হ্যালির ধুমকেতু কিভাবে ৭৬ বছর পর পর পৃথিবীতে এসে পড়ে।অর্থাৎ এত দূর থেকে নির্দিষ্ট সময় পর পর কিভাবে পৃথিবীতে আসে?এর মধ্যে কি কোনো GPS সিস্টেম আছে?
উত্তর: ইন্টারনেট! ইন্টারনেট!! ইন্টারনেট!!! ইন্টারনেটে উত্তরটা খুঁজে বের করা শিখে নাও!

প্রশ্ন: Sir,amramoja korar jonno bondhura eke oporer bivinno nam rakhi,maje maje sir der o rakhi.eta ki khub kharap kaj.
উত্তর: স্যারেরা জানতে পারলে বিপদ হতে পারে!

প্রশ্ন: স্যার ভয়ানক ভয়ানক ভুতের গল্প লেখার সময় আপনি ভয় পান না?? রোজা গাইবান্ধা
উত্তর: মাঝে মাঝে পাই!

প্রশ্ন: স্যার, আমি কিন্তু আপনার মিতা।অর্থাত্‍ আমিও আপনার মত একজন লেখক! যদিও নাম ডাক তেমন হয়নি( হবে কী করে, কে-ই বা শুনেছে বিখ্যাত লেখক অমুক বর্তমানে ক্লাস টেনে পড়ছেন!) যদিও বাসায় আমার লেখা পড়ার জন্য কাড়াকাড়ি পড়ে যায়। আমি যাই লিখি সবাইকে পড়তে দিতে হয়।স্যার আমার স্বপ্ন আমি একদিন বড় লেখক হব (আপনি হয়ত মনে মনে ভাবছেন, “মেয়ের শখ দেখো বড় লেখক হবে! শোনো মেয়ে কোন বড় লেখক কখনো আগে থেকে এভাবে মাইকিং করে নাই”) ।স্যার আমি কিন্তু হব! আর হলে কিন্তু আমাকে আপনার বাসায় দাওয়াত করবেন এবং আমার সাথে খুবই আপনজনের মতো কথা বলবেন! (হায় আল্লাহ, এসব আমি কী আবোলতাবোল লিখছি, বড় লেখকের নমুনাটা একবার দেখুন ) স্যার অনেক অনেক ভালবাসা। রূপা, ঢাকা
উত্তর: তাড়াতাড়ি বড় লেখক হয়ে যাও, তাহলে আমাদের মত লেখকদের উপর থেকে চাপ কমে যাবে। (অবশ্যই তোমাকে বাসায় দাওয়াত করব, খুব আপনজনের মত কথা বলব।) আবোল তাবোল লেখা নিয়ে মাথা ঘামিও না, বড় লেখকের প্রথম লক্ষণ হচ্ছে আবোল তাবোল কথা বলা।

প্রশ্ন: স্যার আমি জীবনে কোনোদিন ক্লাসে প্রথম হইনি। কিন্তু খুব প্রথম হতে ইচ্ছা করে!সেভাবে শুরু করলেও হঠাত্‍ করে সব এলোমেলো হয়ে যায়. কোনভাবেই লক্ষ্য ঠিক রাখতে পারছিনা। কিন্তু আমি বুঝতে পারি আরেকটু চেষ্টা করলেই পারতাম।এরকম অনেক কাজেই হচ্ছে। আমার এখন কিছুই ভালো লাগে না। পড়তে বসলে কাঁদতে থাকি। স্যার আমি কখনো কারো কাছে সাহায্য চাই না।কারণ আমার ধারনা আমার সমস্যার সমাধান আমি নিজেই বুঝতে পারি। এই সমস্যার সমাধান কী হতে পারে সেটাও বুঝতে পারছি। তবুও সমস্যা হচ্ছে। স্যার, আপনি একটু সাহায্য করবেন? বকুল, শেরপুর
উত্তর: কেন জেনে শুনে বিপদ ডেকে আনতে  চাচ্ছ? কী লাভ? একবার যদি প্রথম হয়ে যাও তখন সবাই চাইবে যেন সবসময় প্রথম হতে থাকো। অনেক যন্ত্রণা।

প্রশ্ন: স্যার, আমি ইন্টারমিডিয়েটে পড়ি।আমার প্রাইভেট পড়তে ইচ্ছা করে না। তাই একটি প্রাইভেট শুরু করেও আর যাচ্ছি না।কিন্তু, আমার পরিবারের ধারনা আমি পিছিয়ে পড়ছি। তাদের কথাগুলোয় বেশ অস্বস্তি বোধ করছি.আমার প্রশ্নঃ আপনি, হুমায়ুন আহমেদ স্যার কি কখনো ইন্টারমিডিয়েটে প্রাইভেট পড়েছিলেন? পূর্ণতা, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ, জামালপুর
উত্তর: না, নিজের উপর বিশ্বাস রাখো, তুমি মোটেও পিছিয়ে পড়ছ না। না, আমরা কখনো প্রাইভেট পড়িনি।

প্রশ্ন: Sir, poromanu te electron nucleus er chardike na ghurle ki hoto???
Hredeta Debnath, Dhaka


উত্তর: তোমাকে কী উত্তর দেব সেটা নির্ভর করে তুমি কিসে পড় তার উপর। নিউক্লিয়াস ঘিরে ইলেকট্রনকে কেমন দেখায় আপাতত তার একটা ছবি দিচ্ছি। কেমন দেখাচ্ছে?

প্রশ্ন: স্যার, আমি মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে পড়তে চাচ্ছি। মুক্তিযুদ্ধের উপর লিখিত আপনার প্রিয় ৫টি বইয়ের নাম যদি বলতেন, তবে খুবই উপকৃত হতাম। নামঃ অরণ্য ঠিকানাঃ আম্বরখানা, সিলেট।
উত্তর: জাহানারা ইমামের একাত্তরের দিনগুলো দিয়ে শুরু কর।

প্রশ্ন: Can’t you name the next book of TUNTUNI O CHOTACCHU as Shesbar Tuntuni o Shesbar Chotacchu .
উত্তর: তারপর লিখতে হবে “আরো একবার শেষবার টুনটুনি ও আরো একবার শেষবার ছোটাচ্চু”?

প্রশ্ন: স্যার , তবুও টুনটুনি তবুও ছোটাচ্চু পড়ে জানতে পারলাম আপনি এই সিরিজের পরবর্তী বইগুলোর নাম নিয়ে বিশেষ চিন্তিত । আপনার ( কিংবা আমাদের ) সুবিধার্থে কিছু সম্ভাব্য নাম আমি দিয়ে দিলাম । ১. একটুখানি টুনটুনি ও একটুখানি ছোটাচ্চু ২.আরো একবার টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ৩.আরো একটুখানি টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ৪.জমজমাট টুনটুনি ও ছটাচ্চু ৫.এবং টুনটুনি এবং ছোটাচ্চু ৬.বাংলাদেশের টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ৭.শুধুমাত্র টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ৮.বিষষ্ময়কর টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ৯.রহস্য ভেদী টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ১০.সবার প্রিয় টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ১১.শেষ বার টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ১২.আরো শেষ বার টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ১৩.ফিরে এল টুনটুনি ও ছোটাচ্চু ১৪.চলতেই থাকবে টুনটুনি ও ছোটাচ্চু এছাড়া নানী / দাদি , শান্ত , ঝুমু খালা স্পেশাল কিছু ভার্সন থাকলে খুবই ভালো হয় । ভালো থাকবেন , স্যার । সাদিয়া , টাঙ্গাইল
উত্তর: নাম নিয়ে সবাই সাহায্য করে, কাহিনী নিয়ে কেউ সাহায্য করে না কেন?